‘মেদিনীপুর-বারাকপুরের নেতারা ভাবনীপুরে সন্ত্রাস করতে এলে, মানুষ তাঁদের পা ভাঙবে’, প্রচারে বিস্ফোরক ফিরহাদ

‘মেদিনীপুর-বারাকপুরের নেতারা ভাবনীপুরে সন্ত্রাস করতে এলে, মানুষ তাঁদের পা ভাঙবে’, প্রচারে বিস্ফোরক ফিরহাদ
‘মেদিনীপুর-বারাকপুরের নেতারা ভাবনীপুরে সন্ত্রাস করতে এলে, মানুষ তাঁদের পা ভাঙবে’, প্রচারে বিস্ফোরক ফিরহাদ

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ ভবানীপুরের উপনির্বাচনের প্রচার ইতিমধ্যেই জোরকদমে শুরু হয়ে গেছে। প্রচারে কোমর বেঁধে নেমে পড়েছে তৃণমূল, বিজেপি এবং বাম শিবির। রবিবার সকাল থেকেই ভবানীপুরের ৮২ নম্বর ওয়ার্ডের অলিতে-গলিতে ভবানীপুর কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হয়ে নির্বাচনী প্রচারে ব্যস্ত মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। প্রচারের জন্য সাধারণ মানুষের বাড়ি বাড়ি যান তিনি। প্রচারে শুরু থেকেই বিজেপিকে নিশানা করেন রাজ্যের মন্ত্রী তথা তৃণমূল নেতা ফিরহাদ হাকিম।

আজ প্রচারে বেরিয়ে নন্দীগ্রামের ভোটের প্রসঙ্গ তুলে, তৃণমূল সুপ্রিমোকে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ কটাক্ষ করেন। তারই পাল্টা জবাব দিলেন ফিরহাদ হাকিম। এদিন তিনি নাম না করে, রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী এবং অর্জুন সিংকে নিশানা করেন। উল্লেখ্য, ভবানীপুরের উপনির্বাচনে বিজেপির তারকা প্রচারক হিসেবে দায়িত্বে আছেন শুভেন্দু অধিকারী এবং অর্জুন সিং। অর্জুন সিং আবার এই কেন্দ্রের পর্যবেক্ষকের দায়িত্বেও রয়েছেন।

এদিন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম হুঁশিয়ারির সুরে বলেন যে, ‘একটাও মানুষও বলছেন না মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়কে ভোট দেবেন না। সব মানুষই বলছেন মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়কেই ভোট দেবেন। গণতন্ত্রের নিয়ম হল মানুষের দুয়ারে যেতে হবে। সেই কাজটাই আমি করছি। আমি এখানকার ছেলে। আমি এখানকার প্রতিটা গলিতে রাজনীতি করেছি। তাই এই ভোট মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের একার ভোট না আমাদের সকলের ভোট। এখানে আমি নেতা-মন্ত্রী নই। আমি একজন তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী। সন্ত্রাসের কথা বলে আর কতদিন চালাবে বিজেপি? সন্ত্রাস তো গুজরাতে হয়। সন্ত্রাস দিল্লির রায়েট। সন্ত্রাসবাদীদের কেস দেওয়া হয় না। সন্ত্রাসবাদীদের কেস দেওয়া হয় না। বাংলায় সন্ত্রাস কোথায়? নন্দীগ্রাম, ভবানীপুর, চেতলা এক নয়। নন্দীগ্রামে যেভাবে রিগিং হয়েছে, মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়ের উপর অন্যায় হয়েছে সেটা ভবানীপুরে হবে না। মেদিনীপুর-বারাকপুরের নেতারা যদি ভাবনীপুরে রিগিং, কারচুপি, সন্ত্রাস করতে আসেন, তবে মানুষ তাঁদের পা ভেঙে দেবেন।’

কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে নিশানা করে মন্ত্রী বলেন, ‘মা দুর্গার রূপে মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায় অসুরদের বধ করেছেন। এবার ভারতে অসুররাজকে দমন করার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আসছেন।’

অন্যদিকে, ভবানীপুরের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতিপক্ষ তথা বিজেপি প্রার্থী আইনজীবী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল দাবি করেছেন, গণতন্ত্র ও মানবতার স্বার্থে মানুষ তাঁকে ভোট দেবেন। এই প্রসঙ্গে বিজেপি প্রার্থীকে ফিরহাদ হাকিম পাল্টা জবাবে বলেছেন, ‘মানবতার স্বার্থে বাংলার মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ভোট দিয়ে দিয়েছেন। ২১৩ টা কেন্দ্রে মানুষ ভোট দিয়ে দিয়েছেন।’