কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হলেন ত্রিপুরার ‘দিদি’ প্রতিমা! খুশি পরিজন থেকে ত্রিপুরাবাসী

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হলেন ত্রিপুরার ‘দিদি’ প্রতিমা! খুশি পরিজন থেকে ত্রিপুরাবাসী
কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হলেন ত্রিপুরার ‘দিদি’ প্রতিমা! খুশি পরিজন থেকে ত্রিপুরাবাসী

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ নরেন্দ্র মোদীর বর্ধিত নয়া মন্ত্রিসভায় জায়গা পেয়েছেন ত্রিপুরার সাংসদ প্রতিমা ভৌমিক। তাই স্বভাবতই খুশির হাওয়া ত্রিপুরায়। এই খুশির সবথেকে বড় কারণ, ভারতের ইতিহাসে, বিগত ৭৪ বছরে এই প্রথম ত্রিপুরার কোনও বাসিন্দা কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় জায়গা পেলেন। বুধবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার সম্প্রসারণের পর প্রতিমা ভৌমিক ন্যায়বিচার ও ক্ষমতায়ন মন্ত্রক-এর প্রতিমন্ত্রীর পদে দায়িত্ব পেয়েছেন।

গতকাল সম্প্রসারিত মন্ত্রিসভায় প্রতিমা ভৌমিক দায়িত্ব পাওয়ার খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই টুইট করে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। তিনি টুইট করে লেখেন, ‘ত্রিপুরার জন্য আজকের দিনটি দারুণ গর্বের। নারীশক্তিকে প্রতিনিধিত্ব করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মন্ত্রিসভায় যোগ দিচ্ছেন প্রতিমা ভৌমিকজী।’

উল্লেখ্য, এর আগেও সন্তোষ মোহন দেব ও ত্রিগুণা সেন ত্রিপুরা থেকেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রীসভায় জায়গা পেলেও, তাঁরা আদতে ত্রিপুরার বাসিন্দা ছিলেন না। সন্তোষ দেব ছিলেন শিলচর এবং অপরজন অর্থাৎ ত্রিগুণা সেন ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা। সেই দিক থেকে বিচার করলে, প্রতিমা ভৌমিক কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার প্রথম সদস্য, যিনি ত্রিপুরার বাসিন্দা।

গতবারের লোকসভা নির্বাচনে প্রথমবার ভোটে দাঁড়ান প্রতিমা দেবী। পশ্চিম ত্রিপুরার সাংসদ প্রতিমা দেবী এর আগে বিজেপির ত্রিপুরা শাখার সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন। দীর্ঘদিন ধরে রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত থাকলেও, বরাবরই প্রচারের আলো থেকে দূরে থেকেছেন তিনি। এই প্রতিমা দেবী আবার ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত। ন্যায়বিচার ও ক্ষমতায়ন মন্ত্রক-এর প্রতিমন্ত্রী প্রতিমা দেবী ত্রিপুরার উইমেন্স কলেজ থেকে বায়ো সায়েন্সে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেছেন।

রাজনীতির পাশাপাশি কৃষিকাজের সঙ্গে জড়িত প্রতিমা ভৌমিক সাধারণ মানুষের কাছে ‘প্রতিমাদি’ নামেই পরিচিত। ত্রিপুরার মানুষের মুখে দিদি নামে পরিচিত প্রতিমার জন্ম পশ্চিম ত্রিপুরার অখ্যাত বড়নারায়ণপুরে। গত তিন দশক ধরে নিষ্ঠার সঙ্গে আরএসএসের নানা দায়িত্ব পালন করে এসেছেন কৃষক পরিবারের কন্যাসন্তান প্রতিমা। তারই পুরস্কারস্বরূপ এই মন্ত্রিত্ব। ঘরের মেয়ের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হওয়ায় স্বভাবতই খুশির হাওয়া ত্রিপুরায়।

এদিকে মেয়ে নতুন দায়িত্ব পাওয়ার পর, প্রতিমা দেবীর মা কানন ভৌমিকের চোখের জল বাঁধ মানছে না। মেয়ের ছবি হাতে গর্বিত মায়ের ছবি জেটগতিতে ছড়িয়ে পড়ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ত্রিপুরাবাসীর সঙ্গে গর্বিত মা কানন দেবীও।