শনিবার, ২৯ জানুয়ারি, ২০২২

সংসদে শোরগোলের মাঝেই পাশ কৃষি আইন প্রত্যাহার বিল! ফের স্থগিত অধিবেশন

০১:৩৩ পিএম, নভেম্বর ২৯, ২০২১

সংসদে শোরগোলের মাঝেই পাশ কৃষি আইন প্রত্যাহার বিল! ফের স্থগিত অধিবেশন

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ আজ থেকেই শুরু হল সংসদের শীতকালীন অধিবেশন। এই অধিবেশন চলবে ২৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত। এদিন সংসদের অধিবেশনের আগে সংসদ ভবনের ঐতিহ্য নিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বার্তা দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

এদিন সংসদ ভবনে প্রবেশের আগে, সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, ‘তর্কবিতর্ক, প্রশ্নোত্তর চলুক সংসদে। তবে তা যেন কখনও সংসদ ভবনের ঐতিহ্য ক্ষুণ্ণ না হয়, চেয়ার অমর্যাদা না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখা সকলের কর্তব্য।’ পাশাপাশি তিনি এও বলেন যে, সরকার সব বিষয়ে প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য প্রস্তুত। কিন্তু তারপরেও এদিন বিরোধীদের প্রতিবাদ স্লোগান, হইচই-এ দুপুর ১২ টা অবধি মুলতুবি হয়ে যায় সংসদের দুই কক্ষের অধিবেশন। এদিন সংসদ ভবনের গান্ধী মূর্তির পাদদেশে প্রতিবাদ বিক্ষোভে সামিল হন তৃণমূল সাংসদরা। বিরোধীদের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয় যে, কৃষকদের সুবিধা-অসুবিধা নিয়ে কোনওরকম আলোচনা চায় না মোদী সরকার। এরপর তৃণমূল ও কংগ্রেসের অনুপস্থিতিতেই ধ্বনিভোটে পাশ হয়ে গেল কৃষি আইন প্রত্যাহার বিল।

উল্লেখ্য, শীতকালীন অধিবেশনের প্রথম দিনে কৃষি আইন প্রত্যাহার বিল-সহ একাধিক বিল পেশ করার কথা ছিল কেন্দ্রের মোদী সরকারের পক্ষ থেকে। লোকসভায় বিলটি পাশ হওয়ার পর রাজ্যসভায় পেশ করতে চাইছিল কেন্দ্র। শুক্রবারই কৃষি আইন প্রত্যাহার বিলের নমুনা রাজ্যসভার সমস্ত সদস্যকে দেওয়া হয়েছিল। এছাড়াও এদিন ক্রিপ্টো কারেন্সি, SC-ST সংশোধনী বিল পেশ করবে কেন্দ্র। সেই মতোই বিরোধীদের উপস্থিতিতে কৃষি আইন প্রত্যাহার বিল পেশ করা হয়। তখনই বিরোধীরা দেশের কৃষকদের সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা চায়। অভিযোগ জানানো হয় বিরোধীদের তরফে, আলোচনায় রাজি ছিল না সরকার পক্ষ। তারা দ্রুত বিল পাশ করাতে তৎপর ছিলেন। এরপরই বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন বিরোধীরা।

অধিবেশন শুরু হওয়ার আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, সরকার সবরকম আলচনার জন্য এবং সব প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য রাজি। তিনি আর্জি জানান সংসদে প্রশ্নত্তর এবং শান্তি দুই যেন বজায় থাকে। মোদী আরও জানান, এটি সংসদের একটি গুরুত্বপূর্ণ অধিবেশন। দেশের নাগরিকরা একটি ফলপ্রসূ অধিবেশন চায়। উজ্জ্বল ভবিষ্যতের জন্য তাঁরা তাঁদের দায়িত্ব পালন করছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি। সংসদের সম্মান এবং শান্তি বজায় রখার জন্য আবেদন জানান মোদী। কিন্তু এদিন শুরুর দিনেই ঠিক উল্টো চিত্রটাই ধরা পড়ল।

বিরোধীদের কোথায় প্রধানমন্ত্রী যে কোনও বিষয়েই আলোচনা থেকে পালিয়ে যান। এরপরেই কৃষক পরিস্থিতি, পেগাসাস-সহ বিভিন্ন বিষয়ে প্রশ্ন তুলে অধিবেশন কক্ষে হই-হট্টগোল শুরু করেন বিরোধীরা। তখনই বেলা বারোটা পর্যন্ত সংসদের দুই কক্ষের অধিবেশন মুলতুবি করা হয়।

https://twitter.com/derekobrienmp/status/1465190641265225737

অন্যদিকে, এই প্রসঙ্গে এই বিষয়ে তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ ব্রায়েন টুইট করে কটাক্ষ করেছেন মোদীকে। ডেরেকের বক্তব্য, ‘আপনিই আলোচনা থেকে সরে থাকেন। সমস্যা হল, আপনার মন্ত্রীদের মধ্যে কেউ আপনাকে বোঝাতে পারেননি যে সংসদ ভবন মন কি বাতের জায়গা নয়। ’