ভারতীয় দলের পরবর্তী কোচ কি দ্রাবিড়? অবশেষে পাওয়া গেল জল্পনার উত্তর

ভারতীয় দলের পরবর্তী কোচ কি দ্রাবিড়? অবশেষে পাওয়া গেল জল্পনার উত্তর
ভারতীয় দলের পরবর্তী কোচ কি দ্রাবিড়? অবশেষে পাওয়া গেল জল্পনার উত্তর

ভারতীয় সিনিয়র দলের পরবর্তী কোচ কি রাহুল দ্রাবিড়? অবশেষে মিলল এ জল্পনার উত্তর। যাবতীয় আলোচনা থামালেন দ্রাবিড় নিজেই৷ কারণ, তিনি ফের ন্যাশানাল ক্রিকেট অ্যাকাডেমির প্রধান পদে বহাল থামার জন্য আবেদন জানালেন। আশ্চর্যের বিষয় এই যে, সময়সীমা শেষ হয়ে গেলেও দ্রাবিড় ছাড়া আর কোনও নামী মুখই NCA প্রধান পদের জন্য আবেদন করেননি। তাই প্রধান হওয়ার দৌড়ে আপাতত রয়েছেন শুধু দ্রাবিড়ই। এর থেকেই বেশ স্পষ্ট যে, ভারতের হেড কোচ হওয়ার জন্য এখনই মাথা ঘামাচ্ছেন না ‘দ্য ওয়াল’।

বর্তমানে বেঙ্গালুরুতে অবস্থিত জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমির প্রধান হিসাবে রয়েছেন রাহুল দ্রাবিড়। তবে যেহেতু তাঁর চুক্তির মেয়াদ শেষ হচ্ছে এবং তা বাড়ানোর উপায় নেই, তাই নতুন প্রধানের জন্য বিজ্ঞপ্তি জারি করেছিল BCCI। তবে সেখানে শুধুমাত্র দ্রাবিড়ই ফের আবেদন জানান। তাই একপ্রকার বাধ্য হয়েই সময়সীমা বাড়িয়েছে বোর্ড। এরপরও যদি কোনও ভরসাযোগ্য মুখ আবেদন না করেন তাহলে নিঃসন্দেহে ফের একবার ভারতের ‘মিস্টার ডিপেন্ডেবল’র হাতেই উঠবে দেশের তরুণ প্রজন্মের দায়িত্ব।

তবে রাহুল যদি ফের এনসিএ’র প্রধান হন, তাতে বেশ খুশিই হবে বোর্ড। কারণ, তাঁর আমলেই গত দু’বছরে দারুণ কাজ করেছে ন্যাশনাল ক্রিকেট অ্যাকাডেমি। একাধিক তরুণ ক্রিকেটারের ভবিষ্যৎ গড়েছে। তাই রাহুলের ফের এনসিএ প্রধান হওয়া যেন সময়েরই অপেক্ষা। এই প্রসঙ্গে বোর্ডের এক কর্তা জানিয়েছেন, “দ্রাবিড় ফের হেড অফ ক্রিকেটের পদে আবেদন করেছেন। এটা আন্দাজ করাই যায় যে, দ্রাবিড়ই ফের নির্বাচিত হতে চলেছেন। তিনিই এই পদে কাজ চালিয়ে যাবেন, এটা জানার জন্য জিনিয়াস হতে লাগবে না। এনসিএর ভোল বদলে দেওয়ার জন্য দ্রাবিড় ইতিমধ্যেই অনেক কাজ করেছেন।”

প্রসঙ্গত, আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পরই ভারতীয় সিনিয়র দলের কোচ রবি শাস্ত্রীর চুক্তির মেয়াদ সমাপ্ত হচ্ছে। সে খবর সামনে আসতেই জল্পনা চলছিল তাহলে এবার দ্রাবিড়কে সিনিয়র দলের কোচ হিসাবে দেখা যেতে চলেছে? এই নিয়ে বেশ আলোচনাও শুরু হয়ে গিয়েছিল চারপাশে। এরই মধ্যে দ্রাবিড়ের কোচিংয়ে শ্রীলঙ্কায় দ্বিতীয় সারির ভারতীয় দল নিয়ে গিয়ে ওয়ান ডে সিরিজে জয় এসেছে। টি-২০ সিরিজ হারলেও কোচ রাহুল দ্রাবিড়ের কোচিং ও মানসিকতার প্রশংসা ফিরেছিল মুখে মুখে। তাই দ্রাবিড়ের সিনিয়র দলের কোচ হওয়া নিয়ে অনেকেই আশার আলো দেখেছিলেন। তবে এনসিএ’র প্রধান পদে আবেদন করে সে জল্পনায় জল ঢেলে দিলেন দ্রাবিড় স্বয়ং।