চলতি আইপিএলে প্লেয়ারদের হল বিপুল অর্থ লাভ, তালিকায় নেই ধোনি

চলতি আইপিএলে প্লেয়ারদের হল বিপুল অর্থ লাভ, তালিকায় নেই ধোনি
চলতি আইপিএলে প্লেয়ারদের হল বিপুল অর্থ লাভ, তালিকায় নেই ধোনি

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ চলতি বছর আইপিএলে একাধিক ক্রিকেটার ও দল দুর্ধর্ষ পারফর্মেন্স করেছেন এবং নিজেদের সেরাটা দিয়েছেন। আর সেই কারণে প্রতি বছরই আইপিএল ফাইনালের শেষে বিশেষ কিছু বিভাগে বেশ কিছু খেলোয়াড়কে পুরষ্কৃত করা হয়। এবং পুরষ্কারের মধ্যে থাকে বিপুল অর্থ। এই বছর করোনা অতিমারি চললেও আর্থিক দিক থেকে লাভবান হয়েছে বিসিসিআই। আর সেই কারণে আর্থিক মূল্য নিয়ে কোনও কৃপণতা করা হয়নি।

পাঁচ বারের জন্য আইপিএল এর খেতাব জিতল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। এবারে আইপিএল জয়ী মুম্বই ইন্ডিয়ান্স পেয়েছে ২০ কোটি টাকা । ফাইনালে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের কাছে পর্যদুস্ত হয় প্রথম বার আইপিএল ফাইনালে ওঠা দিল্লি ক্যাপিটালস। তারা পেয়েছে ১২.৫ কোটি টাকা ।

প্লে অফসের এলিমিনেটরে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের কাছে হেরে যায় রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর। অন্যদিকে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে উঠেও দিল্লি ক্যাপিটালসের কাছে হারে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। তাই তৃতীয় ও চতুর্থ স্থানাধিকারী – সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ ও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর পেয়েছে৮.৭৫ কোটি টাকা।

এবারে আইপিএল এর ইমার্জিং খেলোয়াড় অর্থাৎ সেরা উঠতি খেলোয়াড়ের খেতাব পেয়েছেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের তরুণ ওপেনার দেবদত্ত পাডিক্কাল। নিজের প্রথম আইপিএল খেলতে এসেই পাঁচটি অর্ধশতরান সহ ৪৫০ এর বেশি রান করেছেন পাডিক্কাল। সে পেয়েছে ১০ লক্ষ টাকা।

এবারের আইপিএল এ সবথেকে বেশি উইকেট নিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার এই তারকা পেসার। ১৭ ম্যাচে ৩০টি উইকেট নিয়েছেন তিনি। তাই পার্পল ক্যাপ – কাগিসো রাবাডা – ১০ লক্ষ টাকা পেয়েছেন। পাওয়ার প্লেয়ার অফ দ্য সিজন – ট্রেন্ট বোল্ট পেয়েছেন ১০ লক্ষ টাকা । এবারের আইপিএল এ পাওয়ার প্লেতে সবথেকে দুর্দান্ত পারফর্ম করেছেন নিউজিল্যান্ডের এই তারকা পেসার। গোটা টুর্নামেন্টে প্রথম ছয় ওভারের ফেজে ২০টি উইকেট নিয়েছেন মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের এই তারকা বাঁ হাতি পেসার।

এবারের আইপিএল এ দুর্ধর্ষ খেলেছেন কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের অধিনায়ক। একাধিক সময়ে কার্যত একা হাতেই তিনি ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছেন পাঞ্জাবের জন্য। এদিকে ৬৭০ রান করে এবারের আইপিএল এর সবথেকে বেশি রান করেছেন রাহুল। গেমচেঞ্জার অফ দ্য সিজন ও পার্পল ক্যাপের জন্য কে এল রাহুল – ১০ লক্ষ টাকা করে মোট ২০ লক্ষ তাকা পেয়ছেন।

এবারের আইপিএল এ সবথেকে বেশি স্ট্রাইক রেট থাকার দরুণ এই পুরষ্কার পেয়েছেন মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের এই ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার। ১৯০ এর বেশি স্ট্রাইক রেটে তিনি ব্যাট করেছেন। সুপার স্ট্রাইকার অফ দ্য সিজন – কাইরন পোলার্ড পেয়েছেন ১০ লক্ষ টাকা

এবারের আইপিএল এ সবথেকে বেশি ছয় মেরেছেন মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের ঈশান কিষান। প্রথম দুই ম্যাচ না খেললেও পরের দিকের ম্যাচ খেলে মোট ৩০টি ছয় মেরেছেন ঝাড়খন্ডের এই প্রতিভাবান উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান। তাই সে পেয়ছে ১০ লক্ষ টাকা।

এবারের আইপিএল দর্শক শূন্য মাঠে আয়োজিত হলেও ক্রিকেটের মজা এতটুকুও কমেনি। মরুশহরের উত্তাপ আরও বেড়ে গিয়েছিল ক্রিকেটের এই রোমাঞ্চকর মুহুর্তে। এবারের আইপিএল এ সাসপেন্স ও থ্রিলারের অভাব এতটুকুও হয়নি। এমন খুব কম ম্যাচ হয়েছে, যা আকর্ষণীয় ছিল না। আর গ্রুপ পর্যায়ে একেবারে শেষ দিন অবধি লড়াই চলেছে প্লে অফসে ওঠার। ফলে রোমাঞ্চকতার অভাব একেবারেই ছিল না।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.