শনিবার প্রথম দফার ভোট, শেষ দিনের প্রচারে ঝড় তুলল বিজেপি, পিছিয়ে নেই তৃণমূলও

শনিবার প্রথম দফার ভোট, শেষ দিনের প্রচারে ঝড় তুলল বিজেপি, পিছিয়ে নেই তৃণমূলও
শনিবার প্রথম দফার ভোট, শেষ দিনের প্রচারে ঝড় তুলল বিজেপি, পিছিয়ে নেই তৃণমূলও

পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনে প্রথম দফার ভোটগ্রহণ শনিবার। দুই মেদিনীপুর, বাঁকুড়া, ঝাড়গ্রাম এবং পুরুলিয়ার ৩০ টি আসনে ভোট হবে ওই দিন । তার আগে আজ শেষ বেলার প্রচারে দিনভর তত্পর থাকল রাজনৈতিক দলগুলি ।

২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্রগুলিতে রীতিমতো দাপট দেখিয়েছিল বিজেপি। আজ শেষ প্রচার নিজেদের অবস্থান আরও পোক্ত করতে প্রার্থীদের পাশাপাশি তত্পর ছিলেন বিজেপির প্রথম সারির কেন্দ্রীয় নেতা তথা তারকা প্রচারকরা । বঙ্গের প্রথম দফার ভোটে দলীয় প্রার্থীর হয়ে প্রচারে ঝড় তুললেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ, সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া কিংবদন্তি অভিনেতা তথা মহাগুরু মিঠুন চক্রবর্তী, কেন্ত্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং, ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর সহ অন্যান্য বিজেপি নেতারা ।

শেষ বেলার প্রচারে ঝড় তুলতে পিছিয়ে ছিল না রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসও। আজ দিনভর প্রচারে ঝাঁপালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সহ অন্যান্যরা । নিজের নিজের শক্তি নিয়ে শেষ বেলায় প্রথম দফার ভোটের জন্য ভোটারদের মন জয়ে তত্পর ছিল অন্যান্য দলগুলিও। এদিকে আজ ভয় না পেয়ে, পক্ষপাতিত্ব না করে ভোট দেওয়ার আবেদন জানান রাজ্যের রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর।

পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের জন্য গত কয়েক মাস ধরেই নিয়মিত বাংলা সফর করছেন। কিন্তু একদিনে ৪ সভা প্রথম। বৃহস্পতিবার ফের রাজ্যে ভোটের প্রচারে আসেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ। পরপর চারটি জনসভা করেন তিনি। পুরুলিয়াড় ঝাড়গ্রাম, তমলুক এবং বিষ্ণুপুর বিধানসভা এলাকায় জনসভা করেন শাহ। বিকেলে একটি সাংগঠনিক সভাও করেন তিনি। এদিনের সভা থেকে ভোটারদের মন জয় করতে তিনি যেমন একের পর এক প্রতিশ্রুতি দেন । সেই সঙ্গে তীব্র আক্রমণ করেন রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসকে ।

অমিত শাহের পাশাপাশি আজ শেষ দফায় ভোটের আগে বিজেপির প্রচারে ঝড় তোলেন প্রাক্তন ক্রিকেট-তারকা তথা কেকেআরের প্রাক্তন অধিনায়ক গৌতম গম্ভীর। প্রচারের শেষ দিনে রাজনীতির মাঠে ছক্কা হাকিয়ে ‘খেলা হবে’-র আবহে এই ভাষাতেই জনসভায় বিজেপি-র হয়ে ব্যাট ধরলেন গম্ভীর। ক্রিকেট মাঠে নয়, ভোটের ময়দানে এসে প্রচারের শেষ দিনে ছক্কা মেরে দিলেন। প্রচারের শেষ দিনে সোনামুখী এবং বাঁকুড়াতে এসে র্যালি করলেন টিম ইন্ডিয়ার এই প্রাক্তন ক্রিকেটার।

মোট আট দফার নির্বাচন হচ্ছে বাংলায়, আর প্রথম দফাতেই এই দুই জায়গার নাম রয়েছে। তাই প্রচারের শেষ দিনে বাঁকুড়া ও সোনামুখীতে এসে র্যালির মাধ্যমে উন্নয়নের বার্তা দিয়ে গেলেন বিজেপির সাংসদ গম্ভীর। সেই সঙ্গে সোনার বাংলা গড়ার অঙ্গীকারও করেন তিনি। তৃণমূলের বিধায়কদেরও আক্রমণ করেন গম্ভীর। তিনি দাবি করেন, বিজেপি সত্যিকারের লোকদেরই প্রার্থীর টিকিট দিয়েছে। সমাজের সব ধরনের লোকদেরই টিকিট দেওয়া হয়েছে।এ যেন পরীক্ষার আগের দিন। আর হাতে সময় নেই। শেষবেলায় তাই প্রস্তুতিতে খামতি রাখত চাইল না কোনও শিবির।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.