শনিবার, ২৮ জানুয়ারি, ২০২৩

অবশেষে লখিমপুর খেরি কাণ্ডে ৮ সপ্তাহের জামিন আশিস মিশ্রের! থাকতে পারবেন না দিল্লি, উত্তরপ্রদেশে

আত্রেয়ী সেন

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৫, ২০২৩, ০১:১৯ পিএম | আপডেট: জানুয়ারি ২৫, ২০২৩, ০১:১৯ পিএম

অবশেষে লখিমপুর খেরি কাণ্ডে ৮ সপ্তাহের জামিন আশিস মিশ্রের! থাকতে পারবেন না দিল্লি, উত্তরপ্রদেশে
অবশেষে লখিমপুর খেরি কাণ্ডে ৮ সপ্তাহের জামিন আশিস মিশ্রের! থাকতে পারবেন না দিল্লি, উত্তরপ্রদেশে

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ শেষপর্যন্ত জামিন পেলেন লখিমপুর খেরি কাণ্ডে অন্যতম মূল অভিযুক্ত আশিস মিশ্র। তবে, তিনি জামিন পেয়েছেন বেশ কিছু শর্তের বিনিময়ে। ২০২১ সালে উত্তরপ্রদেশের লখিমপুর খেরিতে কৃষক মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছিল। ওই কাণ্ডে কয়েকজন কৃষককে গাড়িতে পিষে মারার অভিযোগ রয়েছে আশিসের বিরুদ্ধে। আশিস মিশ্র আবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অজয় মিশ্র টেনির ছেলে। 

সুপ্রিম কোর্ট আশিসকে ৮ সপ্তাহের জন্য জামিন দিয়েছে। এর পাশাপাশি তাঁকে শর্ত দেওয়া হয়েছে যে, তিনি জামিনে থাকাকালীন উত্তরপ্রদেশ অথবা দিল্লি এবং তার আশেপাশে কোথাও থাকতে পারবেন না। তাঁকে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যেই রাজধানী দিল্লি ছাড়তে হবে। শীর্ষ আদালত জানিয়েছে যে, মিশ্র পরিবারের কেউ সাক্ষীদের উপরে প্রভাব খাটানোর চেষ্টা করলে সেই মুহূর্তেই মন্ত্রীপুত্রের জামিন খারিজ হয়ে যাবে। 

নিহত কৃষকদের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয় যে, প্রত্যক্ষদর্শীদের উপরে চাপ সৃষ্টি করছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অজয় মিশ্র। এদিকে, গত সপ্তাহেই শীর্ষ আদালতের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল যে, অনির্দিষ্টকাল পর্যন্ত কাউকে জেলবন্দি করে রাখা যায় না, যদি তার বিরুদ্ধে দোষ প্রমাণিত না হয়। অন্যদিকে, আশিস মিশ্রের আইনজাবী মুকুল রোহতগী সুপ্রিম কোর্টে জানান, তাঁর মক্কেল এক বছরেরও বেশি সময় ধরে জেলবন্দি রয়েছেন। যেভাবে মামলার গতি এগোচ্ছে, তাতে আরও সাত-আট বছর সময় লেগে যেতে পারে। তবে, আইনজীবী দুশ্যন্ত দাভে মন্ত্রীপুত্রের জামিনের বিরোধিতা করে বলেন, ‘এতে সমাজে ভুল বার্তা দেওয়া হবে।’ তবে, অবশেষে আশিস মিশ্র জামিন পান।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০২১ সালে ৩ বিতর্কিত কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে উত্তাল হয়ে উঠেছিল দিল্লি এবং দিল্লি লাগোয়া উত্তরপ্রদেশ। ওই বছরেই ৩ অক্টোবর যোগী রাজ্য উত্তরপ্রদেশের লখিমপুর খেরিতে কৃষকদের জমায়েতে আশিসের গাড়ির ধাক্কায় মৃত্যু হয় চারজনের। মন্ত্রীপুত্রের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ ওঠে। এরপর চাপের মুখে পড়ে সুপ্রিম কোর্টে আত্মসমর্পণ করেন আশিস। তার আগে অবশ্য এলাহাবাদ হাইকোর্ট নির্দেশ দিয়েছিল আশিসের জামিনের। কিন্তু শীর্ষ আদালত সেই সময়কার মতো খারিজ করে দেয় হাইকোর্টের নির্দেশ। তার পাশাপাশি এক সপ্তাহের মধ্যে আত্মসমর্পণ করার নির্দেশ দেয় আশিস মিশ্রকে। অবশ্য এক সপ্তাহের আগেই আদালতে আত্মসমর্পণ করেন মন্ত্রীপুত্র।