ব্যাঙ্কের নাম করে ভুয়ো নম্বর থেকে ফোন! প্রতারণার ফাঁদ এড়াতে গ্রাহকদের সতর্ক করল SBI

ব্যাঙ্কের নাম করে ভুয়ো নম্বর থেকে ফোন! প্রতারণার ফাঁদ এড়াতে গ্রাহকদের সতর্ক করল SBI / প্রতীকী ছবি
ব্যাঙ্কের নাম করে ভুয়ো নম্বর থেকে ফোন! প্রতারণার ফাঁদ এড়াতে গ্রাহকদের সতর্ক করল SBI / প্রতীকী ছবি

ব্যাঙ্কের নাম করে প্রায়শই নানা জালিয়াতির অভিযোগ উঠছে চারপাশে। যা নিয়ে রীতিমতো চিন্তায় পড়ছেন সাধারণ মানুষ। বিশেষ করে অনলাইন মাধ্যম বা ভুয়ো ফোন কলের মাধ্যমে বিভিন্ন সময়ই ব্যাঙ্কের গ্রাহকেরা প্রতারণার শিকার হন৷ সেই সব ফাঁদে পা দিলেই অ্যাকাউন্ট থেকে গায়েব হয়ে যেতে পারে টাকা৷ তাই নিজের গ্রাহকদের পাশে দাঁড়াতে ফের এগিয়ে এল দেশের অন্যতম বৃহৎ ব্যাঙ্কিং সংস্থা স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (SBI)। অনলাইন প্রতারণা বা ভুয়ো ফোন কলের বিরুদ্ধে গ্রাহকদের দিল কড়া সতর্কবার্তা।

সম্প্রতি ব্যাঙ্কের তরফে ট্যুইট করে জানানো হয়েছে, গুগল সার্চ ইঞ্জিনে ‘State Bank Customer Care’ নম্বর বলে থাকা ফোন নম্বরে কল করলে প্রতারণার ফাঁদে জড়াতে পারেন গ্রাহকেরা। ভুয়ো কাস্টমার কেয়ার নম্বর থেকে সতর্ক থাকার বার্তা দিয়ে এও জানানো হয়েছে, সঠিক কাস্টমার কেয়ার নম্বর পেতে SBI-এর official website-এ খোঁজ করার কথা। স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার বেশ কয়েকটি কাস্টোমার কেয়ার নম্বর রয়েছে। সেগুলি হল 1800 1234, 1800 11 2211, 1800 425 3800- এই তিনটিই টোল ফ্রি নম্বর। এছাড়া কোনও অ্যাকাউন্টের গ্রাহক যদি নিজে লেনদেন না করেন, সেক্ষেত্রে যদি কোনও ভাবে লেনদেন দেখায়, তবে 94491 12211 নম্বরে ফোন করে অভিযোগ জানাতে পারেন গ্রাহকেরা।

ব্যাঙ্কের নাম করে ভুয়ো নম্বর থেকে ফোন! প্রতারণার ফাঁদ এড়াতে গ্রাহকদের সতর্ক করল SBI / প্রতীকী ছবি
ব্যাঙ্কের নাম করে ভুয়ো নম্বর থেকে ফোন! প্রতারণার ফাঁদ এড়াতে গ্রাহকদের সতর্ক করল SBI / প্রতীকী ছবি

SBI-এর সতর্কবার্তায় আরও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, যাতে কোনও ব্যক্তির সঙ্গে ফোনে ব্যাঙ্কিং সংক্রান্ত কোনও গোপনীয় তথ্য শেয়ার না করেন গ্রাহক। কেউ যেন কোনও পরিস্থিতিতেই কোনও ফোন কলে নিজেদের অ্যাকাউন্ট নম্বর বা ডেবিট কার্ড নম্বর না জানান। গ্রাহকদের সতর্ক করে বলা হয়েছে, কেউ ফোনে বা মেসেজে নিজেকে ব্যাঙ্ককর্মী বলে দাবী করে কোনও নম্বর বা ব্যক্তিগত তথ্য জানতে চাইলে খবরদার তা শেয়ার করবেন না। এই ফাঁদে পা দিলেই ঘটবে চরম বিপদ! অ্যাকাউন্ট থেকে খোয়া যেতে পারে মোটা অঙ্কের টাকা। আদতে ব্যাঙ্ক কখনই এ সব তথ্য জানতে চায় না। শুধু ফোন নয়, ইমেইল বা এসএমএসের মাধ্যমেও এসব তথ্য কখনও চাওয়া হবে না বলে ব্যাঙ্কের তরফে দাবী। তাই গ্রাহকদের নিজস্ব পাসওয়ার্ড, ওটিপি, সিভিভি, কার্ড নম্বর ইত্যাদি না দেওয়ারও অনুরোধ জানিয়েছে SBI।

পাশাপাশি এটিএম জালিয়াতির থেকেও গ্রাহকদের সতর্ক করে SBI জানিয়েছে, এটিএমের মাধ্যমে বেশি অঙ্কের টাকা তুলতে গেলেই এবার বাধ্যতামূলক মোবাইল নম্বরও। অর্থাৎ এবার থেকে কোনও গ্রাহক যদি এটিএমে ১০ হাজার বা তার বেশি পরিমাণ অর্থ তুলতে যান, তাহলে তাঁকে ব্যাঙ্কের সঙ্গে সংযুক্ত মোবাইল নম্বরটিও সঙ্গে রাখতে হবে। ১০ হাজারের বেশি টাকা তোলবার সময় ওই মোবাইল নম্বরে একটি ওটিপি আসবে। তা ব্যবহার করেই টাকা তোলা যাবে। একইসঙ্গে ভুয়ো E-mail ID-এর ব্যাপারেও ব্যাঙ্কের তরফে সতর্ক করে জানানো হয়েছে, ইন্টারনেট থেকে পাওয় কোনও ই-মেল আইডিতে ব্যাঙ্কের ডিটেইলস কখনই যেন না পাঠান গ্রাহক। কোনও ভাবে সাইবার প্রতারণার শিকার হলে তৎক্ষণাৎ 155260 নম্বরে ফোন করার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে গ্রাহকদের।