গুরুতর জখম মন্ত্রী জাকির হোসেনকে দেখতে এসএসকেএম গেলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি! কী বললেন তিনি?

গুরুতর জখম মন্ত্রী জাকির হোসেনকে দেখতে এসএসকেএম গেলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি! কী বললেন তিনি?
গুরুতর জখম মন্ত্রী জাকির হোসেনকে দেখতে এসএসকেএম গেলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি! কী বললেন তিনি?

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ বোমার আঘাতে গুরুতর জখম রাজ্যের শ্রম দফতরের প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন। বর্তমানে তাঁর শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল বলেই জানা গেছে। রাজ্যের মন্ত্রীর উপর হামলার ঘটনায় ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে সিআইডি। আজ বৃহস্পতিবার সকালে মুর্শিদাবাদের নিমতিতা স্টেশনের উক্ত ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যায় সিআইডি এর প্রতিনিধি দল সহ ফরেনসিকের বিশেষজ্ঞ দলও।

উল্লেখ্য বুধবার রাতেই কলকাতায় আনা হয়, বোমার আঘাতে গুরুতর জখম মন্ত্রী জাকির হোসেনকে। বর্তমানে দুর্ঘটনায় জখম মন্ত্রী-সহ বেশ কয়েকজন এসএসকেএম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। হাসপাতাল সূত্রে খবর, জাকির হোসেনের চিকিৎসার জন্য মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। বর্তমানে তাঁর অবস্থা স্থিতিশীল। মন্ত্রীর পায়ে এবং হাতে গুরুতর আঘাত রয়েছে। বেলা দশটায় তাঁর পায়ে অস্ত্রোপচার করা হবে বলে হসাপাতাল সূত্রে জানা গেছে। অন্যদিকে বাকি আহতদেরও চিকিৎসা চলছে।

প্রসঙ্গত আজ বোমার আঘাতে গুরুতর জখম মন্ত্রী জাকির হোসেনকে এসএসকেএম হাসপাতালে দেখতে আসেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি মন্ত্রী জাকির হোসেনের স্বাস্থ্যের খবর নেন এবং ডাক্তারদের সঙ্গে কথা বলে। আজ এসএসকেএম থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি বলেন, মন্ত্রী জাকির হোসেন সহ বাকি আহতদের অবস্থা গুরুতর। এই ঘটনার বিরুদ্ধে তিনি ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান। এছাড়া তিনি বলেন, এই ঘটনা একটা ষড়যন্ত্র। মন্ত্রী জাকির হোসেনের অবস্থা সহ বাকি আহতদের অনেকের অবস্থা চোখে দেখা যাচ্ছে না। এদিন তিনি বলে যারা আহত হয়েছেন সকলকেই তিনি ৫ লক্ষ করে টাকা দেবেন। এছাড়া যাদের প্লাস্টিক সার্জারির প্রয়োজন হবে তিনি সে দায়িত্বও নেবেন।

বিধানসভা নির্বাচনের আগে আগে রাজ্যের মন্ত্রীর উপর এই ধরনের হামলায় উত্তপ্ত রাজ্য-রাজনীতি। দল নির্বিশেষে প্রত্যেকেই এই হামলার তীব্র নিন্দা করেছেন। এই ঘটনার নিন্দায় সরব হয়েছেন অধীর চৌধুরী, আবু তাহের থেকে কৈলাস বিজয়বর্গীয়। প্রত্যেকেই সঠিক তদন্তের দাবি জানিয়েছেন। রাজ্যপালও এই হামলার ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন।

আরো পড়ুনঃ   অবশেষে বিজেপিতেই যোগ দিলেন আসানসোলের প্রাক্তন মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারি