অনলাইন প্রতারণার হাত থেকে বাঁচতে ডিজিটাল লেনদেনের ক্ষেত্রে কড়া সতর্কতা জারি SBI-এর!

অনলাইন প্রতারণার হাত থেকে বাঁচতে ডিজিটাল লেনদেনের ক্ষেত্রে কড়া সতর্কতা জারি SBI-এর!
অনলাইন প্রতারণার হাত থেকে বাঁচতে ডিজিটাল লেনদেনের ক্ষেত্রে কড়া সতর্কতা জারি SBI-এর!

ব্যাঙ্কের নামে সাইবার জালিয়াতির নানা অভিযোগ উঠছে চারপাশে। যা নিয়ে রীতিমতো চিন্তায় পড়ছেন সাধারণ মানুষ। অনলাইন মাধ্যমে বিভিন্ন সময়ই ব্যাঙ্কের গ্রাহকেরা প্রতারণার শিকার হন৷ সেই সব ফাঁদে পা দিলেই অ্যাকাউন্ট থেকে গায়েব হয়ে যেতে পারে টাকা৷ তাই এবার নিজের গ্রাহকদের পাশে দাঁড়াতে এগিয়ে এল স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (SBI)। অনলাইন প্রতারণার বিরুদ্ধে গ্রাহকদের দিল কড়া সতর্ক বার্তা।

সাইবার জালিয়াতির ব্যাপারে প্রায়শই নানা ধরনের অ্যালার্ট এসএমএসের মাধ্যমে গ্রাহকদের সচেতন করে থাকে SBI কর্তৃপক্ষ। এ ব্যাপারে SBI-এর বার্তা, এখন বেশ কয়েকটি ব্যাঙ্কিং পরিষেবাতেই নানা ধরনের অনলাইন পদ্ধতির সাহায্য নেওয়া হচ্ছে। যা বেশ নিরাপদ। তবে তা সত্ত্বেও একাধিক প্রযুক্তিগত ফাঁক-ফোঁকর রয়েছে। যার ফলে মুশকিলে পড়ছেন গ্রাহকেরা। । বহু গ্রাহকই ফোনে ব্যাঙ্কিং পিন, ডেবিট কার্ড বা ক্রেডিট কার্ডের তথ্য, পাসওয়ার্ড, CVV সেভ করে রাখেন। এর ফলে সহজেই কোনও ডিজিটাল ফ্রড বা সাইবার প্রতারণার কবলে পড়েন তাঁরা।

অনলাইন প্রতারণার হাত থেকে বাঁচতে ডিজিটাল লেনদেনের ক্ষেত্রে কড়া সতর্কতা জারি SBI-এর!
অনলাইন প্রতারণার হাত থেকে বাঁচতে ডিজিটাল লেনদেনের ক্ষেত্রে কড়া সতর্কতা জারি SBI-এর!

এসব থেকে বাঁচতে তাই ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের পরামর্শ, কম্পিউার, ল্যাপটপ, মোবাইল বা এই জাতীয় কোনও ডিভাইজে কোনও গোপন পাসওয়ার্ড, পিন বা নথি সেভ না রাখার। গ্রাহকদের এও অনুরোধ করা হয়েছে, যাতে তাঁরা সেই ডিভাইজগুলি থেকে অবিলম্বে ব্যাঙ্ক সংক্রান্ত গোপনীয় তথ্য বা নথি ডিলিট করে দেন। পাশাপাশি টাকা লেনদেনের ক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরনের অ্যাপের সাহায্য না নেওয়ারও পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। না হলেই ঘটে যেতে পারে বড় কোনও বিপদ।

শুধু SBI-ই নয়, একই কারণে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া এবং অন্যান্য বেশ কয়েকটি ব্যাঙ্কও সতর্কতা জারি করেছে। নির্দিষ্ট সময় অন্তর এসএমএসের মাধ্যমে সাবধান করার কাজও চলছে। প্রসঙ্গত, আজকাল বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই অনলাইনের মাধ্যমে কোনও কাজকর্ম সারতে পছন্দ করছেন মানুষ। অনলাইন প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার বৃদ্ধি পাওয়ার পাশাপাশিই বাড়ছে ডিজিটাল ফ্রড ও সাইবার ক্রাইমের মতো ঘটনাও। সেসবের হাত থেকে গ্রাহকদের বাঁচাতেই সতর্কতা জারি বিভিন্ন ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.