সেপ্টেম্বরের শেষেই কি আমেরিকা সফরে মোদি? কী কী বিষয় নিয়ে বাইডেনের সঙ্গে হতে পারে বৈঠক?

সেপ্টেম্বরের শেষেই কি আমেরিকা সফরে মোদি? কী কী বিষয় নিয়ে বাইডেনের সঙ্গে হতে পারে বৈঠক?
সেপ্টেম্বরের শেষেই কি আমেরিকা সফরে মোদি? কী কী বিষয় নিয়ে বাইডেনের সঙ্গে হতে পারে বৈঠক?

চলতি মাসের শেষেই হয়তো আমেরিকা সফরে যেতে পারেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সূত্রের খবর, আমেরিকা সফরকালে জো বাইডেনের সঙ্গে আলোচনাও চালাবেন মোদি। এবছরের শুরুতে বাইডেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পরে প্রধানমন্ত্রীর এটাই প্রথম আমেরিকা সফর হতে চলেছে। যদিও সরকারি ভাবে সফরের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা এখনও করা হয়নি।

সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে জানা গিয়েছে, সেপ্টেম্বরের ২৩ বা ২৪ তারিখে আমেরিকা যেতে পারেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। গত দেড় বছরে করোনাকালীন আবহে প্রধানমন্ত্রী বড় কোনও দেশ সফরে যাননি। তবে এবার আমেরিকা সফরের সম্ভাবনা প্রবল। বর্তমানে আফগানিস্তানে তালিবানদের সরকার গঠনের প্রস্তুতি চলছে। সেক্ষেত্রে তালিবানি তাণ্ডবের মাঝেই মোদির এই সফর যথেষ্টই তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। জানা গিয়েছে, এই সফরে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট বাই়ডেনের সঙ্গে বৈঠক ছাড়াও বাইডেন প্রশাসনের শীর্ষ আধিকারিকদের সঙ্গেও মিলিত হবেন প্রধানমন্ত্রী।

এবার প্রশ্ন উঠছে বাইডেনের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর আলোচনার বিষয়বস্তু কী? সূত্রের খবর,আফগানিস্তান ও তালিবানের উত্থান নিয়ে বৈঠক বসবে। সেখানে উঠে আসতে চলেছে চিন প্রসঙ্গও। চিনকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে আমেরিকা, ভারত, জাপান ও অস্ট্রেলিয়াকে নিয়ে গড়ে ওঠা কোয়াড গোষ্ঠী নিয়েও আলোচনা হবে। আফগানিস্তানে চিন, পাকিস্তান ও রাশিয়ার প্রভাব বাড়ায় বর্তমানে কোয়াড নিয়ে বেশ তৎপর হয়ে উঠেছে আমেরিকা। পাশাপাশি ভারত ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকাও আলোচনায় উঠে আসতে পারে।

এছাড়াও সবকিছু ঠিক থাকলে সেপ্টেম্বরের ওয়াশিংটন থেকে নিউ ইয়র্কে রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ সভার অধিবেশনে শামিল হওয়ার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য ভারত। অগাস্ট মাসেই আফগানিস্তান নিয়ে বেশ কয়েকটি প্রস্তাব পাশ করা হয়ে নিরাপত্তা পরিষদে। বর্তমানে আফগানিস্তানের এই পরিস্থিতিতে রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ সভায় আলোচনায় যে তালিবানি শাসনের কথাই উঠে আসতে চলেছে, তা বেশ স্পষ্ট।