কলকাতা

নয়া পালক কলকাতার মুকুটে, শুরু হচ্ছে লাইব্রেরি অন হুইলস

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ এতদিন শুধু ট্রাম ছিল। আবার এতদিন শুধু লাইব্রেরীও ছিল। কিন্তু ট্রাম লাইব্রেরী আগে কি ছিল তিলোত্তমায়। করোনা আবহে এবার মহানগরীতে চালু হতে চলেছে ট্রাম লাইব্রেরী। দেশের মধ্যে প্রথম ট্রাম লাইব্রেরি শুরু হচ্ছে কলকাতায়।

১৮৭৩ সালে ঘোড়ায় টানা ট্রাম চলা শুরু হয় কলকাতায়। ১৯০২ সালে সেই কলকাতারই খিদিরপুরে শুরু হয়েছিল ইলেকট্রিক ট্রামের সূচনা। প্রথমে নোনাপুকুর ট্রামডিপোয় বসানো হয়েছিল একটি জেনারেটর। যা ট্রামের ইতিহাসে দেশের মধ্যে প্রথম। এমন বহু প্রথম ঐতিহাসিক সূচনার সঙ্গে জড়িত কলকাতার মুকুটে জুড়ল আরও এক পালক।

ট্রাম যেতে যেতে বিরক্তি বোধ করলে এবার পড়া যাবে বই। ট্রামের ভিতরেই থাকবে নানা ধরণের বইয়ের সম্ভার। গল্প-উপন্যাস-ম্যাগাজিনের পাশাপাশি থাকবে পাওয়া যাবে আইএএস, আইপিএস, ডব্লুবিসিএস, জিআরই, জিম্যাট ইত্যাদি প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার দামি দামি বইও। ছাপার অক্ষরের পাশাপাশি যাত্রীরা অনলাইনেও বই পড়তে পারবেন ট্রামে । কারণ এই ট্রামেই থাকছে ফ্রি ওয়াইফাই।

বৃহস্পতিবার থেকে তিলোত্তমায় ছুটবে এই ট্রাম লাইব্রেরি। শ্যামবাজার থেকে কলেজ স্ট্রীট হয়ে এসপ্ল্যানেডগামী ট্রাম রাস্তায় কম করে ৩০ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। সেই পথে রয়েছে এশিয়ার বিখ্যাত বই বাজার কলেজ স্ট্রিট। ছাত্রছাত্রী ও বইপ্রেমীদের সদা আনাগোনা, ব্যস্ত এই রাস্তা দিয়েই চলবে বিশেষ ‘ট্রাম লাইব্রেরি’। আপাতত চারটি রুটে ট্রাম চলাচল শুরু করেছে । এই ট্রাম লাইব্রেরীতে উদ্বোধনের প্রথম সপ্তাহে ট্রামের যাত্রীরা টিকিট কিনলে পেনও মিলবে ।

আগামীতে লিটরারি ইভেন্ট, নতুন বই লঞ্চ, এমনকী নভেম্বর মাসে ট্রাম লিট ফেস্টিভ্যাল এর পরিকল্পনা রয়েছে ট্রাম কোম্পানির।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.

Back to top button