বিয়ে বাড়িতে কফি খেতে যাওয়াই কাল হল! মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় মৃত্যু এক অতিথির

বিয়ে বাড়িতে কফি খেতে যাওয়াই কাল হল! মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় মৃত্যু এক অতিথির
বিয়ে বাড়িতে কফি খেতে যাওয়াই কাল হল! মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় মৃত্যু এক অতিথির / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ বন্ধুর মেয়ের বিয়ের নিমন্ত্রণ রক্ষা করতে গিয়েছিলেন। ভাবেননি এই নিমন্ত্রণ রক্ষা করতে যাওয়ার পরিণতি কতোটা ভয়ঙ্কর হতে চলেছে। বিনা মেঘে বজ্রপাতের মতোই মুহূর্তের মধ্যে এই নিমন্ত্রণ তাঁর জীবনেরও শেষ নিমন্ত্রণ হয়ে থেকে গেল।

মর্মান্তিকভাবে প্রাণ হারালেন এক ব্যক্তি। ঘটনাটি ঘটেছে সিউ সিউড়ির লম্বোদরপুরে। সেখানে বন্ধুর মেয়ের বিয়ের নিমন্ত্রণে সারা দিয়ে গিয়েছিলেন বছর ৪৫ এর স্বপন দাস। সিউড়ি আদালতে তাঁর একটি চায়ের দোকান রয়েছে। জানা গিয়েছে, বিয়ে বাড়িতে অতিথিদের জন্য কফি দেওয়ার জন্য কফি মেশিনের ব্যবস্থা করা হয়েছিল। সেই মেশিন। সেই মেশিন ফেটে তার টুকরো ছিটকে এসে আঘাত করে ওই ব্যক্তির ফুসফুসে। তড়িঘড়ি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও শেষরক্ষা হয়নি।

এই ঘটনায় স্তম্ভিত হয়ে যান উপস্থিত সকলেই। বিয়ে বাড়ির আনন্দের পরিবেশ মুহূর্তের মধ্যেই বিষাদে ছেয়ে যায়। এই ঘটনায় আরও দুইজন আহত হয়েছেন। মৃত স্বপন দাসের এক বছর ১০-এর কন্যা সন্তান রয়েছে। স্ত্রী মানসিক ভারসাম্যহীন। ঘটনার সময়, অন্যান্য অতিথিদের সঙ্গে তিনিও ছিলেন কফি মেশিনের কাছাকাছি। সেই সময় আচমকাই কফি মেশিন বিকট আওয়াজ করে ফেটে যায়। সেই মেশিনের টুকরো ছিটকে গিয়ে অতিথিদের জখম করে। স্বপন দাসের মৃত্যু হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী, সিউড়ি আদালতের আইনজীবী, মানবেন্দ্র মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ‘‌এমন ঘটনা দেখা তো দূর, জীবনে কোনওদিন শুনিনি। এই মৃত্যুতে খুব খারাপ লাগছে। কারণ তিনি খুব গরিব ছিলেন। সিউড়ি আদালত চত্বরে সামান্য একটি চায়ের দোকান ছিল স্বপনের। ঘরে ছোট একটি মেয়ে রয়েছে।’‌ স্বপন দাসের মৃত্যুতে এলাকায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।