শনিবার, ২৯ জানুয়ারি, ২০২২

এক ধাক্কায় আরও মহার্ঘ্য রান্নার গ্যাস, বাড়ল ভর্তুকিহীন সিলিন্ডারের দাম! মাথায় হাত ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের

০১:৩২ পিএম, ডিসেম্বর ১, ২০২১

এক ধাক্কায় আরও মহার্ঘ্য রান্নার গ্যাস, বাড়ল ভর্তুকিহীন সিলিন্ডারের দাম! মাথায় হাত ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের

ফের মহার্ঘ্য হচ্ছে বাণিজ্যিক রান্নার গ্যাসের দাম। আজ, ১ ডিসেম্বর থেকেই ভর্তুকিহীন গ্যাস সিলিন্ডারের উপর বাড়ানো হল ১০৩ টাকা ৫০ পয়সা দাম। অর্থাৎ আজ থেকে ভর্তুকিহীন রান্নার গ্যাস অর্থাৎ ১৯ কেজির গ্যাস সিলিন্ডারের দাম বেড়ে দাঁড়াচ্ছে ২,১৭৭ টাকা। ফলে মাথায় হাত পড়েছে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের।

আজ, বুধবার থেকে বাণিজ্যিক গ্যাসের বর্ধিত এই দাম কার্যকর হবে। ঠিক এক মাসে আগেই পুজোর সময় প্রায় ২৭০ টাকা দাম বেড়েছিল বাণিজ্যিক গ্যাসের। সে সময় ১৯ কেজি সিলিন্ডারের দাম এক ধাক্কায় ৩৫ টাকা বাড়ানো হয়েছিল। তখন মূল্যবৃদ্ধির কলকাতায় ১৯ কেজির বাণিজ্যিক রান্নার গ্যাসের সিলিন্ডারের দাম দাঁড়িয়েছিল ১ হাজার ৮০৫ টাকা ৫০ পয়সা। এবার ডিসেম্বরের শুরুতেই ফের ১০০ টাকারও বেশি বাড়ানো হল ভর্তুকিহীন গ্যাসের দাম। ফলে হোটেল ব্যবসায়ী বা বিভিন্ন ব্যবসার কারণে গ্যাস ব্যবহারকারীদের কপালে চিন্তার ভাঁজ বাড়ল।

তবে মধ্যবিত্তের জন্য স্বস্তির খবর, বাড়ির হেঁসেলে রান্নার কাজে ব্যবহৃত ১৪ কেজি সিলিন্ডারের দাম বাড়ানো হয়নি। ১৪.২ কেজি ওজনের ভর্তুকিযুক্ত রান্নার গ্যাস অর্থাৎ বাড়ির রান্নার গ্যাসের দাম ৯২৬ টাকাই থাকছে। সাধারণত প্রতি মাসের শুরুতেই গ্যাসের দাম বাড়ানো হয়ে থাকে। এক্ষেত্রে বুধবার বাড়ির রান্নার গ্যাসের দাম হয়নি। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, এই মাসে সম্ভবত আর সেই দাম বাড়বে না।

উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই জল্পনা উঠেছিল যে সরকারের তরফে গ্যাসে ভর্তুকির বিষয়ে বেশ কয়েকবার আলোচনা হয়েছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত কোনও পরিকল্পনা করা যায়নি। বিভিন্ন সর্বভারতীয় মিডিয়ার রিপোর্ট অনুযায়ী, সরকারের কাছে দুটি বিকল্প রয়েছে। এক, বিনা ভর্তুকিতে সিলিন্ডার সরবরাহ করা ও দুই, কিছু গ্রাহককে ভর্তুকি দেওয়া। যদিও ভর্তুকি নিয়ে সরকারের তরফ থেকে এখনও কিছু পরিস্কার করা হয়নি।

সরকারের তরফে খবর সূত্রে, এখনও পর্যন্ত ১০ লাখ টাকা আয়ের নিয়মই বিজায় থাকবে। উজ্বলা যোজনার অধীনে থাকা গ্রাহকরা ভর্তুকি পাবেন। বাকিদের ভর্তুকি বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে। তবে এ বিষয়ে এখনও স্পষ্ট কিছু জানা যায়নি। বর্তমানে ভারতে প্রায় ২৯ কোটির বেশি মানুষের কাছে এলপিজি কানেকশন রয়েছে। এর মধ্যে উজ্বলা যোজনার অধীনে রয়েছে প্রায় ৮.৮ কোটি এলপিজি কানেকশন। ২০২২ অর্থবর্ষে, এই যোজনার অধীনে আরও এক কোটি কানেকশন যোগ করার পরিকল্পনা করছে সরকার।