নির্বাচনের জেরে উত্তপ্ত রাজ্য-রাজনীতি! দ্বিতীয় দফা ভোটের পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে বের হলেন মমতা ব্যানার্জি

নির্বাচনের জেরে উত্তপ্ত রাজ্য-রাজনীতি! দ্বিতীয় দফা ভোটের পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে বের হলেন মমতা ব্যানার্জি
নির্বাচনের জেরে উত্তপ্ত রাজ্য-রাজনীতি! দ্বিতীয় দফা ভোটের পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে বের হলেন মমতা ব্যানার্জি / নিজস্ব ছবি

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ রাজ্যে শুরু হয়েগেছে ভোট যুদ্ধ। সম্পন্ন হয়েছে প্রথম দফার ভোট। আর আজ দ্বিতীয় দফার ভোট প্রক্রিয়া চলছে। বাকি ৬ দফা ভোট। আজ দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর, বাঁকুড়া ও নন্দীগ্রাম নিয়ে ৫ রাজ্যে নির্বাচন চলছে। রাজ্যের শাসক দলে কে আধিপত্ত বিস্তার করবে তা নিয়ে চলছে রাজনৈতিক বিরোধ। রাজনৈতিক দলগুলি তাঁদের অবস্থান পাকাপক্ত করতে অনেক আগে থেকেই আসরে নেমে পড়েছে। এরইমাঝে তৃণমূল শিবিরও প্রকাশ করেছে তাদের প্রার্থী তালিকা ও নির্বাচনী ইস্তেহার। আর এবার নির্বাচনে নন্দীগ্রামে তৃণমূলের হয়ে লড়ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। তাঁর বিপক্ষে রয়েছেন তৃণমূলের দলত্যাগী সেনা তথা বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। তাই বলা যায় বেশ হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলছে নন্দীগ্রামে।

প্রসঙ্গত আজ সকাল থেকেই নন্দীগ্রামের নানা জায়গায় নানা অভিযোগ উঠে এসেছে। নন্দীগ্রামের বয়ালে ৬ নম্বর বুথে অর্থাৎ বয়াল শম্ভুনাথ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এবং ৭ নম্বর বুথে অর্থাৎ মোকতাব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তৃণমূল পোলিং এজেন্টদের বুথে ঢোকার ক্ষেত্রে বাধা দেওয়ার অভিযোগ উঠে। উল্লেখ্য এই অভিযোগ উঠে আধাসেনার বিরুদ্ধে। তবে শুধু বয়াল নয় গোকুলনগর, বলরামপুর নিয়ে প্রায় ৮০ টি জায়গায় তৃণমূলের পলিং এজেন্ট বুথে ঢুকতে বাধা পায় বলেই অভিযোগ উঠে।

অন্যদিকে সকাল থেকেই নন্দীগ্রামের বিভিন্ন জায়গায় ভোট পরিদর্শনে গেছেন শুভেন্দু অধিকারী। তবে মুখ্যমন্ত্রী অন্যবারের মত এবার বাড়িতে বসেই সব জায়গার খবরাখবর রাখছিলেন। তিনি আজ রেয়াপাড়া তেই ছিলেন। সেখানেই আজ থাকবেন বলে জানা গেছে, কারণ আজ বিকেলে কলকাতা যাওয়ার কথা থাকলেও তিনি যাচ্ছেন না বলেই জানা গেছে। তবে তিনি আর রেয়াপাড়ার বাড়িতে বসে না থেকে ভোট পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে বেরিয়ে পরেছেন। প্রথমে বয়াল এবং সেখান থেকে গোকুলনগর, বলরামপুর সহ সোনাচূড়াতেও যেতে পারেন তিনি, এমনটাই জানা যাচ্ছে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.