ফের অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্ব অ্যাথলেটিক্সে ভারতের দাপট! দেশের হয়ে রেসওয়াকে রুপো জিতলেন অমিত খাতরি

ফের অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্ব অ্যাথলেটিক্সে ভারতের দাপট! দেশের হয়ে রেসওয়াকে রুপো জিতলেন অমিত খাতরি
ফের অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্ব অ্যাথলেটিক্সে ভারতের দাপট! দেশের হয়ে রেসওয়াকে রুপো জিতলেন অমিত খাতরি

অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্ব অ্যাথলেটিক্সে ফের ভারতের দাপট! দু’দিন আগেই ৪x৪০০ মিটার মিক্সড রিলেতে ব্রোঞ্জ জিতে দেশের মুখ উজ্জ্বল করেছিলেন ভরত শ্রীধর, প্রিয়া মোহন, সামি ও কপিলরা। এবার রুপোর জিতে দেশবাসীকে ফের গর্বিত করলেন অমিত খাতরি। শনিবার টুর্নামেন্টের ১০ হাজার রেস ওয়াকে এই পদক জিতলেন তিনি। এ বছর অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্ব অ্যাথলেটিক্সে এটি ভারতের দ্বিতীয় পদক৷

এবছর অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্ব অ্যাথলেটিক্সের আসর বসেছে নাইরোবিতে। সেখানেই আজ ছিল রেসওয়াকের প্রতিযোগিতা। এক ল্যাপ বাকি থাকতে থাকতে এগিয়েই ছিলে অমিত। তখনই তাঁকে ঘিরে সোনার স্বপ্ন দেখতে থাকে দেশবাসী। কিন্তু তিনি ড্রিঙ্কস ব্রেকের পর কেনিয়ার হেরিস্টোন ওয়ানইয়োনি এগিয়ে যান। শেষ পর্যন্ত তিনি জেতেন সোনা। এদিকে ৪২ মিনিট ১৭.৯৪ সেকেন্ডে রেস শেষ করে সোনা জিতেই সন্তুষ্ট থাকতে হয় অমিতকে। তৃতীয় হয়েছেন স্পেনের পল ম্যাকগ্রা। রেস শেষ করতে তাঁর সময় লেগেছে ৪২.২৬.১১ মিনিট।

বিশ্ব অ্যাথলেটিক্সের মতো আন্তজার্তিক মঞ্চে এই প্রথম পদক জয় অমিতের। স্বাভাবিকভাবেই তাই তিনি খুব খুশি। রুপো জেতার পর তিনি বলেন, “উচ্চতার কারণে আমার নিঃশ্বাস নিতে একটু সমস্যা হচ্ছিল। তবে দেশের হয়ে এই প্রথম কোনও আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় রুপো জিতলাম। আমি খুব খুশি যে রুপো জিতে দেশের আশা পূরণ করতে পারলাম।” এএফআই’য়ের তরফ থেকে তরুন এই অ্যাথলিটকে শুভেচ্ছাও জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, অতীতে এই প্রতিযোগিতায় ব্যক্তিগত ভাবে সীমা অন্তিল ২০০২ সালে ডিসকাসে ব্রোঞ্জ, নভজিত কৌর ধিলন ২০১৪ সালে ডিসকাসে ব্রোঞ্জ, নীরজ চোপড়া ২০১৪ সালে জ্যাভেলিনে সোনা ও হিমা দাস ২০১৮ সালে ৪০০ মিটারে সোনা জিতে দেশবাসীকে গর্বিত করেছিলেন। এবার অমিতের সাফল্যেও বিশ্ব দরবারে ফের উজ্জ্বল ভারতের মুখ।