ভাগীরথী নদীতে মিললো বিরল প্রজাতির মাছ! ওজন প্রায় ২০ কেজি

ভাগীরথী নদীতে মিললো বিরল প্রজাতির মাছ! ওজন প্রায় ২০ কেজি
ভাগীরথী নদীতে মিললো বিরল প্রজাতির মাছ! ওজন প্রায় ২০ কেজি

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ নদিয়াঃ মলয় দেঃ বাঙালিদের প্রিয় খাদ্যের তালিকায় রয়েছে মাছ। মাছ কে শুভ বলেই মানা হয়। যেকোনো শুভ অনুষ্ঠানে খাবারের মেনুতে মাছ থাকাটা অত্যন্ত আবশ্যক। আমরা বাঙালিরা মাছপ্রেমী তা বলাই যায়। আর আমাদের এই প্রিয় খাদ্য আমাদের কাছে পৌঁছে দেন মৎস্যজীবীরা। তারা নদী, সমুদ্র, পুকুর ইত্যাদি জায়গা থেকে মাছ ধরেন, আর সেই মাছ আসে আমাদের কাছে। আবার নানা সময় মৎস্যজীবীদের হাতে ধরা পরে বেশি ওজনের বিরল মাছও। সেই মতই এবার ভাগীরথী নদী থেকে মৎস্যজীবীদের হাতে এলো এক বিরল মাছ।

প্রসঙ্গত ভাগীরথী নদী থেকে মৎস্যজীবীদের জালে ধরা পরল প্রায় কুঁড়ি কেজি ওজনের এক বিরল প্রজাতির মাছ। তবে মাছটির গায়ে ভারতীয় জাওয়ানদের পোশাকের ছাপ থাকায় মৎস্যজীবীরা মাছটির নাম দিয়েছেন মেলেটারি মাছ। শান্তিপুর স্টিমার ঘাট ভাগীরথী নদীতে ধরা পড়ে এই বিরল মাছ।

ভাগীরথী নদীতে মিললো বিরল প্রজাতির মাছ! ওজন প্রায় ২০ কেজি
ভাগীরথী নদীতে মিললো বিরল প্রজাতির মাছ! ওজন প্রায় ২০ কেজি

বৃহস্পতিবার সকালে প্রতিদিনের মতো মৎস্যজীবীরা মাছ ধরতে জাল পাতে নদীতে, জাল টানার সময় লক্ষ্য করেন একটি ১০ কেজি ওজনের রুই মাছ জালে বেঁধে রয়েছে। এরপরই মৎস্যজীবীদের নজরে পড়ে জালে আটকে রয়েছে বিশাল আকৃতির একটি মাছ, জাল টেনে নৌকায় তুলতেও হিমশিম খায় মৎস্যজীবীরা। নৌকায় তোলার পর দেখা যায় মাছটির গায়ে মেলেটারি পোশাকের ছাপ।

ভাগীরথী নদীতে মিললো বিরল প্রজাতির মাছ! ওজন প্রায় ২০ কেজি
ভাগীরথী নদীতে মিললো বিরল প্রজাতির মাছ! ওজন প্রায় ২০ কেজি

মৎস্যজীবীরা জানান মাছটির ওজন প্রায় কুড়ি কেজি স্বভাবতই এই ধরনের মাছ এর আগে কখনো ভাগীরথী নদীতে দেখা যায়নি। খবর ছড়াতেই স্টিমার ঘাট এলাকার প্রতি কেজি ২০০ টাকা করে এক বাসিন্দা মাছটি কিনে নেন। বিরল প্রজাতির এই মাছটিকে দেখার জন্য স্থানীয়রাও ভিড় জমান ভাগীরথী নদীর ধারে।