কেন্দ্রীয় বাহিনীর মানবিক মুখ দেখল সেই উত্তরবঙ্গই! জওয়ানদের প্রচেষ্টায় এড়ালো বড় দুর্ঘটনা!

কেন্দ্রীয় বাহিনীর মানবিক মুখ দেখল সেই উত্তরবঙ্গই! জওয়ানদের প্রচেষ্টায় এড়ালো বড় দুর্ঘটনা!
কেন্দ্রীয় বাহিনীর মানবিক মুখ দেখল সেই উত্তরবঙ্গই! জওয়ানদের প্রচেষ্টায় এড়ালো বড় দুর্ঘটনা!

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ যত কাণ্ড উত্তরবঙ্গে। পরিস্থিতি খানিকটা এরকমই। সঙ্গে কেন্দ্রীয় বাহিনী রয়েছে বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে। বাংলায় চতুর্থ দফার ভোট নিয়ে এখনও আলোচনার শেষ নেই। ভোটের আগে থেকেই আলোচনায় উঠে আসে এই উত্তরবঙ্গের কোচবিহারের শীতলকুচি। আর এখানে চতুর্থ দফায় ভোট শেষ হলেও, সেই আলোচনা অব্যাহত। আলোচনার শেষ নেই কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের ঘিরেও।

এই আলোচনার সুত্রপাত হয়, শীতলকুচিতে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের গাড়িতে আক্রমণের পর। আর এরপর, ভোটের দিন সকালে এখানকার ১২৬ নম্বর বুথে ৪ জন ভোটারের কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে মৃত্যু হলে, নতুন করে আলোচনায় উঠে আসে শীতলকুচির সঙ্গে কেন্দ্রীয় বাহিনীও। যাঁদের নিয়ে তৃণমূল এবং অন্য বিরোধী দলের (বিজেপি বাদে ) অভিযোগের শেষ নেই। তবে, এবার এই কেন্দ্রীয় বাহিনী ফের একবার আলোচনায় উঠে এসেছে। তবে, একেবারে অন্য কারণে। এবার কেন্দ্রীয় বাহিনীর মানবিক মনের পরিচয় পেল সেই উত্তরবঙ্গই।

উল্লেখ্য, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শুরু থেকেই এই কেন্দ্রীয় বাহিনীকে নিয়ে ভুরি ভুরি অভিযোগ করে এসেছেন। বাংলার মানুষের কাছে যখন রীতিমতো আতঙ্কের নাম হয়ে দাঁড়াচ্ছে কেন্দ্রীয় বাহিনী, ঠিক সেই সময় এই কেন্দ্রীয় বাহিনীর মানবিক মুখ দেখল উত্তরবঙ্গের মানুষ।

কেন্দ্রীয় বাহিনীর প্রচেষ্টায় বড় ধরনের দুর্ঘটনা এড়া্নো সম্ভব হল জলপাইগুড়ির রেলওয়ে কলোনিতে। পঞ্চম দফা নির্বাচনের জন্যে রেলওয়ে কলোনির একটি সরকারি স্কুলে মোতায়ন রয়েছে সিআরপিএফ জাওয়ানরা। সোমবার সকালে হঠাৎই ওই কলোনিতে থাকা একটি গাড়িতে আগুন লাগে। নিমেষে ভয়াবহ আকার ধারণ করতে থাকে সেই আগুন। গাড়িটির পাশেই অবস্থিত একাধিক ঝুপড়ি। তাই দমকলের অপেক্ষা না করেই, বিপদের আঁচ বুঝতে পেরেই, আগুন নিয়ন্ত্রণে ঝাঁপিয়ে পড়েন কেন্দ্রীয় বাহিনীর জাওয়ানরা। অবশেষে ঘন্টাখানেকের প্রচেষ্টায় নিয়ন্ত্রণে আসে সেই আগুন।

কেন্দ্রীয় বাহিনীর প্রচেষ্টাতেই রক্ষা পেল একটা গোটা কলোনির মানুষ। ৪৮ ঘণ্টার ব্যবধানে কেন্দ্রীয় বাহিনীর দুই ভিন্ন রূপ প্রত্যক্ষ করল উত্তরবঙ্গের মানুষ। এই দুই ঘটনাই অনেকদিন মনে রাখবেন সেখানকার মানুষ।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.