কেন একতরফা সিদ্ধান্ত? টি-২০ নেতৃত্ব ছাড়া নিয়ে কোহলির সমালোচনায় প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক

কেন একতরফা সিদ্ধান্ত? টি-২০ নেতৃত্ব ছাড়া নিয়ে কোহলির সমালোচনায় প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক
কেন একতরফা সিদ্ধান্ত? টি-২০ নেতৃত্ব ছাড়া নিয়ে কোহলির সমালোচনায় প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক

টি-২০ ক্রিকেটের অধিনায়কের পদ ছাড়তে চলেছেন বিরাট কোহলি। গত বৃহস্পতিবারই সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করে তিনি জানালেন, আসন্ন কুড়ি ওভারের বিশ্বকাপের পরই টি-২০ ক্যাপ্টেন্সি ছাড়বেন তিনি। ভারতের হয়ে তাঁকে আর টি-২০ ক্রিকেটে অধিনায়কত্ব করতে দেখা যাবে না। অধিনায়ক হিসেবে বাড়তি চাপ থেকে মুক্তি পেতেই তাঁর এই সিদ্ধান্ত বলে জানা গিয়েছে। তবে বিরাটের এই সিদ্ধান্তে কার্যত হতবাক ক্রিকেট কিংবদন্তি কপিল দেব। তাঁর মতে, একতরফা এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া মোটেও উচিত হয়নি কোহলির।

কেন একতরফা সিদ্ধান্ত? টি-২০ নেতৃত্ব ছাড়া নিয়ে কোহলির সমালোচনায় প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক
কেন একতরফা সিদ্ধান্ত? টি-২০ নেতৃত্ব ছাড়া নিয়ে কোহলির সমালোচনায় প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক

সম্প্রতি একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কপিল দেব জানিয়েছেন, “কোহলি যে এমন করবে, তা ভাবতে পারিনি। এটা ভেবেই অদ্ভুত লাগছে যে এখন ক্রিকেটাররাই সিদ্ধান্ত নিচ্ছে কোনটা করবে, কোনটা করবে না৷ এমন বড় সিদ্ধান্ত নির্বাচক অথবা বোর্ডেরই নেওয়া উচিত। নির্বাচকদের এই বিষয়ে মতামত থাকা গুরুত্বপূর্ণ। তাছাড়া বিরাট দারুণ খেলোয়াড়। একটা মরশুম খারাপ যেতেই পারে। তাতে এটা বদলাবে না যে কোহলি দারুণ ক্যাপ্টেন। এত তাড়াতাড়ি ঘোষণা করারও কিছু হয়নি।”

কোহলি অবশ্য বিবৃতিতে জানিয়েছিলেন, বিসিসিআই আধিকারিক সহ কোচ রবি শাস্ত্রী এবং রোহিত শর্মার সঙ্গে কথা বলেই তিনি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এই বিষয়ে কপিল দেবের বক্তব্য, “কোহলি যদি সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে নির্বাচকদের সঙ্গে কথা বলে থাকে, তাহলে কোনও সমস্যা নেই। ক্রিকেটাররা আজকাল নিজেরাই সমস্ত সিদ্ধান্ত নেয়। তাই এটা একান্তই ওর ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত। আমার কিছু বলার নেই। আমি শুধু ওকে বলতে চাই, এতদিন ধরে তুমি দেশের সেবা করছ। এখন যা করেছ ভালোই করেছ।” পাশাপাশি প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক এও বলেন, “এত বড় সিদ্ধান্ত নিতে গেলেও সাহসের প্রয়োজন হয়। কোহলির সততাকে সম্মান জানাতেই হবে। এখনকার ক্রিকেটারদের এসব বলার সাহস রয়েছে। ওদের কুর্নিশ। বিরাটের বাকি কেরিয়ারের জন্যও শুভেচ্ছা জানাই।”

কেন একতরফা সিদ্ধান্ত? টি-২০ নেতৃত্ব ছাড়া নিয়ে কোহলির সমালোচনায় প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক / Image Source : Instagram @virat.kohli
কেন একতরফা সিদ্ধান্ত? টি-২০ নেতৃত্ব ছাড়া নিয়ে কোহলির সমালোচনায় প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক / Image Source : Instagram @virat.kohli

প্রসঙ্গত, টি-২০-তে ক্যাপ্টেন হিসেবে বিরাটের সাফল্য নজরকাড়া। টি-২০ ক্রিকেটে ৪৫টি ম্যাচে অধিনায়কত্ব করেছেন কোহলি। তার মধ্যে জিতেছেন ২৭টি ম্যাচ, হেরেছেন ১৪টি। দুটি করে ম্যাচ টাই ও পরিত্যক্ত হয়েছে। অধিনায়ক হিসাবে বিরাটের জয়ের রেকর্ড ৬৬.৪৪ শতাংশ। কুড়ি ওভারের ক্রিকেটে সাফল্যের নিরিখে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন ক্যাপ্টেন কোহলি। তাঁর আগে রয়েছেন শুধু আফগানিস্তানের আসগর আফগান। অধিনায়ক হিসেবে আসগরের জয়ের রেকর্ড ৮০.৭৭ শতাংশ। এছাড়াও প্রথম ব্যাটসম্যান হিসাবে টি-২০-তে ৩ হাজার রানও করেছেন বিরাট। সব মিলিয়ে বলা চলে, ছোট ফর্ম্যাটের ক্রিকেটে ক্যাপ্টেন ও ব্যাটসম্যান হিসেবে দারুন সফল তিনি। তা সত্ত্বেও বিরাট কেন অধিনায়কত্ব ছাড়তে চাইছেন, তা নিয়ে অনেকের মনেই প্রশ্ন উঠেছে। তাঁর এই আচমকা সিদ্ধান্তে কপিল দেবের মতোই হতবাক অধিকাংশ ক্রিকেটপ্রেমীই।