কলকাতা

সময়ে আসেনি সিটি স্ক্যানের রিপোর্ট, প্রবীণের মৃত্যুর ঘটনায় বেসরকারি ল্যাবের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলল পরিবার

সিটি স্ক্যানের রিপোর্ট দেরিতে আসায় মৃত্যু হয়েছে প্রবীণের। এই অভিযোগে আজ এনআরএস হাসপাতালে চত্বরে থাকা এক বেসরকারি ল্যাবকে কাঠগড়ায় তুলেছেন রোগীর পরিবার।

সূত্রের খবর, বিপুল রানা নামে এক ব্যক্তি (৭৫) পেটের ব্যথা নিয়ে নীলরতন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে আসেন। এরপর এই হাসপাতালের অন্তর্গত সুরক্ষা ল্যাবরেটরি থেকে সিটি স্ক্যান করান তিনি। কিন্তু ওই রিপোর্ট আসতে ৩-৪ দিন দেরি হয়। এর মধ্যেই মৃত্যু হয় ওই বৃদ্ধের। এর পরেই ওই বেসরকারি ল্যাবরেটরির বিরুদ্ধে অভিযোগ আনেন মৃতের পরিবার।

জানা গিয়েছে, পিপিপি মডেলে এনআরএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সিটিস্ক্যানের দায়িত্ব পেয়েছে ওই বেসরকারি ল্যাবটি। পরিবারের অভিযোগ, সিটি স্ক্যানের রিপোর্ট আসতে দেরি হওয়ায় বৃদ্ধের চিকিৎসা সঠিক সময়ে শুরু করা যায়নি। যদিও সমস্ত অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছে ল্যাব কর্তৃপক্ষ। এই প্রসঙ্গে হাসপাতালে সুপার জানিয়েছেন, তিনি এ বিষয়ে কিছু জানেন না।

তবে শুধু মৃতের পরিবার নয়, হাসপাতালে আসা অন্যান্য রোগীর পরিবার ওই ল্যাবের বিরুদ্ধে একই অভিযোগ তুলেছেন। তাদের কথায়, ল্যাবটি রিপোর্ট দিতে দেরি করে। এমনকি অনেক সময় রোগী সুস্থ হয়ে গেলেও রিপোর্ট না আসায় তিনি বাড়ি যেতে পারছেন না, এমনও অভিযোগ উঠেছে বেসরকারি ল্যাবটির বিরুদ্ধে।

ল্যাবরোটারি কর্তৃপক্ষ অবশ্য এই গাফিলতির অভিযোগ নস্যাৎ করে দিয়েছেন। তাদের কথায়, করোনা পরিস্থিতিতে চিকিৎসকরা করোনা আক্রান্তদের নিয়ে ব্যস্ত। এছাড়া তাদের লাবেও কর্মীসংখ্যা কম। কিন্তু সরকারি হাসপাতালের সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় তাদের ওপর রোগীর চাপ বাড়ছে। কারণ এই রিপোর্ট দিতে দেরি হচ্ছে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.

Back to top button