আগামীকাল রাজ্যে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, জানালেন বাংলায় ট্যুইট করে

বিশ্বখ্যাত পশ্চিম মেদিনীপুরের নয়ার পট শিল্পীদের দ্বারা প্রস্তুত হচ্ছে বিশেষ উপহার, প্রধানমন্ত্রীর জন্য
বিশ্বখ্যাত পশ্চিম মেদিনীপুরের নয়ার পট শিল্পীদের দ্বারা প্রস্তুত হচ্ছে বিশেষ উপহার, প্রধানমন্ত্রীর জন্য / ছবি সৌজন্যে- Screenshot Facebook Live Vieo By Narendra Modi Official Facebook Page

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ আগামীকাল থেকেই রাজ্যে শুরু হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী মোদীর প্রচার। কালই রাজ্যে আসছেন প্রধানমন্ত্রী। রাত শেষ হলেই তিনি আসবেন বঙ্গে। এই সফরের কথা নিজেই বাংলায় ট্যুইট করে জানালেন নরেন্দ্র মোদী।

তিনি ট্যুইটারে লিখেছেন, ‘আগামীকাল সন্ধ্যায়, আমি পশ্চিমবঙ্গের হলদিয়ায় থাকব। সেখানে একটি অনুষ্ঠানে, বিপিসিএল নির্মিত এলপিজি আমদানি টার্মিনালটি জাতির উদ্দেশে উৎসর্গ করবো। একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী উর্জা গঙ্গা প্রকল্পের অন্তর্গত ধোবি-দুর্গাপুর প্রাকৃতিক গ্যাস পাইপলাইন বিভাগ জাতির উদ্দেশে উৎসর্গ করবো।’ উল্লেখ্য, কাল প্রধানমন্ত্রীর সভায় দেখা যাবে তৃণমূলের সংসাদ দিব্যেন্দু অধিকারীকেও। তাকে মোদীর অনুস্থানে উপস্থিত থাকার জন্য বিশেষভাবে আমন্ত্রণও জানান হয়েছে বলে সূত্রের খবর।

জানা গিয়েছে ৭ ফেব্রুয়ারি হলদিয়ায় দু’টি প্রকল্পের সূচনা করার কথা প্রধানমন্ত্রী। এরমধ্যে রয়েছে ধোবি-দুর্গাপুর পাইপলাইন প্রকল্প। ৩৪৭ কিলোমিটার দীর্ঘ এই পাইপলাইন বানাতে খরচ হয়েছে মোট ২,৪৩৩ কোটি টাকা। এই পাইপলাইনের মাধ্যমে দুর্গাপুরের ‘ম্যাটিক্স ফার্টিলাইজার প্ল্যান্ট’-এ গ্যাস সরবরাহ করা হবে।

অন্যদিকে হাজারিবাগ, বোকারো, ধানবাদ, জামশেদপুর, পুরুলিয়া, আসানসোল এবং দুর্গাপুর শহরের বিভিন্ন সংস্থায়ও গ্যাস সরবরাহ করা যাবে বলে জানানো হয়েছে। এছাড়াও ওই দিন হলদিয়ায় ‘এলপিজি ইমপোর্ট টার্মিনাল’-এরও সূচনা করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। উল্লেখ্য, এটি পশ্চিমবঙ্গ ছাড়াও ওড়িশা, বিহার, ঝাড়খণ্ড, উত্তর-পূর্বের বিভিন্ন রাজ্য এবং উত্তর প্রদেশের কিছু অংশের এলপিজি-র চাহিদা পূরণ করবে বলে জানানো হয়েছে। একইসঙ্গে ওই দিন হলদিয়ায় ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশনের তৈল সংশোধনাগারে দ্বিতীয় ‘ক্যাটালিটিক ডিওয়াক্সিং ইউনিট’-এর শিলান্যাস করবেন প্রধানমন্ত্রী।

এক্ষেত্রে উল্লেখ্য, বঙ্গে ক্ষমতা দখলের লড়াইয়ে প্রথম নির্বাচনী পদক্ষেপও কালই। হলদিয়াতে একটি জনসভাতেও যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। জনসভাটি হবে হলদিয়ায় পোর্ট ট্রাস্টের গেস্টহাউজ সংলগ্ন মাঠে। যদিও প্রথমে কথা ছিল ব্রিগেডেই প্রথম সভা করবেন প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু রাজ্য বিজেপি দাবি ছিল, প্রধানমন্ত্রী যখন বঙ্গে আসছেনই তখন নির্বাচনী প্রচারও শুরু হয়ে যাক। প্রসঙ্গত মোদির সফরের দু’দিনের মাথায় আরও একবার রাজ্যে আসবেন বিজেপির সর্ব ভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা। অন্যদিকে দু’দিনের মাথায় ১১ ফেব্রুয়ারি আসবেন অমিত শাহও।

আরো পড়ুনঃ   করোনা ভ্যাকসিন নিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করলেন সেই মুহূর্তের ছবি