সুখবর! ২ মাসে ১৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগ! বিধানসভায় বড় ঘোষণা শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর

সুখবর! ২ মাসে ১৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগ! বিধানসভায় বড় ঘোষণা শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর
সুখবর! ২ মাসে ১৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগ! বিধানসভায় বড় ঘোষণা শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ শিক্ষক পদে চাকুরি প্রার্থীদের জন্য সুখবর দিলেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। আগামী দু’মাসের মধ্যেই ১৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগ সম্ভব হবে বলেই আশা প্রকাশ করেছেন ব্রাত্য বসু। মঙ্গলবার বিধানসভার অধিবেশনে শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, অতি দ্রুত মামলার জট কাটিয়ে শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হবে। এদিন শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আদালতের নির্দেশ মেনেই চাকরি প্রার্থীদের অভিযোগের নিষ্পত্তির চেষ্টা চলছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এই মুহূর্তে আদালতে মামলা চলার জেরে উচ্চ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া থমকে রয়েছে। কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশেই চাকরিপ্রার্থীদের অভিযোগের শুনানি চালাচ্ছে কমিশন। এদিন শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন যে, চাকরি প্রার্থীদের অভিযোগের নিষ্পত্তি করতে শিক্ষা দফতরের পক্ষ থেকে বিশেষ দলও গঠন করা হয়েছে। তিনি আরও জানিয়েছেন যে, কমিশনের তরফে চাকরিপ্রার্থীদের অভিযোগ শোনার পাশাপাশি আইনজীবীদের সঙ্গেও নিয়মিত যোগাযোগ রাখা হচ্ছে।

এদিন বিধানসভায় রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু বলেন, ‘আমরা মহামান্য আদালতের নির্দেশ মেনেই কাজ করছি। আদালতের তরফে আমাদের তিন মাস সময় দেওয়া হয়েছে। সরকারি ছ’জন অফিসার রোজ বসে অভিযোগ শুনছেন, নিষ্পত্তি করছেন৷ সেই তালিকা আমরা আদালতে জমা দেব৷ কর্মসংস্থানের জন্য মুখ্যমন্ত্রীর যে সদিচ্ছা, তার বাস্তবায়নের জন্য যা কিছু করা সম্ভব, আমরা তা দ্রুততার সঙ্গে করব৷’

শিক্ষামন্ত্রী এদিন দাবি করেছেন, আদালতের নির্দেশ মেনেই সব প্রক্রিয়া শেষ করে দু’ মাসের মধ্যেই ১৫ হাজার শিক্ষককে নিয়োগ করা সম্ভব হবে। এদিকে, স্কুল সার্ভিস কমিশন সূত্রে খবর, এখনও প্রায় পাঁচ হাজার চাকরিপ্রার্থীক অভিযোগের নিষ্পত্তি করার প্রক্রিয়া বাকি রয়েছে৷ এই মুহূর্তে যেভাবে অভিযোগের নিষ্পত্তি করতে শুনানি চলছে, তাতে ডিসেম্বরের মধ্যেই সব অভিযোগের নিষ্পত্তি করা সম্ভব হবে বলেই আশাবাদী কমিশন৷ সবমিলিয়ে কমিশনে প্রায় ১৮ হাজারের বেশি অভিযোগ জমা পড়েছে বলে খবর৷

অন্যদিকে, এদিন বিধানসভায় শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে রাজ্য বিজেপি বিধায়কের প্রশ্নের উত্তরে ক্ষুব্ধ ব্রাত্য বসু বলেন, ‘জাতীয়শিক্ষানীতি নিয়ে ফতোয়া চাপিয়ে দিলে মেনে নেব তার কোনও মানে নেই‌। বাঙালির শিক্ষা বিষয়ে একটা নিজস্ব চিন্তা আছে। জাতীয় শিক্ষানীতি নিয়ে অনেকাংশে মতভেদ আছে। একতরফা ফতোয়া মানব না।’

উল্লেখ্য, এই মুহূর্তে শিক্ষক নিয়োগের পাশাপাশি শিক্ষক বদলিও বহু আলোচিত বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে শিক্ষক মহলে। শিক্ষকদের যাতে তাঁদের বাড়ির কাছাকাছি বদলি করা যায়, তা নিশ্চিত করতেই ‘উৎসশ্রী’ পোর্টাল চালু করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু তার পরেও, বদলি নিয়ে ক্ষোভের জেরে বিকাশ ভবনের সামনে বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন পাঁচ শিক্ষক। অভিযোগ, বাড়ি থেকে বহু দূরে তাঁদের বদলি করেছে সরকার। আন্দোলনরত শিক্ষকদের ক্ষোভ প্রশমন করতে বিশেষ বার্তা দেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। তিনি বলেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে গত ৩১ জুলাই থেকে শিক্ষকদের বদলিতে সুবিধে করতে অনলাইন পোর্টাল ‘উৎসশ্রী’ চালু করা হয়েছে। এই অনলাইন পোর্টালটির সামগ্রিক কাজকর্ম দেখাশোনা করার জন্য ২০ জন আধিকারিকের একটি দল নিযুক্ত করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। এই পোর্টালটি উন্নত করার লক্ষ্যে তাঁরা প্রতিনিয়ত কাজ করে চলেছেন।