আত্মনির্ভর ভারত-এর অংশীদার হওয়ার জন্য সুযোগ দেওয়া হবে বেসরকারি ক্ষেত্রকেও, ঘোষণা মোদীর

আত্মনির্ভর ভারত-এর অংশীদার হওয়ার জন্য সুযোগ দেওয়া হবে বেসরকারি ক্ষেত্রকেও, ঘোষণা মোদীর
আত্মনির্ভর ভারত-এর অংশীদার হওয়ার জন্য সুযোগ দেওয়া হবে বেসরকারি ক্ষেত্রকেও, ঘোষণা মোদীর / ছবি সৌজন্যে- Screengrab from Facebook Video Posted By @narendramodi

বংনিউজ২৪x৭ডিজিটাল ডেস্কঃ আত্মনির্ভর ভারত’-এর স্লোগানকে সফল করতে বেসরকারি ক্ষেত্রকে সহযোগিতা করার কথা বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আজ নীতি আয়োগের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ঘোষণা করেন যে, ‘আত্মনির্ভর ভারত’-এর অংশীদার হওয়ার জন্য বেসরকারি ক্ষেত্রগুলিকে সবরকম সহযোগিতা করা হবে।

আজ নীতি আয়োগের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন যে, দেশের অর্থনৈতিক উন্নতির জন্য বেসরকারি ক্ষেত্রের প্রতিও দেশের সরকারকে শ্রদ্ধাশীল এবং সহানুভূতিশীল হতে হবে। বেসরকারি ক্ষেত্রকে প্রতিনিধিত্ব করার জন্য যথাযথ সুযোগ দিতে হবে। তাঁদের সঙ্গে সহযোগিতা করতে হবে। এপ্রসঙ্গে পুরনো আইন বাতিল করে, নতুন আইন প্রণয়ন এবং আইন সংস্কারের কথাও বলেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি আজকের বৈঠকে কেন্দ্র এবং রাজ্যের মধ্যে সমন্বয়ের পক্ষে সওয়াল করেন। তিনি আরও বলেন, অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য কেন্দ্র-রাজ্য একযোগে কাজ কয়রা উচিত।

এ প্রসঙ্গে ২০২১-২২ অর্থবর্ষের বাজেটের কথাও উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী। নরেন্দ্র মোদী বলেন যে, আগামী দিনে দেশের আর্থিক উন্নতির জন্য কেন্দ্র এবং রাজ্যের বাজেটেও সমন্বয় রাখা উচিত। প্রধানমন্ত্রী বলেন, কেন্দ্রীয় সরকারের প্রকল্প বুঝে, সেই অনুযায়ী, প্রত্যেক রাজ্যের বাজেট করা উচিত। আজকের নীতি আয়োগের বৈঠকে মোদীর বাজেট সংক্রান্ত এই মন্তব্যকে ঘিরে ইতিমধ্যেই বিতর্ক শুরু হয়ে গেছে। নরেন্দ্র মোদীর এই প্রস্তাবের বিরোধিতা করে তৃণমূল কংগ্রেস এবং বামেদের দাবি, প্রধানমন্ত্রীর এই প্রস্তাব দেশের যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোয় আঘাত করেছে।

এদিনের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করেন যে, করোনাকালে কেন্দ্র ও রাজ্যের সরকারগুলি যেভাবে যৌথভাবে কাজ করেছে, তা গোটা বিশ্বের সামনে ভারতের আলাদা একটা ভাবমূর্তি তৈরি করেছে।

অন্যদিকে আজকের নীতি আয়োগের বৈঠকে কৃষির উন্নয়ন, কৃষিজ পণ্যের উৎপাদন বৃদ্ধি, মানবসম্পদ উন্নয়ন, স্বাস্থ্য পরিষেবা প্রভৃতি বিষয়গুলি নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কেন্দ্রের ক্ষমতায় আসার পর, যোজনা কমিশন ভেঙে নীতি আয়োগ গঠন করে মোদী সরকার। আজকের নীতি আয়োগের বৈঠকে যোগ দেন দেশের বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির লেফটেন্যান্ট গভর্নরেরা। তবে আজকের বৈঠকে যোগ দেননি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং। উল্লেখ্য, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের পরিবর্তে মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় আজ বৈঠকে যোগ দেবেন বলে শুক্রবার জানা গেলেও, শেষপর্যন্ত রাজ্যের তরফে কেউ-ই উপস্থিত ছিলেন না এই বৈঠকে।