দেশে সদ্যোজাত থেকে ১৯ বছর বয়সীদের মধ্যে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ! চিন্তা বাড়াল WHO

দেশে সদ্যোজাত থেকে ১৯ বছর বয়সীদের মধ্যে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ! চিন্তা বাড়াল WHO / প্রতীকী ছবি
দেশে সদ্যোজাত থেকে ১৯ বছর বয়সীদের মধ্যে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ! চিন্তা বাড়াল WHO / প্রতীকী ছবি

কোভিড ভ্যাকসিনের দু’টি ডােজ নেওয়ার পরেও রক্ষে নেই। ভারতে করোনা টিকার দুটো ডোজ নেওয়ার পরও ডেল্টা ভ্যারিয়ান্টে আক্রান্ত হচ্ছেন বহু মানুষ। একই সঙ্গে দেশে সদ্যোজাত থেকে ১৯ বছর বয়সীদের মধ্যে করোনার সংক্রমণ বাড়ছে। শুক্রবারই এ কথা জানিয়ে দিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)। তবে একই সঙ্গে হু জানিয়েছে, গত অগাস্ট থেকে বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃত্যুর হার তুলনামূলকভাবে কমছে। ভারতেও মৃত্যুর হার কম।

শুক্রবার হু-এর কোভিড ১৯ এপিডেমােলজিক্যাল আপডেট থেকে জানা গিয়েছে, ভারতে ৯৫০০ কোভিড রােগীর জিনােম সিকোয়েনসিং করা হয়েছিল। সেই গবেষণাতেই দেখা গিয়েছে, দেশে সদ্যোজাত থেকে ১৯ বছর বয়সীদের মধ্যে কোভিড সংক্রমণ বাড়ছে। মহিলাদের মধ্যেও সংক্রমণের হার বেশি। তুলনামূলকভাবে মাঝবয়সীরা কম আক্রান্ত হচ্ছেন। একইসঙ্গে ওই আপডেটে জানানো হয়েছে, করোনা টিকার দুটি ডোজ নেওয়ার পরও অনেকেই ডেল্টা ভ্যারিয়ান্টে আক্রান্ত হচ্ছেন। তাই হু-এর তরফে সতর্কতা দেওয়া হয়েছে।

হু জানিয়েছে, বিশ্বজুড়ে গত সপ্তাহের তুলনায় চলতি সপ্তাহে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা ৯ শতাংশ কম। তবে মৃত্যুহার একই রয়েছে। গত এক সপ্তাহে যে দেশগুলিতে সবচেয়ে বেশি কোভিড সংক্রমণের হার বেড়েছে, তার মধ্যে শীর্ষে রয়েছে আমেরিকা। তবে মৃত্যুর হার বিশেষ বাড়েনি। ইউরােপ বাদে গোটা বিশ্বে মৃত্যুহার একই রয়েছে। হু’র তথ্য অনুযায়ী, অতিমারী শুরু হওয়ার পর থেকে এখনও পর্যন্ত বিশ্ব জুড়ে কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন ২ কোটি ৩৪ লক্ষ মানুষ। মারা গিয়েছেন প্রায় ৪৮ লক্ষ জন।

ভারতে চলতি সপ্তাহে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লক্ষ ৬১ হাজার ১৫৮ জন। সংক্রমণের হার ২১ শতাংশ কমেছে। এদিকে, শুক্রবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী, ভারতে ২১,২৫৭ টি নতুন কোভিড কেস ধরা পড়েছে এবং ২১১ জন মারা গিয়েছেন।