পি এম ফান্ডে নয়! শেষ মুহূর্তে মন বদলে অন্য জায়গায় টাকা দিতে চলেছেন কামিন্স! কোথায় দেবেন?

পি এম ফান্ডে নয়! শেষ মুহূর্তে মন বদলে অন্য জায়গায় টাকা দিতে চলেছেন কামিন্স! কোথায় দেবেন?
পি এম ফান্ডে নয়! শেষ মুহূর্তে মন বদলে অন্য জায়গায় টাকা দিতে চলেছেন কামিন্স! কোথায় দেবেন?

বেশ কিছু আগেই ভারতের বর্তমান কোভিড সঙ্কটের জন্য অর্থ সাহায্যের কথা ঘোষণা করেছিলেন অস্ট্রেলীয় পেসার প্যাট কামিন্স। কথা ছিল, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর পিএম কেয়ার্স ফান্ডে দান করবেন তিনি। তবে হঠাতই মন বদল! অস্ট্রেলীয় পেসার সম্প্রতি জানিয়েছেন, পিএম কেয়ার্স ফান্ড নয়, ভারতের করোনাকালীন পরিস্থিতিতে সাহায্য করে ইউনিসেফ অস্ট্রেলিয়া যে আবেদন করেছে, তাতেই দান করবেন কামিন্স। গত সোমবার নিজেই ট্যুইট করে জানালেন সে কথা।

প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহেই জানা গিয়েছিল ভারতে অক্সিজেন সরবরাহের জন্য মোদীর পিএম কেয়ার্স ফান্ডে ৫০ হাজার মার্কিন ডলার অর্থ সাহায্য করবেন প্যাট কামিন্স। এর কিছুদিন পরই ইউনিসেফ অস্ট্রেলিয়ার মাধ্যমে ভারতের জন্য বড়সড় অঙ্কের ত্রাণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া৷ যা শুনেই নিজের মত বদলান কামিন্স৷ নিজের অর্থ সাহায্য ইউনিসেফ অস্ট্রেলিয়ার মাধ্যমেই দিতে চান বলে জানান।

এই প্রসঙ্গে নিজের ট্যুইটারে ২৮ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার লেখেন, ‘ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া, এটা দারুণ কাজ। সবাইকে জানাই, ইউনিসেফ অস্ট্রেলিয়া ভারতের কোভিড নিয়ন্ত্রণের জন্য যে দানের আবেদন করেছে সেখানেই আমার বরাদ্দ অর্থ পাঠাচ্ছি। যদি আপনারাও সক্ষম হন, তাহলে দান করুন আর এই সাহায্যে যুক্ত হন।”

অবশ্য, প্যাট কামিন্সই একা নন, ভারতের সাহায্যে ইতিমধ্যেই দেশের শচীন তেন্ডুলকর, অজিঙ্ক রাহানে, শিখর ধাওয়ান, হার্দিক পান্ডিয়া, ক্রুণাল পান্ডিয়া, জয়দেব উনাদকাট, শেলডন জ্যাকসন, শ্রীবৎস গোস্বামীর প্রমুখ ক্রিকেটাররা মুক্তহস্তে দান করেছেন। পাশাপাশি বিদেশী ব্রেট লি, নিকোলাস পুরানের মতো ক্রিকেটারও সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন।

উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া জানিয়েছে, ভারতের জন্য ৫০ হাজার অস্ট্রেলীয় ডলার দান করা হবে। তার জন্য তহবিলও গড়ে তোলা হয়েছে। যেখানে অস্ট্রেলিয়াবাসীরা অর্থ দান করেছেন। অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশনও যুক্ত রয়েছে এই কাজে। এই উদ্যোগের জন্য সারা ক্রিকেট বিশ্বই ধন্য ধন্য করেছে অজি ক্রিকেট বোর্ডকে।