অনূর্ধ্ব ২০ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা জেতা হিমা দাস বসতে চলেছেন অসম পুলিশের ডিএসপি পদে

অনূর্ধ্ব ২০ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা জেতা হিমা দাস বসতে চলেছেন অসম পুলিশের ডিএসপি পদে / Image Source- Instagram Post By Hima Das8
অনূর্ধ্ব ২০ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা জেতা হিমা দাস বসতে চলেছেন অসম পুলিশের ডিএসপি পদে / Image Source- Instagram Post By Hima Das8

অ্যাথলিট জগতের অন্যতম পরিচিত এক মুখ হিমা দাস। আইএএএফ অনূর্ধ্ব ২০ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে দেশের প্রথম অ্যাথলিট হিসাবে সোনা জেতার নজিরও রয়েছে তাঁর। এবার অন্য এক দায়িত্বে দেখা যেতে চলেছে তাঁকে। খুব শীঘ্রই অসম পুলিশের ডেপুটি সুপারিন্টেন্ডেন্ট পদে অভিষেক ঘটতে চলেছে হিমার। অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনওয়াল তাঁর মন্ত্রীসভার বৈঠকে রাজ্য পুলিশের ডিএসপি করার সিদ্ধান্ত নিলেন এই চ্যাম্পিয়ন অ্যাথলিটকে।

স্বাভাবিক ভাবেই নতুন সম্মান পেয়ে বেশ উচ্ছ্বসিত হিমা। ট্যুইট করে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদও জানান তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি লিখেছেন, ‘এটা খুব বড় সম্মান। আমাকে অসম পুলিশের ডিএসপি করার জন্য মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনওয়াল এবং হিমন্ত বিশ্বশর্মাকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি। অসম পুলিশে যোগ দেওয়ার জন্য আমি মুখিয়ে রয়েছি। এই পদ আমাকে বিরাট অনুপ্রেরণা জোগাবে। রাজ্য এবং দেশের হয়ে কাজ করার জন্য আমি মুখিয়ে রয়েছি। জয় হিন্দ।‘ কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেন রিজিজুও প্রশংসাসূচক বাক্যে ট্যুইট করেন, ‘অনেকে জিজ্ঞেস করছেন হিমার স্পোর্টস কেরিয়ারের কী অবস্থা? তাঁদের জানাই, অলিম্পিক্সে যোগ্যতা অর্জনের জন্য হিমা এনআইএস পাতিয়ালায় প্রস্তুতি নিচ্ছে।’

হিমাকে ডিএসপি পদে নিয়োগের পাশাপাশিই রাজ্যের ক্রীড়ানীতিতেও বদল আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে অসম সরকার। ইতিমধ্যেই সরকার থেকে জানানো হয়েছে, সে রাজ্যের ক্রীড়াবিদরা অলিম্পিক্স, কমনওয়েলথ গেমস, এশিয়ান গেমসে পদক জিতলে তাঁদের ক্লাস ওয়ান অফিসার হিসেবে সরকারি চাকরি দেওয়া হবে। এছাড়াও বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে পদকজয়ীদের ক্লাস টু সিনিয়র অফিসার পদে নিয়োগ করা হবে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে অনূর্ধ্ব ২০ বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে ৪০০ মিটার দৌড়ে স্বর্ণপদক জেতেন হিমা দাস। সেখানে তিনি সময় নেন মাত্র ৫১.৪৬ সেকেন্ড। তিনিই প্রথম ভারতীয় যিনি ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডে কোনও বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে সোনা জেতেন। সেই সম্মানেই ডিএসপি পদের অফিসার হিসেবে পুলিশে নিয়োগপত্র দেওয়া হচ্ছে হিমা দাসকে।

আরো পড়ুনঃ   রাজ্যে অগ্রিম পাঠানো টীকার কি সদ্ব্যবহার হয়েছে? মমতাকে প্রশ্ন বিজেপির