তামিলনাড়ু, কেরল থেকে আজ কী কী প্রকল্পের সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী, দেখ নিন একনজরে

তামিলনাড়ু, কেরল থেকে আজ কী কী প্রকল্পের সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী, দেখ নিন একনজরে
তামিলনাড়ু, কেরল থেকে আজ কী কী প্রকল্পের সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী, দেখ নিন একনজরে / ছবি সৌজন্যে- Screengrab from Facebook Video Posted By @narendramodi

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ সামনেই বিধানসভা নির্বাচন। সব রাজ্যেই এক এক করে নিজেদের ক্ষমতা প্রতিষ্ঠা করতে চাইছে বিজেপি। তাই চেষ্টার কোনও ত্রুটি রাখছে না তারা। বিধানসভা নির্বাচনের আগে তাই দক্ষিণের দুই রাজ্য তামিলনাড়ু এবং কেরলে গেলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এই দুই রাজ্যে ১১ টি প্রকল্পের সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এই দুই রাজ্যেই একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধন করলেন মোদী।

এদিন ছিল পুলওয়ামার দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি। সেই উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শ্রদ্ধা জানান পুলওয়ামা হামলার শহিদদের উদ্দেশেও। পরে ভারতীয় প্রতিরক্ষা গবেষণা সংস্থার তৈরি যুদ্ধ সাঁজোয়া, অর্জুন মেন ব্যাটল ট্যাঙ্ক তিনি তুলে দেন সেনাবাহিনীর হাতে। ডিআরডিও-র যুদ্ধযান গবেষণা সংস্থা সিভিআরডিই, ১৫টি দেশজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, আটটি গবেষণাগার যৌথ ভাবে তৈরি করেছে অর্জুন মেন ব্যাটল ট্যাঙ্ক। রবিবার এই যুদ্ধ সাঁজোয়া সেনাবাহিনীর হাতে তুলে দিয়ে মোদী বলেন যে, অটোমোবাইল প্রযুক্তির ক্ষেত্রে ইতিমধ্যেই অন্যান্য রাজ্যগুলিকে কঠিন প্রতিযোগিতায় ফেলেছে তামিলনাড়ু। আর এবার দেশকে সুরক্ষিত করতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে চলেছে তামিলনাড়ু। তামিলনাড়ুতে নির্মিত এই এই যুদ্ধ সাঁজোয়া দেশের উত্তরের সীমান্তকে সুরক্ষিত রাখতে ব্যবহার করা হবে।

উল্লেখ্য, সামনেই তামিলনাড়ু এবং কেরলে বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে রবিবার এই দুই রাজ্যে একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধন করতে গিয়ে, করোনার মোকাবিলা নিয়েও বার্তা দেন দেশবাসীর উদ্দেশে। রবিবার চেন্নাইয়ে মেট্রোর নতুন প্রকল্পের উদ্বোধনের পাশাপাশি তামিলনাড়ুর দু’টি রেলপথের সিঙ্গল লাইনের বৈদ্যুতিকরণের সূচনা করেন প্রধানমন্ত্রী। তার মধ্যে একটি বিল্লুপুরম-কাড্ডালোর-মইলাদুথুরাই-তাঞ্জাবুর বিভাগের অন্যটি মইলাদুথুরাই-তিরুভারুর বিভাগের। ২২৮ কিলোমিটার দীর্ঘ এই রেলপথের বৈদ্যুতিকরণের জন্য ৪৩৩ কোটি টাকা খরচ করেছে কেন্দ্র। এই দু’টি রেলপথের সিঙ্গল লাইনের বৈদ্যুতিকরণের ফলে রেলের প্রতিদিন ১৪.৬১ লক্ষ টাকার জ্বালানি খরচ কমবে।

এছাড়াও নিকাশি ব্যবস্থার জন্য ২৬৪০ কোটি টাকার একটি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আবার চেন্নাইয়ের নিকটে থাইয়ুরে আইআইটি মাদ্রাজের ডিসকভারি ক্যাম্পাস তৈরির জন্যে ১০০০ কোটি টাকার প্রকল্পের সূচনাও করেন মোদী।

আজ চেন্নাইয়ের জওহরলাল নেহরু স্টেডিয়ামে মোদীর সভায় হাজির ছিলেন তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী পালানিস্বামী ও উপমুখ্যমন্ত্রী ও পনিরসেলভম। এই স্টেডিয়াম থেকেই ৩৭৭০ কোটি টাকার মেট্রোরেল প্রকল্পের সূচনা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। জানা গিয়েছে যে, নতুন এই প্রকল্প চেন্নাই বিমানবন্দরকে জুড়বে শহরের উত্তরাংশ এবং সেন্ট্রাল রেলওয়ে স্টেশনের সঙ্গে।

কেরলের সংক্ষিপ্ত সফরে প্রধানমন্ত্রী কোচিন পোর্ট ট্রাস্টের আন্তর্জাতিক ক্রুজ টার্মিনাল এবং কোচিন শিপইয়ার্ডের মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের একটি ক্যাম্পাসের বিজ্ঞান সাগর উদ্বোধন করেন। এখানে একটি অনুষ্ঠানে তিনি কোচিন বন্দর ট্রাস্টের দক্ষিণ কয়লা বার্থের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন।

বর্তমানে প্রধানত আমদানি করা এক্রাইলিক অ্যাসিড, অক্সো-অ্যালকোহল এবং অ্যাক্রিলিটস উৎপাদন করবে এমন কোচি রিফাইনারি সংস্থার নিকটে অবস্থিত প্রোপিলিন ডেরিভেটিভ পেট্রোকেমিক্যাল প্রকল্পের (পিডিপিপি) উল্লেখ করে তিনি বলেন যে, এটি প্রতি বছর যথেষ্ট বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় করবে। এর পাশাপাশি কর্মসংস্থানের সুযোগ ঘটবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

উল্লেখ্য, জাতীয় জলপথ ৩-এ বোলগাট্টি এবং উইলিংডন দ্বীপের মধ্যে স্থাপন করেছে এই দুটি নতুন রোল-অন / রোল-অফ ভেসেল। এর ৬ টি ২০ ফুটের ট্রাক, তিনটি ২০ ফুটের ট্রেলার ট্রাক, তিনটি ৪০ ফুটের ট্রেলার ট্রাক বহন করার ক্ষমতা থাকবে। সঙ্গে অবশ্যই ৩০ জন যাত্রী বহনের ক্ষমতা। অভ্যন্তরীণ নৌপথ কর্তৃপক্ষ পরিচালিত এই পরিষেবাটি পরিবহন ব্যয় ও পরিবহনের সময় হ্রাসের ফলে বাণিজ্যে লাভবান হবে এবং কোচির রাস্তাগুলিতে যানজটও হ্রাস পাবে বলে উল্লেখ করা হয়।

এদিন কেরালায় প্রধানমন্ত্রীর এই অনুষ্ঠানের পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন কেরালার গভর্নর আরিফ মোহাম্মদ খান, মুখ্যমন্ত্রী পিনারই বিজয়ন এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরা ধর্মেন্দ্র প্রধান, মনসুখ এল প্রমুখ।

আরো পড়ুনঃ   SBI-তে আকর্ষণীয় অফার! চলবে ৩১ মার্চ পর্যন্ত! এই সুবিধা আপনিও নিতে পারেন , রইলো বিস্তারিত