নয়া স্ট্রেনের হানার মধ্যেও স্বস্তির খবর, দেশের দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ফের ৪০ হাজারের নিচে

নয়া স্ট্রেনের হানার মধ্যেও স্বস্তির খবর, দেশের দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ফের ৪০ হাজারের নিচে
নয়া স্ট্রেনের হানার মধ্যেও স্বস্তির খবর, দেশের দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ফের ৪০ হাজারের নিচে / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার পর, দেশে ঝড়ের গতিতে বাড়তে শুরু করেছিল করোনার সংক্রমণ। তবে, এখন দেশে করোনা পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। সংক্রমণ কমার পাশাপাশি বেড়েছে সুস্থতার হারও। তবে, মাঝে কিছুদিন দেশে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা বাড়লেও। এবার তা ফের নিম্নমুখী। কয়েকদিন পর, সপ্তাহের প্রথম দিনে ফের দেশে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ৪০ হাজারের নিচে। পাশাপাশি দেশে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যাও কমেছে।

বেশ কয়েকদিনের ব্যবধানে দেশে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা অনেকটাই কমেছে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের সাম্প্রতিকতম পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩৭ হাজার ১৫৪ জন। রবিবার দেশে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৪১ হাজার ৫০৬ জন। এর ফলে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ৮ লক্ষ ৭৪ হাজার ৩৭৬ জন।

যদিও এর মধ্যেই চোখ রাঙাচ্ছে করোনার একাধিক স্ট্রেন। যেমন- ডেল্টা, ডেল্টা প্লাস, কাপ্পা, বিটা ইত্যাদি। এই পরিস্থিতিতে দেশেও কমবেশি করোনার নয়া প্রজাতি দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যাও নিম্নমুখী। একদিনে দেশে করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন ৭২৪ জন। গতকাল দেশে করোনায় মৃত্যু হয়েছিল ৮৯৫ জনের। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এই মুহূর্তে দেশে মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৪ লক্ষ ৮ হাজার ৭৬৪ জন।

অন্যদিকে, দেশে ক্রমশ বাড়ছে সুস্থতার হার। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাকে পরাস্ত করে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩৯ হাজার ৬৪৯ জন। এনিয়ে দেশে সুস্থতার হার দাঁড়াল ৯৭.২২ শতাংশ। এই মুহূর্তে দেশে অ্যাকটিভ করোনা রোগী ৪ লক্ষ ৫০ হাজার ৮৯৯ জন।

দেশে করোনার তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার সম্ভবনা রয়েছে। তাই করোনা সংক্রমণের মোকাবিলায় এই মুহূর্তে দেশে জোরকদমে চলছে গণটিকাকরণের কাজ। যদিও এই মুহূর্তে দেশে ভ্যাকসিনের ঘাটতি রয়েছে সামান্য হলেও। এরপরেও স্বাস্থ্য মন্ত্রকের পরিসংখ্যান থেকে জানা যাচ্ছে যে, ২৪ ঘণ্টায় টিকা পেয়েছেন দেশের ১২ লক্ষ ৩৫ হাজার ২৮৭ জন মানুষ। আর দেশে মোট টিকাকরণ হয়েছে ৩৭ কোটি ৭৩ লক্ষ ৫২ হাজার ৫০১ জনের।

এদিকে, রাজ্যগুলিতে টিকা সরবরাহ ঠিকমতো হচ্ছে না বলে কেন্দ্রের পক্ষ থেকে অভিযোগ রয়েছে। এই অভিযোগ বাংলার ক্ষেত্রে বেশি। সূত্রের খবর, এই মুহূর্তে কেন্দ্রের পাঠানো ভ্যাকসিন পর্যাপ্ত না থাকার কারণে, রবিবারের পর সোমবারও কলকাতার টিকাকরণ কেন্দ্রগুলি বন্ধ থাকছে।