দিলীপকে যোগ্য জবাব, পদযাত্রা থামিয়ে অ্যাম্বুল্যান্স যাওয়ার রাস্তা করলেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী

Image source: Google

বিশেষ প্রতিবেদনঃ সভা চলাকালীন অ্যাম্বুল্যান্সকে ঘুরিয়ে দেওয়ার ঘটনার পরেই বিতর্কের মুখে পড়েছিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এখনও সেই বিতর্কের রেশ কাটেনি। তারই মধ্যে এবার পদসভা থামিয়ে দিয়ে অ্যাম্বুল্যেন্স যাওয়ার রাস্তা করে দিয়ে দিলীপ ঘোষের অমানবিক আচরনের যোগ্য জবাব দিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়।

আজ বৃহস্পতিবার মধ্যমগ্রাম থেকে বারাসাত পর্যন্ত সিএএ-এর বিরোধিতায় পদযাত্রা করেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিনের এই পদযাত্রায় মমতা বন্দোপাধ্যায় ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মমতাবালা ঠাকুর, সুজিত বসু সহ আরও অনেকেই। এদিন পদযাত্রার মাঝেই হঠাৎ করে ঢুকে পড়ে একটি অ্যাম্বুল্যান্স। তখনই মিছিল থেমিয়ে দিয়ে নিজেই সেই অ্যাম্বুল্যাসটিকে যাওয়ার রাস্তা করে দেন মুখ্যমন্ত্রী। এই ঘটনার পরে ফের দলনেত্রীর প্রশংসায় মুখর হন তৃণমূল নেতৃত্বরা। তাঁদের কথায়, মমতা বন্দোপাধ্যায় জনতার মাঝে থেকে কাজ করেন তাই তিনি জননেত্রী।

প্রসঙ্গত, দিন দুই আগে নদীয়ার কৃষ্ণনগরে জেলা শাসকের অফিসের বাইরে সভা করেন দিলীপ ঘোষ। প্রায় ২৫ হাজার লোক ছিল সেই সভায়। সভা চলতে চলতে একটি অ্যাম্বুল্যান্স হঠাৎ করে ঢুকে পড়ায় বিরক্তি প্রকাশ করে তা ঘুরিয়ে নেওয়ার হুশিয়ারি দেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি। তার দাবি, অ্যাম্বুল্যান্সের ভেতরে কোন রোগী ছিলনা, সভা যাতে পণ্ড হয় তাই ইচ্ছে করেই কেউ অ্যাম্বুল্যান্স ঢুকিয়ে দিয়েছে। এমনকি এই কাজের জন্য তৃনমূলকেই আক্রমণ করে দিলীপবাবু। তিনি আরও বলেন, “আমরা জানি পশ্চিমবঙ্গের অ্যাম্বুল্যান্সে গাঁজা ও সোনা পাচার হয়।“ তবে পুলিশ তদন্ত করে জানতে পারে ওই অ্যাম্বুল্যান্সে একজন প্রসূতি ছিলেন। এরপরেই দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের হয়।

আরও পড়ুনঃ  মোদি সরকারের বিরুদ্ধে চিদম্বরমের সাথে আতঙ্কবাদীর মত ব্যবহার করার অভিযোগ এনে ফের শিরোনামে অধীর চৌধুরী

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.