মেঘ সরতেই ফের শীতের আমেজ, তাপমাত্রা কমার পূর্বাভাস! সপ্তাহান্তে ফের নিম্নচাপের ভ্রূকুটি

মেঘ সরতেই ফের শীতের আমেজ, তাপমাত্রা কমার পূর্বাভাস! সপ্তাহান্তে ফের নিম্নচাপের ভ্রূকুটি
মেঘ সরতেই ফের শীতের আমেজ, তাপমাত্রা কমার পূর্বাভাস! সপ্তাহান্তে ফের নিম্নচাপের ভ্রূকুটি / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ মেঘ সরতেই ফের ধীরে ধীরে ফিরছে শীতের আমেজ। একধাক্কায় অনেকটাই কমল তাপমাত্রা। কাজেই দাপট দেখাবে উত্তুরে হাওয়া। রাতের তাপমাত্রা নাম্বে চার থেকে পাঁচ ডিগ্রি পর্যন্ত। আগামী কয়েকদিন ধরেই রাজ্যে শুষ্ক আবহাওয়া চলবে বলেই জানানো হয়েছে। আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, তামিলনাড়ু উপকূলে যে নিম্নচাপ ছিল তার প্রভাব কমছে। এর ফলে একদিকে যেমন উত্তর-পশ্চিম বায়ুর প্রভাব বাড়বে অন্যদিকে তেমনই কমবে জলীয় বাষ্পর প্রভাব।

কিন্তু শুক্রবারের পর থেকে ফের আবহাওয়ার পরিবর্তন হতে পারে নিম্নচাপের কারণে। হাওয়া অফিস জানাচ্ছে যে, বুধবার থেকে কলকাতা সহ গোটা দক্ষিণবঙ্গের আকাশ মূলত পরিষ্কার থাকবে। তবে, এদিন থেকে ফের ভোরের দিকে শীত শীত ভাব অনুভূত হচ্ছে। আবার বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে অস্বস্তিও বাড়ছে। যদিও একেবারে কনকনে ঠান্ডা পড়তে আরও বেশ কিছু সময় কাটাতে হবে৷ মঙ্গলবার রাত থেকে সারা রাজ্য জুড়ে রাতের তাপমাত্রা কমতে শুরু করার কথা। পূবালি হাওয়া ও নিম্নচাপের প্রভাব সম্পূর্ণ কেটে যাওয়ায় এদিন থেকে গাঙ্গেয় দক্ষিণবঙ্গ ও পশ্চিমাঞ্চলের জেলায় শুষ্ক আবহাওয়া বজায় থাকবে। সপ্তাহান্তে দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপাসাগরে একটি নিম্নচাপ তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে। ফলে তাপমাত্রা বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে।

জানা গিয়েছে, আগামী ৫ দিন এ রাজ্যে আবহাওয়া শুষ্ক থাকবে। মঙ্গলবার প্রধানত পরিষ্কার আকাশ থাকবে। অন্যদিকে, উত্তরবঙ্গেও আগামী কয়েকদিন বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই। রাতের তাপমাত্রা সামান্য কমায় শীতের আমেজ ফিরবে ভোরে। দিনের সর্বাধিক তাপমাত্রা থাকবে ২৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি কম এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ১৮.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি কম৷ বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বাধিক ৯২ শতাংশ, ন্যূনতম ৫২ শতাংশ৷

আপাতত রাজ্যজুড়ে মনোরম পরিবেশ। হেমন্তের আবহাওয়া থাকবে আগামী কয়েকদিন। রাতের তাপমাত্রা কমবে। ছয় দিন পর কলকাতায় স্বাভাবিকের নিজে ফিরল তাপমাত্রা। শুক্রবারের পর আবহাওয়ার পরিবর্তন হতে পারে। নিম্নচাপের পরোক্ষ জেরে পুবালি হাওয়ার দাপট বাড়বে। সাগর থেকে জলীয়বাষ্প এসে আরও একবার মেঘলা আকাশ, রাতের তাপমাত্রা বাড়াবে।