আধার কার্ডের সঙ্গে রেশন কার্ডের সংযুক্তিকরণ প্রসঙ্গে কড়া নির্দেশ নবান্নের, দেওয়া হল তিন মাসের সময়সীমা

আধার কার্ডের সঙ্গে রেশন কার্ডের সংযুক্তিকরণ প্রসঙ্গে কড়া নির্দেশ নবান্নের, দেওয়া হল তিন মাসের সময়সীমা
আধার কার্ডের সঙ্গে রেশন কার্ডের সংযুক্তিকরণ প্রসঙ্গে কড়া নির্দেশ নবান্নের, দেওয়া হল তিন মাসের সময়সীমা

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ আগামী তিন মাসের মধ্যে আধার কার্ডের সঙ্গে রেশন কার্ডের লিঙ্ক করিয়ে ফেলতে হবে। এমনটাই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে নবান্নের তরফে। বলা হয়েছে, আগামী ১ জুলাই থেকে শুরু করা হবে বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে, আধার কার্ডের সঙ্গে ডিজিটাল রেশন কার্ডের লিঙ্ক করার কাজ।

জানা গিয়েছে, একটি সংস্থাকে এই কাজের দায়িত্ব দেওয়া হবে। প্রত্যেক জেলার জেলাশাসককে ওই সংস্থার সঙ্গে সহযোগিতা করতে হবে। এই মর্মেই এবার প্রত্যেক জেলায় নির্দেশিকা পাঠানো হল। উল্লেখ্য, মঙ্গলবারই এক দেশ এক রেশন কার্ড চালু করার জন্য কেন্দ্রের পাশাপাশি রাজ্যগুলিকেও নির্দেশ দিয়েছে দেশের শীর্ষ আদালত। ৩১ জুলাই পর্যন্ত সুপ্রিম কোর্ট এই কাজের জন্য সময়সীমা বেঁধে দিয়েছে। এরই মধ্যে এদিনই নবান্নে জেলাশাসকদের সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠকে এই কড়া নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য খাদ্য দফতর।

এদিনের নির্দেশে বলা হয়েছে যে, ‘বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে আধার কার্ডের সঙ্গে ডিজিটাল রেশন কার্ডের লিঙ্ক করা হবে। প্রথম দফায় বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে লিঙ্ক করা হবে। এরপর দ্বিতীয় দফায়, বাংলা সহয়তা কেন্দ্র থেকে এই কাজ হবে, যাঁদের প্রথম দফায় বাড়িতে যাওয়া যাবে না, তাঁদের জন্য। মঙ্গলবার খাদ্য দফতরের সচিব একটি ভিডিও কনফারেন্স করেন রাজ্যের সব জেলাশাসকদের সঙ্গে। সেই বৈঠকেই এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলেই নবান্ন সূত্রে খবর।

উল্লেখ্য, বাজারে একাধিক জাল রেশন কার্ড রয়েছে। তা নির্মূল করতেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগেই জানিয়েছিলেন যে, আধার কার্ডের সঙ্গে রেশন কার্ডের লিঙ্ক করতে হবে। সেই সংযুক্তিকরণের কাজই শুরু হচ্ছে আগামী ১ জুলাই থেকে। যে সংস্থা এই কাজ করবে, সেই সংস্থাকে সবরকমভাবে সাহায্য করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে জেলাশাসকদের।

এদিনের এই ভিডিও কনফারেন্সে জেলাশাসকদের বলা হয়েছে যে, দুয়ারে রেশন নিয়ে সরকার গাইডলাইন তৈরির কাজ শুরু করেছে। তবে, তার আগে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় আধার কার্ডের সঙ্গে ডিজিটাল রেশন কার্ডের লিঙ্ক করার কাজ শেষ করতে হবে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, দেশের শীর্ষ আদালতের পক্ষ থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, ১ মাসের মধ্যেই দেশজুড়ে ‘এক দেশ, এক রেশন কার্ড’ ব্যবস্থা চালু করতে হবে। এর পাশাপাশি দেশে অতিমারি পরিস্থিতি শেষ না হওয়া পর্যন্ত পরিযায়ী শ্রমিকদের বিনামূল্যে রেশন মারফৎ শুকনো খাবার দেওয়ার জন্যও কেন্দ্রকে স্পষ্ট নির্দেশ দেওয়া হয়েছে দেশের শীর্ষ আদালতের পক্ষ থেকে। নির্দেশে বলা হয়েছে, ন্যাশনাল ইনফরমেটিক্স সেন্টারের সহায়তায় অসংগঠিত ক্ষেত্রে নিযুক্ত পরিযায়ী শ্রমিকদের ডেটাবেস সংগ্রহ করে পোর্টাল বানাতে হবে। পাশাপাশি প্রত্যেক রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে কমিউনিটি কিচেনের ব্যবস্থা করতে হবে পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য। এছাড়াও বলা হয়েছে, পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য নানা কল্যাণমূলক উদ্যোগ নিতে হবে।