ফের উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে মামলা দায়ের! কবে শুনানি? রইল বিস্তারিত

ফের উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে মামলা দায়ের! কবে শুনানি? রইল বিস্তারিত
ফের উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে মামলা দায়ের! কবে শুনানি? রইল বিস্তারিত

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে নিয়ে আবারও আইনি জটিলতা তৈরি হল। নতুন করে তালিকা প্রকাশের পর, উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরুর নির্দেশ দিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চ। এবার সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে, ডিভিশন বেঞ্চে আবেদন করলেন মামলাকারীরা।

মামলাকারীদের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, এখনও স্বচ্ছ তালিকা প্রকাশ করা হয়নি। ইন্টারভিউ তালিকায় অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে মামলাকারীদের পক্ষ থেকে। আজই, সোমবার বিচারপতি সুব্রত তালুকদার ও বিচারপতি সৌগত ভট্টাচার্যের ডিভিশন বেঞ্চে সেই মামলার আবেদন জানানো হয়েছে। জানা গিয়েছে চলতি সপ্তাহেই এই মামলার শুনানির সম্ভবনা রয়েছে।

উল্লেখ্য, গত সপ্তাহেই নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করার নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি। এরপর বৃহস্পতিবার নতুন করে ইন্টারভিউ লিস্ট প্রকাশ করে স্কুল সার্ভিস কমিশন। আর এরপরেই নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করতে বলে আদালত। তালিকা প্রকাশের পর আর কোনও আবেদন শোনা হবে না বলে জানিয়ে দেন বিচারপতি। তবে, আদালতের নির্দেশে এও বলা হয় যে, তালিকায় অসন্তুষ্ট হলে চাকরি প্রার্থীরা সরাসরি কমিশনে অভিযোগ জানাতে পারবেন। তাঁদের অভিযোগের ভিত্তিতে স্কুল সার্ভিস কমিশন আলাদা করে তাঁদের কথা শুনবে এবং তার বিচার করবে।

আদালতের নির্দেশ মেনে, উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ সংক্রান্ত অভিযোগ জানানোর জন্য নতুন ই-মেল আইডি’র সূচনাও করা হয়েছে ইতিমধ্যেই। উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে কোনও চাকরিপ্রার্থীর অভিযোগ থাকলে, এই ই-মেলে সেই অভিযোগ জানানো যাবে বলে জানানো হয়েছে কমিশনের পক্ষ থেকে। আদালতের নতুন নির্দেশ অনুযায়ী, নতুন প্রকাশিত তালিকায় চাকরিপ্রার্থীরা সন্তুষ্ট না হলে, সে বা তাঁরা স্কুল সার্ভিস কমিশনে অভিযোগ জানাতে পারবেন। স্কুল সার্ভিস কমিশন আলাদাভাবে তাঁদের কথা গুরুত্ব দিয়ে শুনবেন। বলা হয়েছে যে, তাঁদের অভিযোগ দু’সপ্তাহের মধ্যে ইমেল করতে হবে বা হার্ড কপি দিতে হবে। এরপর তাঁদের বক্তব্য শোনার ১২ সপ্তাহের মধ্যে পরীক্ষার্থীকে জবাব দিতে হবে বলে জানিয়েছেন বিচারপতি। এর পাশাপাশি আদালতের দরজা খোলা থাকবে বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, শনিবার স্কুল সার্ভিস কমিশন সাংবাদিক বৈঠক করে এ প্রসঙ্গে জানিয়েছেন যে, বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর, ২ সপ্তাহ ধরে অভিযোগ জানানোর প্রক্রিয়া চলবে। কেউ চাইলে স্কুল সার্ভিস কমিশনের দফতরে আবেদনপত্র ও যথাযথ নথি দিয়েও অভিযোগ জানাতে পারবেন। এর মানে, অর্থাৎ ভার্চুয়াল মোডের পাশাপাশি কেউ চাইলে সশরীরে কমিশনে গিয়েও অভিযোগ জানাতে পারেন। এই ঘোষণা অনুযায়ী, শনিবার রাতে অভিযোগ জানানোর জন্য ই-মেল আইডি প্রকাশ করা হয়। grievanceredress@wbcssc.co.in- এই ই-মেলে উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ সংক্রান্ত যে কোনও অভিযোগ জানানো যাবে।

কিন্তু মামলাকারীদের পক্ষ থেকে দাবি করা হচ্ছে যে, এখনও স্বচ্ছ তালিকা প্রকাশ হয়নি গরমিল রয়েছে ইন্টারভিউ লিস্টে। উল্লেখ্য, এর আগে বিচারপতি অভিজিত গঙ্গোপাধ্যায়ের সিঙ্গল বেঞ্চে এই মামলা হয়, তখন বিচারপতি নতুন তালিকা প্রকাশ করতে বলেছিলেন। সেই মতো গত সপ্তাহেই নতুন করে তালিকা প্রকাশ করে স্কুল সার্ভিস কমিশন। আদালতের নির্দেশ মেনেই, ওই তালিকায় নামের সঙ্গে দেওয়া হয় নম্বরও। পাশাপাশি যারা সেই তালিকায় জায়গা পাননি, তাঁদের নাম এবং নম্বরও আলাদা করে প্রকাশ করা হয়।

এদিকে উচ্চ প্রাথমিকের সদ্য প্রকাশিত তালিকা ঘিরে চাকরি প্রার্থীদের অসন্তোষ কিছুতেই মিটছে না। বিক্ষোভকারীদের দাবি, যোগ্যতার প্রামাণ্য নথি আপলোড করা সত্ত্বেও অনেকের ক্ষেত্রে তা দেখানো হয়নি। অ্যাকাডেমিক নম্বরেও গরমিল রয়েছে বলে বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ। চাকরিপ্রার্থীদের দাবি, অভিযোগের নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত, শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া বন্ধ রাখুক স্কুল সার্ভিস কমিশন। তা না হলে, যোগ্য প্রার্থীদের প্রতি অবিচার করা হবে।