হচ্ছে না জামিন, হাইকোর্টের সিদ্ধান্তে আজ নয় শুনানি! বুধবার পর্যন্ত জেলেই থাকবে হবে চার নেতাকে

হচ্ছে না জামিন, হাইকোর্টের সিদ্ধান্তে আজ নয় শুনানি! বুধবার পর্যন্ত জেলেই থাকবে হবে চার নেতাকে
হচ্ছে না জামিন, হাইকোর্টের সিদ্ধান্তে আজ নয় শুনানি! বুধবার পর্যন্ত জেলেই থাকবে হবে চার নেতাকে

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ ফিরহাদ হাকিম, মদন মিত্র, সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়কে গতকাল নারদাকাণ্ডে গ্রেফতারের পর, ইতিমধ্যেই ১ রাত জেলে কেটে গেছে। মঙ্গলবার সকাল হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই এই চার নেতাকে জেল থেকে বের করে আনার তৎপরতা শুরু হয়ে যায়।

এই চার নেতার জামিনের পুনর্বিবেচনার আর্জি নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির দ্বারস্থ হন দুই আইনজীবী অভিষেক মনু সিংভি এবং সিদ্ধার্থ লুথরা। কিন্তু তাতেও আখেরে কোনও লাভই হল না। মঙ্গলবার এই চার নেতার জামিনের পুনর্বিবেচনার আর্জি গ্রহণ করা হলেও, সেই আবেদনের শুনানি হল না। এর পরিবর্তে কলকাতা হাইকোর্ট জানিয়ে দিয়েছে যে, বুধবার সিবিআই- এর আবেদনের সঙ্গে এই আবেদনেরও শুনানি হবে। এর ফলে বুধবার পর্যন্ত এই চার প্রভাবশালী নেতাকে জেলেই থাকতে হচ্ছে।

সোমবার নারদা মামলার ফিরহাদ হাকিম, মদন মিত্র, সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করে সিবিআই। সন্ধের সময় সিবিআই-এর বিশেষ আদলতে এই চার নেতা জামিন পেলেও, পরে কলকাতা হাইকোর্ট এই জামিনের উপর স্থগিতাদেশ দেয়। রাতে এই চার নেতাকে নিয়ে যাওয়া হয় প্রেসিডেন্সি জেলে। এরপর ভোর রাতে অসুস্থ বোধ করায় মদন মিত্র, শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং সুব্রত মুখোপাধ্যায়কে এসএসকেএমে নিয়ে যাওয়া হয়। সুব্রত মুখোপাধ্যায় পরীক্ষা না করিয়ে, জেলে ফিরে যান। কিন্তু মদন মিত্র এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়ের শ্বাসকষ্টের সমস্যা হওয়ায়, তাঁদের অক্সিজেন সাপোর্টে রাখা হয়। এখনও এই দুই নেতা হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন। অন্যদিকে, সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং ফিরহাদ হাকিমও বারবার অসুস্থ হয়ে পড়ছেন বলে খবর।

এদিন এই চার নেতার জামিনের পুনর্বিবেচনার আবেদন নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তিন আইনজীবী। প্রথমে মৌখিক আবেদন জানান আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর সেই আবেদন গৃহীত হয়। তবে, এর সঙ্গে লিখিত আকারে আর্জি জানাতেও বলে আদালত। সেই প্রক্রিয়া চলছে। তবে শুনানি আজ হচ্ছে না।

এদিন অভিযুক্তদের তরফের আইনজীবীর দাবি ছিল, সোমবার সন্ধেয় হাইকোর্টের শুনানিতে তাঁদের কোনও প্রতিনিধি হাজির ছিলেন না। ফলে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ পাননি তাঁরা। তাই অভিযুক্তদের মন্তব্য শুনে, রায় পুনর্বিবেচনা করুক আদালত। বুধবার সেই আবেদনের শুনানি হবে।