মালদায় স্কুল যাওয়ার পথে গুরুতর জখম শিক্ষক! সিভিক ভলান্টিয়ারের তৎপরতায় ফিরে পেলেন প্রাণ

মালদায় স্কুল যাওয়ার পথে গুরুতর জখম শিক্ষক! সিভিক ভলান্টিয়ারের তৎপরতায় ফিরে পেলেন প্রাণ / নিজস্ব চিত্র
মালদায় স্কুল যাওয়ার পথে গুরুতর জখম শিক্ষক! সিভিক ভলান্টিয়ারের তৎপরতায় ফিরে পেলেন প্রাণ / নিজস্ব চিত্র

বেহাল রাস্তার জন্য প্রায় নিত্যদিনই দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ। এবার একই ঘটনা ঘটল মালদাতেও। সম্প্রতি স্কুল যাওয়ার পথে পড়ে গিয়ে গুরুতর জখম হলেন মালদা ইংরেজবাজারের বাসিন্দা দীপক কুমার মণ্ডল (৬০)। তবে সিভিক ভলান্টিয়ারের সহায়তায় প্রান ফিরে পেলেন তিনি। তিনিই দীপকবাবুকে হাসপাতালে ভর্তি করেন।

ঘটনাটি ঘটেছে, মালদা মানিকচক রাজ্য সড়কের ওপর সেকেন্দরপুরের কাছে। পেশায় দীপকবাবু মোহনপুর প্রাথমিক স্কুলের প্রধান শিক্ষক। স্কুল যাওয়ার রাস্তায় বাইক নিয়ে পড়ে গিয়েই ঘটে এই বিপত্তি। মাথায় গুরুতর চোটও পান তিনি। যদিও সেসময় পথচারীদের কেউই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেননি বলে অভিযোগও তুলেছেন দীপকবাবু।

এই সময়ই ইংরেজবাজার থানার কর্তব্যরত সিভিক ভলান্টিয়ার হীরণ্ময় ঘোষের নজরে আসে বিষয়টি। তিনি গিয়ে দীপকবাবুকে উদ্ধার করে মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে দেন। হীরণ্ময় জানান, “ওই প্রধান শিক্ষক গুরুতর আহত অবস্থায় রাস্তায় পড়ে থাকলেও কেউ এগিয়ে আসেননি। আমি দেখামাত্র একটি গাড়ি দাঁড় করিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করি। দেরি হলে তার প্রাণসংশয় হতে পারত।”

প্রসঙ্গত, মালদা মানিকচক রাজ্য সড়কের বেহাল দশার কারণে নিত্যদিনই দূর্ঘটনা লেগে থাকে বলে অভিযোগ তুলেছেন নিত্যযাত্রীরা। ইতিমধ্যেই তা নিয়ে বেশ কয়েকবার ক্ষোভও উগড়ে দিয়েছেন তাঁরা। যদিও সে রাস্তার হাল কবে ফিরবে, সঠিকভাবে তা কেউই জানেন না।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.