শনিবার, ২৯ জানুয়ারি, ২০২২

শোভনের ছেড়ে যাওয়া ওয়ার্ডের টিকিট পেলেন রত্না

১০:২৬ পিএম, নভেম্বর ২৬, ২০২১

শোভনের ছেড়ে যাওয়া ওয়ার্ডের টিকিট পেলেন রত্না

স্বামী শোভন চট্টোপাধ্যায় মেয়র পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার পরেই ওয়ার্ডের দায়িত্ব নিজের হাতে সামলেছেন রত্না চট্টোপাধ্যায়। শোভন বাবুর সঙ্গে রাজনীতির দূরত্ব যত বাড়তে শুরু করেছে ঠিক ততই শোভন চট্টোপাধ্যায়ের ১৩১ নম্বর ওয়ার্ডবাসীর কাছাকাছি আসতে শুরু করেছিলেন রত্না চট্টোপাধ্যায়। এবার সেই রত্না চট্টোপাধ্যায়কেই শোভন চট্টোপাধ্যায়ের ছেড়ে যাওয়া ১৩১ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এর টিকিট দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন তৃণমূলের পুরভোটের প্রার্থী তালিকা প্রকাশের পর দেখা যায় ১৩১ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূলের তরফ থেকে টিকিট দেওয়া হয়েছে রত্না চট্টোপাধ্যায়কে। শোভন চট্টোপাধ্যায় ইস্তফা দেওয়ার পর থেকেই এই ওয়ার্ডের যাবতীয় দায়িত্ব সামলেছেন রত্না দেবী একাই। তাই তিনি যে এবার কাউন্সিলরের টিকিট পাবেন সেই বিষয়টি খানিকটা প্রত্যাশিত ছিল।

এদিকে টিকিট পেয়ে রত্না চট্টোপাধ্যায় জানান, "আমি চার বছর ধরে এই ওয়ার্ডের হাল ধরেছি। ওয়ার্ড এর সঙ্গে এতটাই আত্মিকভাবে জড়িয়ে গেছি যে আমার কখনও মনে হয়নি আমি কাউন্সিলর নই। এই ওয়ার্ডের মানুষের সঙ্গে আমার ঘনিষ্ঠতা সবাই জানে। ওয়ার্ডবাসী জানেন কারুর কোন অসুবিধা হলে রত্নাদি আছেন।" তিনি আরও বলেন, "আমার আশা ছিল ১৩১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হব। আমাকে সেই টিকিট দেওয়ার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে আমি কৃতজ্ঞ।"

২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে জিতে বিধায়ক হয়েছেন রত্নাদেবী। এ বিষয়ে তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। কিন্তু তার আগে ২০১৮ থেকেই ১৩১ নম্বর ওয়ার্ডের দায়িত্ব সামলে আসছেন তিনি। সেই সময় কোনরকম পদ না থাকলেও স্বামীর ছেড়ে যাওয়া ওয়ার্ডের যাবতীয় খুঁটিনাটি দায়িত্ব সামলেছেন তিনি। তাই দল যে তাকে ওই ওয়ার্ডের দায়িত্ব নেওয়ার জন্য এবার আনুষ্ঠানিকভাবে টিকিট দিতেই সে বিষয়টি খানিকটা জানাই ছিল।