বাগদার বিধায়কের দলত্যাগে শঙ্কিত! বাতিল উত্তরবঙ্গ সফর, তড়িঘড়ি উত্তর ২৪ পরগণায় ছুটছেন শুভেন্দু

বাগদার বিধায়কের দলত্যাগে শঙ্কিত! বাতিল উত্তরবঙ্গ সফর, তড়িঘড়ি উত্তর ২৪ পরগণায় ছুটছেন শুভেন্দু
বাগদার বিধায়কের দলত্যাগে শঙ্কিত! বাতিল উত্তরবঙ্গ সফর, তড়িঘড়ি উত্তর ২৪ পরগণায় ছুটছেন শুভেন্দু

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ বিজেপিতে দল ত্য্যাগের হিড়িক পড়ে গিয়েছে। প্রথমে সপ্তাহের শুরুতেই বিষ্ণুপুরের বিধায়ক বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেন। এর ঠিক পরের দিনই বিজেপি ত্যাগ করেন বাগদার বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাস। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পরপর দুই বিধায়ক দল ত্যাগ করেন। ইতিমধ্যেই এই দুই বিধায়ককে চিঠি দিয়েছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। দলত্যাগীদের বিরোধী দলনেতার স্পষ্ট নির্দেশ, এক সপ্তাহের মধ্যে তাঁদের রাজনৈতিক ‘অবস্থান’ জানাতে হবে।

দলত্যাগী দুই বিধায়ককেই চিঠি দিলেন শুভেন্দু অধিকারী। চিঠিতে সংবাদমাধ্যমে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার কথা উল্লেখ করে জানতে চাইলেন, এখন তাঁদের রাজনৈতিক অবস্থান কী? বলা হল, এক সপ্তাহের মধ্যে জবাব দিতে হবে। এদিকে, বাগদার বিধায়কের দলত্যাগের সঙ্গে সঙ্গে নতুন আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। বিশ্বজিৎ দাসের দলত্যাগের সঙ্গে সঙ্গে বনগাঁয় দলে বড় ভাঙনের আশঙ্কা করছে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব। তাই উত্তরবঙ্গ সফর বাতিল করে, দলের সাধারণ সম্পাদক অমিতাভ চক্রবর্তী ও দিলীপ ঘোষের সঙ্গে আলোচনা করে আজই বনগাঁ যাচ্ছেন শুভেন্দু অধিকারী। উদ্দেশ্য একটাই। আর তা হল, বিশ্বজিতের হাত ঘরে তৃণমূলে যোগদানের ধারা আটকানো।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০১৯- সালে মুকুল রায়ের হাত ধরে বিজেপিতে গিয়েছিলেন বিশ্বজিৎ দাস। দু’বার তৃণমূলের টিকিটে বিধায়ক হওয়া বিশ্বজিৎ উত্তর ২৪ পরগণার জনপ্রিয় মুখ। গতকাল তৃণমূলে যোগ দিয়েই, তিনি রীতিমতো বার্তা দেন বিজেপিকে। বিজেপির উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আগামী দিনে উত্তর ২৪ পরগণা বিজেপি-তে ধ্বস নামবে। প্রাথমিকভাবে তাঁর মন্তব্য উড়িয়ে দিয়েছিলেন বনগাঁর বিজেপি জেলা সভাপতি মনস্পতি দেব। তিনি বলেছিলেন, ‘উনি কবে জ্যোতিষ হলেন, আগে জানলে হাত দেখিয়ে নিতাম। কিন্তু দলের তরফে বিশ্বজিতের মন্তব্যকে কোনও ভাবেই হালকা ভাবে নেওয়া হচ্ছে না। আর তা প্রমাণ করছে শুভেন্দু অধিকারীর সক্রিয়তাই।’

এদিকে, কথা ছিল, আজ ১ সেপ্টেম্বর উত্তরবঙ্গে পৌঁছাবেন শুভেন্দু অধিকারী। সেখানে বৈঠক করার কথা ছিল ২৯ জন বিধায়কের সঙ্গে। শোনা যাচ্ছিল, সাংসদদের সঙ্গে বসতে পারেন তিনি। কর্মীদের উজ্জীবিত করা, প্রতিশ্রুতির দায় নেওয়া আর নীচুতলার দলীয় কর্মীদের মন বোঝা-এই ছিল শুভেন্দুর উত্তরবঙ্গ যাত্রার লক্ষ্য। কিন্তু বিশ্বজৎ দাসের এই আকস্মিক সিদ্ধান্তে হতচকিত রাজ্য বিজেপি। সেই কারণেই সফরসূচি বদল করছেন শুভেন্দু অধিকারী। যাচ্ছেন উত্তর চব্বিশ পরগণায়।

তবে, শুভেন্দু উত্তর ২৪ পরগণায় গেলেও আজ উত্তরবঙ্গে যাচ্ছেন বিজেপির রাজ্য নেতৃত্ব। উত্তরবঙ্গের সমস্ত বিধানসভার বিজেপি বিধায়ক ও সাংসদের নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ সাংগঠনিক বৈঠকে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী জন বার্লা, দার্জিলিংয়ের সাংসদ রাজু বিস্তা ও রাজ্যের সাধারণ সম্পাদক অমিতাভ চক্রবর্তী। এখন প্রশ্ন একটাই, রাজ্যের বিরোধী দলনেতা উত্তর ২৪ পরগণায় গিয়ে বৈঠক করলেও, আদৌ ভাঙন ঠেকাতে সক্ষম হবেন?