চোখ রাঙাচ্ছে জোড়া ঘূর্ণাবর্ত! আজ থেকেই কন্ট্রোল রুম খুলল লালবাজার

চোখ রাঙাচ্ছে জোড়া ঘূর্ণাবর্ত! আজ থেকেই কন্ট্রোল রুম খুলল লালবাজার
চোখ রাঙাচ্ছে জোড়া ঘূর্ণাবর্ত! আজ থেকেই কন্ট্রোল রুম খুলল লালবাজার

ফের চোখ রাঙাচ্ছে নিম্নচাপের ভ্রুকুটি। আবহাওয়া দফতর জানাচ্ছে রবিবার ফের আছড়ে পড়তে পারে ঘূর্ণিঝড়। তাই বিপর্যয় এড়াতে তৎপর হল লালবাজার। আজ রাত ১২টা থেকেই খোলা হবে কলকাতা পুলিশের সদর দফতরে কন্ট্রোল রুম। কলকাতা পুলিশের সঙ্গে পূর্ত দফতর, কলকাতা পুরসভা, দমকল, সিইএসসি যৌথভাবে বিপর্যয় মোকাবিলায় কাজ করবে বলে জানা গিয়েছে।

সোমবারের লাগাতার বৃষ্টিতে কার্যত নাজেহাল অবস্থা হয়েছিল শহরের। তাই এবার আবহাওয়ার পূর্বাভাস জানতেই আগেভাগে তৎপর হল লালবাজার। কলকাতা পুলিশ সূত্রে খবর, আজ রাত ১২টা থেকে সর্বক্ষণের জন্য খোলা থাকবে লালবাজারের কন্ট্রোল রুম। এই কন্ট্রোল রুমের দায়িত্বে থাকবেন একজন যুগ্ম কমিশনার ও একজন ডিসি পদমর্যাদার আধিকারিক।

লালবাজার সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই শহরের নিচু, ঢালু জায়গার নামের তালিকা তৈরীর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বিপদজনকবাড়ির তালিকা তৈরির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ওই এলাকাগুলিতে নজরদারি বাড়াতে বলা হয়েছে। এছাড়াও তিনটি শিফটে ২২ টি বিপর্যয় মোকাবিলা দলকে প্রস্তুত রাখতে বলা হয়েছে। জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা দল, সেনাকেও প্রস্তুত রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে, সরকারি যে কমিউনিটি হল গুলি রয়েছে সেখানে ত্রাণ শিবির তৈরি করার কথা বলা হয়েছে। পুলিশের কন্ট্রোল রুমের নাম্বার দেওয়ার কাজ শুরু হবে কাল থেকেই।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার বিকেলে আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়ে দিয়েছে, একটি সুস্পষ্ট নিম্নচাপ পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগরের উপরে অবস্থান করছে। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এই নিম্নচাপ আরও শক্তি বৃদ্ধি করবে।জোড়া ঘূর্ণাবর্তের ধাক্কায় ২৬ তারিখ থেকেই প্রবল বর্ষণ শুরু হবে দক্ষিণবঙ্গের প্রায় ১০ টি জেলায়। ২৬ ও ২৭-এর পর ২৮ তারিখ বৃষ্টির পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে। প্রথম দু’দিন হলুদ সতর্কতা এবং ২৮ সেপ্টেম্বর কমলা সতর্কতা জারি করেছে আবহাওয়া দফতর। ইতিমধ্যেই ২৫ তারিখ থেকে মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে বারণ করা হয়েছে।