অত্যাচারের হাত থেকে মুক্তি পেতে, অন্ধ্রপ্রদেশে নেশাগ্রস্ত ছেলেকে খুন করলেন মা!

অত্যাচারের হাত থেকে মুক্তি পেতে, অন্ধ্রপ্রদেশে নেশাগ্রস্ত ছেলেকে খুন করলেন মা!
অত্যাচারের হাত থেকে মুক্তি পেতে, অন্ধ্রপ্রদেশে নেশাগ্রস্ত ছেলেকে খুন করলেন মা! / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ নেশা বড় বিষম বস্তু। নেশার ঘোরে মানুষ নানা অপরাধ করে থাকে, এমনকি নেশার ঘোরে মানুষ মানুষকে খুন পর্যন্ত করে থাকে। তবে নেশাগ্রস্ত সন্তানের অত্যাচার থেকে মুক্তি পেতে, মায়ের তাকে খুন করার ঘটনা খুব একটা শোনা যায় না।

সম্প্রতি তেমনই একটি ঘটনা ঘটেছে অন্ধ্রপ্রদেশের গুন্টুরে। গাঁজার নেশায় বুঁদ ছেলেকে নিজের হাতে খুন করলেন মা। মেরে বললেন, ‘মুক্তি পেলাম!’ অন্ধ্রপ্রদেশের গুন্টুরের বাসিন্দা সোমলতা। তিনি স্থানীয় কর্পোরেশনে স্যানিটাইজেশনের কাজ করেন। কয়েক বছর আগেই বছর ৪৩-এর সোমলতার স্বামীর মৃত্যু হয়েছে। এরপর থেকে সোমলতাই সংসারের একমাত্র উপার্জনকারী সদস্য। এদিকে তাঁর ছেলে পড়াশোনা শেষ হওয়ার আগেই ছেড়ে দেয় এবং তারপরেই নেশায় আসক্ত হয়ে পড়ে। নেশার টাকা জোগাড় করার জন্য সোমলতার ১৭ বছরের ছেলে ভেল্লেপু সিদ্ধার্থ প্রায়ই মায়ের উপর অত্যাচার করত। এই বিষয়কে কেন্দ্র করে নিত্যদিন দুজনের মধ্যে অশান্তি লেগেই থাকত।

শনিবারও এই একই বিসয়কে কেন্দ্র করে উভয়ের মধ্যে অশান্তির সূত্রপাত হয়। সেদিন কাজ সেরে প্রতিদিনের মতো নির্দিষ্ট সময়েই ঘোরে ফেরেন সোমলতা এবং নেশার টাকা নিয়ে ছেলের সঙ্গে মায়ের অশান্তি শুরু হয়। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, রাতের দিকে খুব বেশি চিৎকার শুনতে পান তাঁরা। এরপরই দেখা যায়, সোমলতা তাঁদের ভাড়া বাড়ি থেকে বেরিয়ে আসছেন এবং বলতে বলতে আসছেন যে, ‘অবশেষে আমি মুক্তি পেলাম’।

এরপরই প্রতিবেশীদের সন্দেহ হওয়ায়, তাঁরা বাড়ির ভিতরে প্রবেশ করে দেখেন যে, সোমলতার ছেলে মাটিতে পড়ে আছে। সঙ্গে সঙ্গে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ এসে জানায় যে, সিদ্ধার্থর মৃত্যু হয়েছে। এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই নাগারামপালেম থানার পুলিশ ৩০২ ধারায় খুনের মামলা রুজু করেছে।

এদিকে এই ঘটনার পর থেকে পলাতক সোমলতা। পুলিশ তাঁর খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে। উল্লেখ্য, এর আগেও গাঁজার নেশার ঘোরে খুনের ঘটনা ঘটতে দেখা গেছে। গত বছরের অগস্টে বিহারে ২৩ বছরের এক যুবক এই নিয়ে অশান্তির জেরে তার মা’কে খুন করে। পরে জেরায় সে পুলিশকে জানায় যে, নেশা করার জন্য মাত্র ৫০ টাকা চেয়ে না পাওয়ায়, সে তার মা’কে খুন করেছিল।

গত কয়েক বছরের মধ্যে এমন অনেক ঘটনাই প্রকাশ্যে এসেছে। উল্লেখ্য, গাঁজা নিষিদ্ধ হলেও আমাদের দেশের অনেক জায়গায় চোরা পথে গাঁজা বিক্রি হয়। এই বিষয়ে একাধিক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা থেকে সচেতনতার বার্তা দেওয়া হলেও, আখেরে লাভ কিছুই হয়নি।

আরো পড়ুনঃ   ১০০ টাকার টিকিটে ১ কোটির লটারি জিতলেন পাঞ্জাবের গৃহবধূ!