নারদা মামলায় কলকাতা হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চ গঠনের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ সিবিআই

নারদা মামলায় কলকাতা হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চ গঠনের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ সিবিআই
নারদা মামলায় কলকাতা হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চ গঠনের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ সিবিআই

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ নারদা মামলায় এবার দেশের শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই। নারদা মামলায় হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চ গঠনের সিদ্ধান্তের বিরোধীতা করে দেশের শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হল সিবিআই।

জানা গিয়েছে, রবিবার গভীর রাতে অনলাইনে মামলা করা হয়েছে। আজই সুপ্রিম কোর্টে এই মামলার শুনানির আবেদনও জানানো হবে। সোমবার বেলা ১১ টায় কলকাতা হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চে জামিল মামলার যে শুনানি হওয়ার কথা, কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সেই শুনানি স্থগিত রাখার আবেদন জানিয়েছে বলে সূত্রের খবর।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ১৭ মে বিনা নোটিসে বাড়ি থেকে প্রথমে একে একে আটক করা হয়, রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়, কামারহাটির বিধায়ক মদন মিত্র, এবং কলকাতার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়কে। বিধানসভার স্পিকারের অনুমতি ছাড়াই হিরহাদ, সুব্রত এবং মদন মিত্রকে আটক করে নিজাম প্যালেসে নিয়ে যাওয়া হয়। প্রথমে এই চারজনকে গ্রেফতারের কথা স্বীকার করা না হলেও, পরে নিজাম প্যালেসে তাঁদের অ্যারেস্ট মেমোতে সই করিয়ে গ্রেফতার করা হয়।

ধৃতদের জানিম পাওয়া নিয়েও নাটক চলে। প্রথমে নিম্ন আদালতে জামিন মঞ্জুর হলেও, পরে হাইকোর্টে তা স্থগিত হয়ে যায়। এরপর ৪ জনকেই প্রেসিডেন্সি জেলে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে অসুস্থ হয়ে পড়লে, মদন, শোভন এবং সুব্রত মুখোপাধ্যায়কে এসএসকেএম- এ ভর্তি করা হয়। হাইকোর্টে এই চার প্রভাবশালী ব্যক্তিত্বের জামিন পাওয়া নিয়েও চলে নাটক। ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দল ও বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় জামিন নিয়ে দ্বিমত পোষণ করেন। বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় জামিনের পক্ষে থাকলেও, জামিনের বিরোধীতা করেন রাজেশ বিন্দল। এরপরই এই চারজনকে জেল হেফাজত থেকে মুক্তি দিয়ে আপাতত গৃহবন্দি থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়। পাশাপাশি জামিন মামলার নিষ্পত্তির জন্য গঠন করা হয় বৃহত্তর বেঞ্চ।

নারদা মামলায় কলকাতা হাইকোর্টে চার নেতার জামিনের আবেদনের শুনানির জন্য গঠিত বৃহত্তর বেঞ্চে রয়েছেন ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দল, বিচারপতি ইন্দ্রপ্রসন্ন মুখোপাধ্যায়, বিচারপতি হরিশ টন্ডন, বিচারপতি সৌমেন সেন এবং বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার অর্থাৎ আজ বেলা ১১ টায়, এই বেঞ্চে জামিনের মামলার শুনানি হওয়ার কথা। তবে, তার আগেই এই জামিনের আবেদন স্থগিতের জন্য দেশের শীর্ষ আদালতে গেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই। মনে করা হচ্ছে, হাইকোর্টে এই জামিনের মামলা এখন অনিশ্চয়তার সম্মুখীন।