অবশেষে রায় ঘোষণা! বিহারের গোপালগঞ্জের বিষমদ কাণ্ডে ৯ জনের ফাঁসির সাজা! ৪ জনের যাবজ্জীবন

অবশেষে রায় ঘোষণা! বিহারের গোপালগঞ্জের বিষমদ কাণ্ডে ৯ জনের ফাঁসির সাজা! ৪ জনের যাবজ্জীবন
অবশেষে রায় ঘোষণা! বিহারের গোপালগঞ্জের বিষমদ কাণ্ডে ৯ জনের ফাঁসির সাজা! ৪ জনের যাবজ্জীবন / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ২৪x৭ডিজিটাল ডেস্কঃ অবশেষে রায় ঘোষণা হল। ২০১৬ সালের বিহারের গোপালগঞ্জে বিষমদ কাণ্ডে রায় ঘোষণা হয়েছে আজ। গত ২৬ ফেব্রুয়ারি, বিহারের বিশেষ আবগারি আদালত ওই ঘটনায় মোট ১৩ জনকে দোষী সাব্যস্ত করেছিল। এই ১৩ জনের মধ্যে ৯ জন পুরুষ অভিযুক্তকে ফাঁসির সাজা শুনিয়েছে আদালত। পাশাপাশি ৪ জন মহিলাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা শোনানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, এই প্রথম বিহারে বিষমদ কাণ্ডে মৃত্যুদণ্ড এবং মহিলাদের যাবজ্জীবনের সাজা ঘোষণা করা হল। ২০১৫ সালে নির্বাচনে নীতীশ কুমারের অন্যতম নির্বাচনী হাতিয়ার ছিল, রাজ্যে মদ নিষিদ্ধ করার প্রতিশ্রুতি। নির্বাচনে জিতে তিনি তাঁর দেওয়া সেই কথা রাখেন। ২০১৬ সালের এপ্রিলে সব ধরনের মদ বিক্রি এবং মদপান নিষিদ্ধ করা হয়। এই ঘোষণার পর থেকেই বিহারে মদের চোরাচালান বাড়তে শুরু করে। এর মধ্যেই ওই বছরেই অর্থাৎ ২০১৬ সালের আগস্টে বিহারে গোপালগঞ্জের ঘটনাটি ঘটে যায়।

বিষমদ পান করে, মোট ২১ জনের মৃত্যু ঘটে। বেশ কয়েকজনের দৃষ্টিশক্তি চলে যায়। এই ঘটনায় গোটা দেশজুড়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছিল। আজ সেই ঘটনার রায় ঘোষণা করা হল। মোট ১৩ জনকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে আগেই, এদের মধ্যেই ৯ জনের ফাঁসি এবং ৪ জন মহিলাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত চারজনকে আবার ১০ লক্ষ টাকা করে জরিমানাও করা হয়েছে।

আজ সাজা ঘোষণার পর, কড়া পুলিশি নিরাপত্তায় দোষীদের জেলে ফেরত পাঠানো হয়। উল্লেখ্য, গত বছর এই মামলাতেই দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে ২১ জন পুলিশকর্মীকে সাসপেন্ড করা হয়। এই ২১ জনের মধ্যে ৩ জন সাব-ইন্সপেক্টর, ৫ জন অ্যাসিসটেন্ট সাব-ইন্সপেক্টর এবং ১৩ জন কনস্টেবল পদমর্যাদার পুলিশকর্মী ছিলেন।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.