সর্ষের তেলে রান্না করেন! তাহলে এই বিষয়গুলি জেনে নিন

সর্ষের তেলে রান্না করেন! তাহলে এই বিষয়গুলি জেনে নিন
সর্ষের তেলে রান্না করেন! তাহলে এই বিষয়গুলি জেনে নিন

সর্ষের তেলের বেশ কিছু স্বাস্থ্য উপকারিতা রয়েছে। এর ব্যবহার আমাদের স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে বিভিন্ন ক্ষতিকারক প্রভাবও ফেলতে পারে। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে যে, সর্ষের তেলে প্রচুর পরিমাণে Erucic Acid আছে। অত্যধিক পরিমাণে Erucic Acid থাকায় সর্ষে তেল আমাদের স্বাস্থ্যের পক্ষে অত্যন্ত ক্ষতিকর রূপ ধারণ করতে পারে। অতিরিক্ত মাত্রায় সর্ষের তেলের গ্রহণ করলে কার্ডিওভাসকুলার সমস্যা, শ্বাসকষ্ট, ডায়রিয়া, রক্তাল্পতা এবং ক্যান্সারের মতো বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে।

সর্ষের তেলে থাকা উচ্চ মাত্রার eructic acid, হার্টের স্বাস্থ্যের উপর এটি ক্ষতিকারক প্রভাব ফেলতে পারে। হার্টের মাংসপেশীতে ট্রাইগ্লিসারাইড গড়ে ওঠার কারণে ফাইব্রোটিক ক্ষত সৃষ্টি হয়। যা হার্টের পেশীগুলিকে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করে এবং কখনও কখনও হার্ট ফেলিওর এর মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে।

সর্ষের তেলে থাকা eructic acid, কার্ডিওভাসকুলার সমস্যার ঝুঁকি বৃদ্ধির সাথে সাথে, ফুসফুসকেও ক্ষতিগ্রস্ত করে। প্রাথমিক পর্যায়ে, এটি কেবলমাত্র শ্বসনতন্ত্রের উপরের অংশকে প্রভাবিত করে। যার ফলে শ্বাসকষ্ট-সহ, অন্যান্য অনেক সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাছাড়া দীর্ঘদিন ধরে সর্ষের তেল গ্রহণ করলে, তা লাং ক্যান্সারের ঝুঁকিও বৃদ্ধি করতে পারে।

সর্ষের তেলে allyl isothiocyanate নামক ক্ষতিকর রাসায়নিক যৌগ বর্তমান। এটি অত্যন্ত শক্তিশালী পদার্থ। তাই সর্ষের তেল গ্রহণের ফলে, অনেক সময়ই ফুসফুসের আস্তরণে, গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল ট্র্যাক্ট এবং অন্ত্রে প্রদাহ সৃষ্টি হয়।