মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালাচ্ছেন? এই ব্যবস্থা নিতে পারে পুলিশ

মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালাচ্ছেন? এই ব্যবস্থা নিতে পারে পুলিশ
মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালাচ্ছেন? এই ব্যবস্থা নিতে পারে পুলিশ/ প্রতীকী ছবি

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কড়া হুঁশিয়ারি দিয়ে জানিয়েছেন চিংড়িহাটার মত রাস্তায় আর কোনও দুর্ঘটনার খবর তিনি শুনতে চাননা। এরপরেই তড়িঘড়ি রাতের শহরে ফের নাকা চেকিং শুরু করল পুলিশ। শুধু নাকা চেকিং নয়, এবার থেকে ফের শুরু হল ব্রেথ অ্যানালাইজার।

করোনা আবহে দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল এই ব্রেথ অ্যানালাইজার। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে আবার শুরু হল এই পরীক্ষা। রাতে কেউ মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালাচ্ছেন কিনা তা ধরার জন্যই এই পরীক্ষা করা হয়। এছাড়াও রক্তে অ্যালকোহলের শতকরা পরিমাণ মাপা হয় এই যন্ত্রের সাহায্যে। ধরা পড়লে বড় অঙ্কের জরিমানাও গুনতে হয়। 

পার্ক স্ট্রিট, ক্যামাক স্ট্রিট, লাউডন স্ট্রিট, গড়িয়াহাট, পাটুলি, ইএমবাইপাস-সহ শহরের একাধিক প্রান্তে শুক্রবার রাত থেকেই এই পরীক্ষা শুরু করেছে পুলিশ। যেখানেই কাউকে সন্দেহ হচ্ছে গাড়ি থামিয়ে পরীক্ষা চালাচ্ছেন পুলিশের কর্তারা। ধরা পড়লেই দিতে হচ্ছে জরিমানা।

সাম্প্রতিক এক রিপোর্টে দেখা গিয়েছে, শহর জুড়ে রাতে যে সমস্ত দুর্ঘটনা হচ্ছে তার অন্যতম কারণ হিসেবে উঠে আসছে মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোর বিষয়টি। তাই দুর্ঘটনায় রাশ টানতে ফের শহর জুড়ে ব্রেট অ্যানালাইজিং শুরু করল পুলিশ।