ধোনির সঙ্গে দেখা করতে প্রায় ১৪০০ কিমি হেঁটে ঝাড়খণ্ড এলেন এই ‘ডাই হার্ড ফ্যান’! অতঃপর…

ধোনির সঙ্গে দেখা করতে প্রায় ১৪০০ কিমি হেঁটে ঝাড়খণ্ড এলেন এই 'ডাই হার্ড ফ্যান'! অতঃপর...
ধোনির সঙ্গে দেখা করতে প্রায় ১৪০০ কিমি হেঁটে ঝাড়খণ্ড এলেন এই 'ডাই হার্ড ফ্যান'! অতঃপর...

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট জগৎ ছেড়ে তিনি এখন অনেকটাই দূরে৷ অবসরের প্রায় ১ বছর হতে চলল। তবু মহেন্দ্র সিং ধোনির ভক্তের কমতি নেই। ধোনি বলতে তারা যেন অজ্ঞান! সেই রকম আরেকজন হলেন হরিয়ানার ছোট্ট গ্রাম খেদি জালাবের বাসিন্দা অজয় ​​গিল। নিজের পরিচয় তিনি দেন ধোনির ‘ডাই হার্ড ফ্যান’ হিসেবে৷ আর তাই পছন্দের ক্রিকেটারের সঙ্গে দেখা করার উদ্দেশ্যে অভিনব এক কাণ্ড ঘটালেন তিনি। ধোনিকে স্বচক্ষে দেখতে হরিয়ানা থেকে প্রায় ১৪০০ কিমি পথ পায়ে হেঁটে ঝাড়খণ্ড রওনা দিয়েছিলেন এই ভক্ত।

২৯ জুলাই হিসার থেকে যাত্রা শুরু করেছিলেন অজয়। এরপর একে একে জিন্দ, গোহানা, সোনিপাত, দিল্লি, গাজিয়াবাদ, দাদরি, সেকেন্দ্রাবাদ, বুলন্দশহর, আলিগড়, ইটা, কানৌজ, কানপুর, প্রয়াগরাজ, বারাণসী, রাঁচি হয়ে ১৪ অগাস্ট ঝাড়খণ্ডের রিং রোডে হেঁটে ধোনির ফার্মহাউসে পৌঁছেছিলেন তিনি। সঙ্গী বলতে ছিল পিঠে একটি ব্যাগ আর হাতে দেশের জাতীয় পতাকা। তাই নিয়েই ধোনির সঙ্গে দেখা করতে পৌঁছেছিলেন অজয়। কিন্তু বিধি বাম! ভাগ্য সহায় হয়নি এই ভক্তের। সে সময় ধোনির নিজের ফার্ম হাউসে ছিলেন না। ফলে পছন্দের খেলোয়াড়কে দেখার সাধ মেটেনি ওই ভক্তের।

যদিও যুবকটির সাহস এবং আবেগ মন জয় করে নিয়েছেন অনেকের। তাঁরাই এরপর যুবকটিকে বিমানে করে বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করেন। জানা গিয়েছে, মাহির এই অন্ধ ভক্ত নিজেও ক্রিকেট খেলতে ভালোবাসেন৷ চার বছর বয়স থেকে ক্রিকেটের প্রতি অনুরাগী তিনি। অজয়ের কথায়, ২০০৪ সালের ২৩ ডিসেম্বর পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যে একটি ম্যাচে ধোনির প্রথম সেঞ্চুরি দেখেই তিনি তাঁর ভক্ত হয়ে উঠেন। ধীরে ধীরে সেই টান আরও বাড়লে ধোনির সঙ্গে দেখা করার ইচ্ছে জেগে ওঠে মনে। এদিকে বাবা সেলুনে কাজ করেন। পারিবারিক অবস্থাও খুবই দুর্বল। তাই হিসার থেকে ঝাড়খণ্ড আসার খরচ যোগাতে পারেনি পরিবার। কিন্তু তাতে অজয়কে দমিয়ে রাখা যায়নি। মনস্থির করেন পায়ে হেঁটেই প্রিয় ক্রিকেটারের সঙ্গে দেখা করতে যাবেন তিনি। সেই মতো শুরু করেন যাত্রা। তবে আশা পূরণ হল না।

অবশ্য ধোনির সঙ্গে দেখা না হলেও হাল ছাড়তে একেবারেই নারাজ অজয়৷ চুলের স্টাইল থেকে টি-শার্ট, সবেতেই ধোনির নাম খোদাই করা তাঁর। এখন তিনি প্রস্তুতি নিচ্ছেন দ্বিতীয়বারের জন্য পায়ে হেঁটে ঝাড়খণ্ড যাওয়ার৷ অজয়ের ইচ্ছে, আগামী ১ নভেম্বর ফের পায়ে হেঁটে ঝাড়খণ্ডের দিকে যাত্রা শুরু করবেন তিনি। আর এবার মাহির সঙ্গে দেখা করে তাঁর আশীর্বাদ নিয়ে তবেই ফিরবেন। এ বিষয়ে তাঁর সাফ কথা, “এমএস ধোনি আমার ঈশ্বর, আমি তাঁর দর্শন চাই এবং এবার আমার দর্শন হবেই৷ তাঁর আশীর্বাদ নিয়েই ফিরব।”