বেকারত্ব নিপাত যাক! পরিযায়ী শ্রমজীবী মানুষের সাহায্যে ‘জীবিকা উৎপাদন প্রকল্প’ চালু করল নাগাল্যান্ড সরকার

বেকারত্ব নিপাত যাক! পরিযায়ী শ্রমজীবী মানুষের সাহায্যে 'জীবিকা উৎপাদন প্রকল্প' চালু করল নাগাল্যান্ড সরকার
বেকারত্ব নিপাত যাক! পরিযায়ী শ্রমজীবী মানুষের সাহায্যে 'জীবিকা উৎপাদন প্রকল্প' চালু করল নাগাল্যান্ড সরকার

দেশ তথা সারা বিশ্ব জুড়ে করোনার ভয়াবহ পরিস্থিতির সঙ্গেই আরেকটি সমস্যা বেশ মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে- বেকারত্ব। এই সমস্যায় জর্জরিত আজ গোটা দেশ। করোনা পরবর্তী সময়ে ভীন রাজ্য বা দেশে কর্মরত বহু মানুষই ফিরে এসেছেন নিজেদের রাজ্যে। বেশিরভাগই চাকরি খুইয়ে। কিছুজনের ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’ জারি থাকলেও সে সংখ্যা নিতান্তই হাতে গোনা। এদিকে চাকরি না থাকায় নিজেদের রাজ্যে ফিরেও আর্থিক অনটনে দিন কাটছে অসহায় সেই মানুষগুলির। এই কঠিন পরিস্থিতিতে তাদের পাশে দাঁড়াতে একটি নতুন জীবিকা উৎপাদন প্রকল্প চালু করল নাগাল্যান্ড সরকার।

প্রকল্পটির মূল উদ্দেশ্য, জীবিকাহীন মানুষগুলিকে সঠিক দিশা দেখানো। প্রকল্পটিতে স্বচেষ্ট উদ্যোক্তাদের নিজেদের ব্যক্তিগত কোনও উদ্যোগের জন্য অনুদান প্রদান এবং দরকারে তাদের পুনরায় দক্ষতার মাধ্যমে কাজ শেখানোরও পরিকল্পনা করেছে সরকার। অনুদানের উর্ধ্বসীমা ২ লাখ টাকা। গত ২২মে থেকে ৬ অগাস্টের মধ্যে যারা রাজ্যে ফিরেছেন একমাত্র তারাই এই প্রকল্পটিতে নিজেদের অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন বলেও জানানো হয়েছে। তথ্যসূত্র অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত প্রায় ১৬ হাজার মানুষ ভর্তি হয়েছে এই প্রকল্পে।

গত চলতি বছরে অক্টোবরের শুরুর দিকেই এই উদ্যোগটি চালু করার উদ্দ্যেশ্যে ঘোষণা এবং অর্থায়ন করে নর্থ ইস্টার্ন কাউন্সিল। প্রসঙ্গতঃ, এটি উত্তর-পূর্বাঞ্চলের অর্থনৈতিক এবং সামাজিক উন্নয়নের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের এক নোডাল সংস্থা। প্রকল্পটি চালু করতে নাগাল্যান্ডের সরকারকে ২.৪ কোটির প্রাথমিক তহবিলও প্রদান করেছে কাউন্সিল। মহামারীর কারণে সৃষ্ট বেকারত্ব এবং ভিটেছাড়া হওয়া মানুষগুলিকে স্বনির্ভর করে তোলার লক্ষ্যেই এখন নাগাল্যান্ড সরকারের এহেন উদ্যোগ।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.