বিধানসভা অধিবেশন শুরুর আগেই অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠকে শুভেন্দু! কি নিয়ে হল আলোচনা?

বিধানসভা অধিবেশন শুরুর আগেই অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠকে শুভেন্দু! কি নিয়ে হল আলোচনা?
বিধানসভা অধিবেশন শুরুর আগেই অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠকে শুভেন্দু! কি নিয়ে হল আলোচনা?

পূর্ব নির্ধারিত মত দিল্লী গিয়েই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক সারলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। বৃহস্পতিবার দুপুরে অমিত শাহের বাড়িতেই বৈঠক করেন দুজন। তাঁদের মধ্যে প্রায় ৩৫ মিনিট ধরে আলোচনা হয়। তবে আলোচনার বিষয়বস্তু সম্পর্কে মুখ খুলতে চাননি শুভেন্দু অধিকারী।

হাওয়ালা জৈন কান্ড নিয়ে ইতিমধ্যেই রাজ্য-রাজনীতি তোলপাড়। তার মধ্যে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে রাজ্যের বিরোধী দলনেতার সাক্ষাৎ যথেষ্ট তাৎপর্য পূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে। এদিকে আগামীকাল শুক্রবার থেকে শুরু হবে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার বাজেট অধিবেশন। এই অধিবেশনের আগে অমিত শাহের সঙ্গে শুভেন্দু অধিকারীর বৈঠক রাজনৈতিক ভাবে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। বিধানসভা নির্বাচনের পর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে এটাই শুভেন্দুর দ্বিতীয় বৈঠক।

সূত্রের তরফে আরও বলছে, ভুয়ো ভ্যাকসিন নিয়ে অমিতের সঙ্গে কথা হয়েছে শুভেন্দুর। আবার তাঁর ভাই দিব্যেন্দু অধিকারীও গতকাল দিল্লি গিয়েছিলেন। মঙ্গলবার বেশ রাতে দিব্যন্দুকে লোককল্যাণ মার্গে প্রায় অনেকক্ষণই দেখা গিয়েছিল। প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে তাঁর এই সফরকে ঘিরে স্বাভাবিক ভাবেই রাজনৈতিক জল্পনা চলছে। যদিও তিনি সঠিক ভাবে কিছু না বললেও জানা গিয়েছে মূলত ভ্যাকসিন নিয়েই তাদের মধ্যে আলোচনা হয়।

বুধবার হঠাৎই রাত সাড়ে আটটা নাগাদ কলকাতা বিমানবন্দরে পৌঁছান তিনি দিল্লির বিমান ধরার জন্য। রাত নটার বিমানে রাজধানী যাওয়ার কথা ছিল তাঁর। কিন্তু আবহাওয়া প্রতিকূল হওয়ায় প্রায় আধ ঘন্টার পর তার বিমান ছাড়ে। রাত সাড়ে নটার কিছু পরে দিল্লির উদ্দেশ্যে এয়ার ইন্ডিয়ার বিমানে রওনা দেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা।

বেশ কিছুদিন আগেও হঠাৎই কেন্দ্রের তলবের দিল্লি গিয়েছিলেন তিনি। সেবারের সফরে গিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার সঙ্গে বৈঠক করেছেন। তখনও তার কাছে তড়িঘড়ি তলব এসেছিল। এবারেও জরুরী তলব এই দিল্লি পাড়ি দিয়েছেন বলেই মনে করা হচ্ছে। অন্যদিকে সূত্রের খবর এবারের সফরেও তিনি জেপি নাড্ডার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে পারেন। পাশাপাশি জানা গিয়েছে ২ জুলাই এই সাক্ষাতের কথা রয়েছে। সূত্রের খবর, এ দিনের বৈঠকে রাজ্যে ভোট পরবর্তী পরিস্থিতি, আগামী রণকৌশল এবং ভ্যাকসিন কেলেঙ্কারি নিয়ে আলোচনা হতে পারে।

এদিকে আগামীকাল থেকেই শুরু হবে এবারের বর্ষাকালীন বিধানসভার অধিবেশন। তাই অধিবেশনের প্রথম দিনেই রাজ্যের বিরোধী দলনেতা আদৌ বিধানসভায় উপস্থিত থাকবেন কিনা তা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে ইতিমধ্যেই।