ঋষভ পন্থ করলেন এই কাজ, অল্পের জন্য ভয়ঙ্কর দুর্ঘটনা থেকে বাঁচলেন কার্তিক! রইল ভাইরাল ভিডিও

ঋষভ পন্থ করলেন এই কাজ, অল্পের জন্য ভয়ঙ্কর দুর্ঘটনা থেকে বাঁচলেন কার্তিক! রইল ভাইরাল ভিডিও
ঋষভ পন্থ করলেন এই কাজ, অল্পের জন্য ভয়ঙ্কর দুর্ঘটনা থেকে বাঁচলেন কার্তিক! রইল ভাইরাল ভিডিও

গতকাল আইপিএলে দিল্লি ক্যাপিটালসের মুখোমুখি হয়েছিল কলকাতা নাইট রাইডার্স। প্লে অফের লড়াইয়ে টিকে থাকতে হলে ঋষভ পন্থের দিল্লির বিরুদ্ধে জিততেই হত অইন মর্গ্যানের কলকাতাকে। সেটাই করে দেখাল শাহরুখের দল। বোলিং এবং ব্যাটিংয়ে দুরন্ত পারফরম্যান্সের জেরে দিল্লিকে ৩ উইকেটে হারিয়ে প্লে অফের আশা জিইয়ে রাখল কলকাতা। কালকের ম্যাচ ছিল লো স্কোরিং। তবু মাঠে উত্তেজনার কমতি ছিল না। বিশেষ করে কাল ম্যাচে এমন এক কাণ্ড ঘটল, যার জেরে আরেকটু হলেই গুরুতর আহত হয়ে যেতে পারতেন কেকেআরের প্রাক্তন অধিনায়ক তথা উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান দীনেশ কার্তিক। অল্পের জন্য ভয়ঙ্কর দুর্ঘটনার হাত থেকে বাঁচলেন তিনি। যে ঘটনাএ ভিডিও এখন রীতিমতো ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়।

ঠিক কী ঘটেছিল গতকালের ম্যাচে? এদিন দুবাইয়ের শারজা স্টেডিয়ামে টসে জিতে দিল্লিকে ব্যাট করে পাঠিয়েছিলেন কেকেআর ক্যাপ্টেন অইন মর্গ্যান। দিল্লির ব্যাটিং চলাকালীন ১৭ তম ওভারে বল করতে আসেন নাইটদের মিস্ট্রি স্পিনার বরুণ চক্রবর্তী। ক্রিজে তখন ব্যাট করছেন দিল্লির ক্যাপ্টেন ঋষভ পন্থ। বরুণের প্রথম বলেই কভার ড্রাইভে বড় শট নিতে যান পন্থ। কিন্তু খারাপ বাউন্সের কারণে বল তার ব্যাটের তলায় লেগে স্টাম্পের দিকে চলে যায়। তা দেখে স্টাম্পের কাছে থেকে বলকে সরাতে গিয়ে অদ্ভুত ভাবে নিজের ব্যাটটিকে ঘোরান পন্থ।

ঋষভ পন্থ করলেন এই কাজ, অল্পের জন্য ভয়ঙ্কর দুর্ঘটনা থেকে বাঁচলেন কার্তিক! রইল ভাইরাল ভিডিও
ঋষভ পন্থ করলেন এই কাজ, অল্পের জন্য ভয়ঙ্কর দুর্ঘটনা থেকে বাঁচলেন কার্তিক! রইল ভাইরাল ভিডিও

ঠিক সেই সময় ব্যাটটি কার্তিকের মুখের খুব কাছে চলে আসে৷ তাঁর হেলমেটে হাল্কা আঘাতও করে। তা দেখে মুহূর্তের রিফ্লেক্সে লাফিয়ে সরে যান কার্তিক। ওভাবে সরে না এলে ব্যাটটা তাঁর মুখেই এসে লাগতে পারত। গুরুতর আহত হতে পারতেন কার্তিক। একটুর জন্য বরাত জোরে রক্ষা পেলেন তিনি। এ যাত্রায় তাই তেমন কোনও আঘাত লাগেনি তাঁর। এই ঘটনা দেখে চমকে উঠেছিলেন বরুণ চক্রবর্তীও। তবে পন্থ সঙ্গে সঙ্গে কার্তিকের কাছে ক্ষমা চেয়ে নেন। দু’জনেই এরপর তা নিয়ে হাসাহাসিও শুরু করেন। বিষয়টি নিয়ে তাই পরে তেমন কোনও জলঘোলা হয়নি।