দেশে ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৫! এবার নতুন আক্রান্তের হদিশ মিলল এই রাজ্যে

দেশে ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৫! এবার নতুন আক্রান্তের হদিশ মিলল এই রাজ্যে
দেশে ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৫! এবার নতুন আক্রান্তের হদিশ মিলল এই রাজ্যে / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ দেশে ক্রমশ বাড়ছে করোনার নয়া প্রজাতি ওমিক্রন-এর আক্রান্তের সংখ্যা। এখনও পর্যন্ত দেশে ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৫ জন। এবার ওমিক্রন থাবা বসাল রাজধানী দিল্লিতে।

জানা গিয়েছে, ওই ব্যক্তি সম্প্রতি তানজানিয়া থেকে দিল্লিতে ফিরেছেন। তাঁর দেহেই ওমিক্রন-এর খোঁজ মিলেছে। এই মুহূর্তে ওই ব্যক্তি ভর্তি রয়েছেন লোকনায়ক জয়প্রকাশ নারায়ণ হাসপাতালে। পাশাপাশি মনে করা হচ্ছে, আরও কয়েকজন এই প্রজাতিতে আক্রান্ত হয়ে থাকতে পারেন। সেই কারণে মোট ১৬ জনকে বিশেষ নজরদারিতে রাখা হচ্ছে। রবিবারই এই খবর জানিয়েছেন দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন।

দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন জানিয়েছেন, ‘এখনও পর্যন্ত জয়প্রকাশ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন মোট ১৭ জন করোনা আক্রান্ত, এদের মধ্যে ১২ জনের জিনোম সিকোয়েন্সিং করা সম্ভব হয়েছে। এঁদের মধ্যে এক জনের শরীরে ওমিক্রন প্রজাতির সংক্রমণ ধরা পড়েছে। আমার মনে হয় কেন্দ্রীয় সরকারের বিমান পরিষেবার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত। করোনা আক্রান্ত দেশগুলির সঙ্গে বিমান যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ করা উচিত।’

এই নিয়ে এখনও পর্যন্ত মোট ৪ রাজ্যে ওমিক্রন আক্রান্তের হদিশ মিলল। এর আগে ওমিক্রন আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে, কর্ণাটক, গুজরাট এবং মহারাষ্ট্রে। উল্লেখ্য, প্রথামিকভাবে দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে কেপটাউন থেকে দুবাই হয়ে মহারাষ্ট্রে ফিরেছিলেন এক ব্যক্তি। শনিবার তাঁর শরীরে করোনার ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ ধরা পড়ে। তার আগে কর্ণাটকের বেঙ্গালুরুতে দু’জন আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া যায়, আক্রান্তের সন্ধান মেলে গুজরাতেও। গুজরাতের জামনগরের বাসিন্দা ফিরেছিলেন জিম্বাবোয়ে থেকে, তাঁর শরীরে ওমিক্রনের সন্ধান পান চিকিৎসকরা। সেই নিয়ে আতঙ্ক তৈরি হয় মানুষের মধ্যে। কিন্তু প্রথম সংক্রমণ পাওয়ার পর কিছুটা ব্যবধান থাকলেও শেষ দুদিনে তিন রাজ্য থেকে ক্রমাগত একে পর এক সংক্রমণের খবর এসেছে, যা ক্রমশ চিন্তা বাড়াচ্ছে প্রশাসনের।

অন্যদিকে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা ‘হু’ আগেই ঘোষণা করেছিল যে, ওমিক্রন নিয়ে যথেষ্ট চিন্তার কারণ রয়েছে। শুক্রবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছিল, এখনও পর্যন্ত সারা পৃথিবীতেই ওমিক্রন আক্রান্ত কোনও রোগীর মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি। তবে, ‘হু’ এর আশঙ্কা ইউরোপের অর্ধেক করোনা আক্রান্তের শরীরের ছড়িয়ে পড়তে পারে করোনার এই নয়া প্রজাতির ভাইরাস ওমিক্রন। পাশাপাশি সতর্ক করে এও বলা হয়েছে যে, এই প্রজাতির কারণে কী কী নতুন ধরনের উপসর্গ দেখা যেতে পারে, কতটা কাজ করছে টিকা, এসব গবেষণালব্ধ তথ্য পেতে আরও কিছুদিন সময় লাগবে, সেক্ষেত্রে লড়াইয়ের প্রথম ধাপে সতর্ক থাকতে হবে।