ভবানীপুরে ৩৫ কোম্পানি, শেষমুহুর্তে আরও কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন হচ্ছে জঙ্গিপুর ও সামশেরগঞ্জে

ভবানীপুরে ৩৫ কোম্পানি, শেষমুহুর্তে আরও কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন হচ্ছে জঙ্গিপুর ও সামশেরগঞ্জে
ভবানীপুরে ৩৫ কোম্পানি, শেষমুহুর্তে আরও কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন হচ্ছে জঙ্গিপুর ও সামশেরগঞ্জে / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ ভোর হলেই ভবানীপুরে রয়েছে হাইভোল্টেজ উপনির্বাচন। নির্বাচন রয়েছে জঙ্গিপুর ও সামশেরগঞ্জেও। শেষমুহূর্তে আরও কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হচ্ছে তিন কেন্দ্রেই। ভবানীপুরের জন্য বরাদ্দ হয়েছে আরও ২০ কোম্পানি। আজ রাতেই এলাকায় পৌঁছে যাবে অতিরিক্ত বাহিনী। তেমনটাই জানা গিয়েছে নির্বাচন কমিশন সূত্রে।

এদিকে, উপনির্বাচনের কয়েক ঘণ্টা আগেই কমিশনে ফের বহিরাগত নালিশ জানাল বিজেপি। নির্বাচনী বিজ্ঞপ্তিতে আপত্তি জানিয়ে আগেই মামলা দায়ের করা হয়েছে কলকাতা হাইকোর্টে। সেই মামলার শুনানিতে নির্বাচন কমিশনকে জরিমানার নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট পাশাপাশি মুখ্যসচিবের ভূমিকা নিয়েও অসন্তোষ প্রকাশ করেছে আদালত। গতকালই আদালত শুনানিতে জানিয়ে দিয়েছে যে, নির্ধারিত দিনেই অর্থাৎ ৩০ সেপ্টেম্বর ভোট হবে। সেদিনই আবার মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুর ও সামশেরগঞ্জ কেন্দ্রে সাধারণ নির্বাচন রয়েছে।

তাই কোনও ভাবেই ঝুঁকি নিতে নারাজ নির্বাচন কমিশন। ভবানীপুর, জঙ্গিপুর ও সামশেরগঞ্জে ইতিমধ্যেই ৫২ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। যার মধ্যে ১৫ কোম্পানি থাকবে ভবানীপুরে। কমিশন সূত্রে খবর, বিরোধীদের দাবি মেনে মমতার বন্দ্যোপাধ্যায়ের কেন্দ্রে আরও ২০ কোম্পানি বাহিনী পাঠানো হচ্ছে। ফলে সবমিলিয়ে দাঁড়াল ৩৫ কোম্পানি। বাহিনী আরও বাড়ানো হচ্ছে মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুর ও সামশেরগঞ্জেও।

অন্যদিকে, ভবানীপুরে উপনির্বাচনের ২৪ ঘণ্টা আগে ফের কমিশনের দ্বারস্থ বিজেপি। জানা গিয়েছে, গেরুয়াশিবিরের অভিযোগ, ভোটের আগে এলাকায় প্রচুর বহিরাগতকে ঢোকানো হয়েছে। সূত্রের খবর, কোন কোন হোটেল ও গেস্ট হাউসে বাইরের লোকেদের রাখা হয়েছে, সেই তালিকাও কমিশনকে দিয়েছেন বিজেপি নেতারা। অবিলম্বে ওইসব হোটেল ও গেস্ট হাউসে তল্লাশির দাবি জানিয়েছেন তাঁরা। বৃহস্পতিবার ভোটের দিন সকাল থেকে হেস্টিংস অফিসে বিজেপিরা নেতারা অপেক্ষায় থাকবেন। বুথ দখল যদি ঠেকানো না যায়, তাহলে কমিশনে বিক্ষোভ দেখানো হবে বলেও জানা গিয়েছে।