এপ্রিল থেকে ২০% দাম বাড়তে পারে ওষুধের! তালিকায় কী কী থাকার সম্ভাবনা?

এপ্রিল থেকে ২০% দাম বাড়তে পারে ওষুধের! তালিকায় কী কী থাকার সম্ভাবনা? / নিজস্ব ছবি
এপ্রিল থেকে ২০% দাম বাড়তে পারে ওষুধের! তালিকায় কী কী থাকার সম্ভাবনা? / প্রতীকী ছবি (নিজস্ব)

দেশ জুড়ে ইতিমধ্যেই বেড়েছে পেট্রোল-ডিজেল এবং রান্নার গ্যাসের দাম। এবার মূল্যবৃদ্ধির কোপ পড়ল ওষুধের ওপরও। দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে ওষুধের কাঁচামালের দাম। এই কারণে ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলি কেন্দ্রের কাছে অত্যাবশ্যকীয় ওষুধের দাম বৃদ্ধির দাবি তুলেছিল। গত শুক্রবার, জাতীয় ফার্মাসিউটিক্যাল প্রাইসিং কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ওষুধ প্রস্তুতকারীদের পাইকারি মূল্য সূচকে (Wholesale Price Index) ০.৫ % হারে বাড়ানোর অনুমতি দিয়েছে সরকার। এছাড়াও, এপ্রিল থেকে ২০% বাড়তে পারে বিভিন্ন ওষুধের দাম।

দাম বৃদ্ধির এই তালিকায় সেসব ওষুধ রয়েছে, সেগুলির সবই নিয়মিত ব্যবহার করে থাকেন আমজনতারা। সেগুলির মধ্যে রয়েছে, পেইনকিলার, অ্যান্টিনোফ্ল্যাটিভ, কার্ডিয়াক এবং অ্যান্টিবায়োটিক সহ প্রয়োজনীয় সব ওষুধ। ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলির তরফ থেকে দাবি করা হয়েছে, যেভাবে কাঁচামালের দাম বেড়ে চলেছে, তার ফলেই ২০ শতাংশ দাম বাড়ছে ওষুধের। বিশেষ করে প্যারাসিটামল জাতীয় ওষুধের কাঁচামালের দাম সবচেয়ে বৃদ্ধি পেয়েছে।

এপ্রিল থেকে ২০% দাম বাড়তে পারে ওষুধের! তালিকায় কী কী থাকার সম্ভাবনা? / নিজস্ব ছবি
এপ্রিল থেকে ২০% দাম বাড়তে পারে ওষুধের! তালিকায় কী কী থাকার সম্ভাবনা? / প্রতীকী ছবি (নিজস্ব)

প্রসঙ্গত, গত বছর করোনা মহামারীর কারণে ওষুধের আমদানিতে বেশ প্রভাব পড়েছে। কার্ডিও ভাস্কুলার, ডায়াবেটিস, অ্যান্টিবায়োটিক, অ্যান্টি-ইনফেকটিভ এবং ভিটামিন তৈরির বেশিরভাগ উপাদানগুলির জন্য আমাদের চিনের ওপর নির্ভরশীল থাকতে হয়৷ কিন্তু গত বছরের শুরুতে চিনে করোনার প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় কাঁচামাল আমদানিতে সমস্যার সৃষ্টি হয়। সেই কারণেই ভারতীয় ওষুধ আমদানিকারকদের খরচ বেড়ে গিয়েছে দাবি করা হয়েছে।

অন্যদিকে, দেশজুড়ে লাগামছাড়া ভাবে বাড়ছে পেট্রোপণ্য এবং অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম। এর মধ্যেই ‘মরার ওপর খাঁড়ার ঘা’-এর মতো কোপ পড়ছে ওষুধেও৷ ফলে মাথায় হাত পড়েছে আমজনতার।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.