মঙ্গলবার, ১৭ মে, ২০২২

অনলাইন নয়, খাতায়-কলমেই হবে যাবতীয় পরীক্ষা! সিদ্ধান্ত যাদবপুর-রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের

চৈত্রী আদক

প্রকাশিত: মে ১৭, ২০২২, ০৯:৫৯ এএম | আপডেট: মে ১৭, ২০২২, ০৯:৫৯ এএম

অনলাইন নয়, খাতায়-কলমেই হবে যাবতীয় পরীক্ষা! সিদ্ধান্ত যাদবপুর-রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের
অনলাইন নয়, খাতায়-কলমেই হবে যাবতীয় পরীক্ষা! সিদ্ধান্ত যাদবপুর-রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ২৪×৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের পর এবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ও অফলাইন পরীক্ষার পথেই হাঁটলো। অন্যদিকে কল্যাণী ও বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয় রবিবারই স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে যে স্নাতকের ইভেন সেমিস্টারের পরীক্ষাও হবে অনলাইনে। পরীক্ষা অফলাইন হবে না অনলাইন তা অবশ্য সম্পূর্ণরূপেই বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর নির্ভরশীল। তবুও এক একটি বিশ্ববিদ্যালয় এক রকম সিদ্ধান্ত নেওয়ায় সমস্যায় পড়ছেন পড়ুয়ারা।

এক্ষেত্রে যাদবপুর ও রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়ে দিয়েছে, সশরীরে উপস্থিত হয়েই পরীক্ষা দিতে হবে পড়ুয়াদের। কিন্তু বেশ কিছু বিশ্ববিদ্যালয় অনলাইন পরীক্ষার দিকে ঝুঁকেছে। এই পরিপ্রেক্ষিতে ডিগ্রির ক্ষেত্রে ইউজিসির বৈধতা পেতে সমস্যা হতে পারে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞমহল। অনলাইন পরীক্ষা অনেকটা ওপেন বুক এক্সামিনেশনের মত। সেক্ষেত্রে কিছু বিশ্ববিদ্যালয় অনলাইন ও কিছু বিশ্ববিদ্যালয় অফলাইন পরীক্ষা নিলে পড়ুয়াদের প্রাপ্ত নম্বর ও পাসের হারে বৈষম্য দেখা দেওয়ার আশঙ্কা থেকেই যায়। এমনকি স্নাতকোত্তরে ভর্তির ক্ষেত্রেও সমস্যা দেখা দিতে পারে।

স্নাতক এবং স্নাতকোত্তরের পরীক্ষা কোন মোডে হবে সেই বিষয়ে সিদ্ধান্ত বিশ্ববিদ্যালয়গুলিকেই নেওয়ার নির্দেশ দেয় উচ্চশিক্ষা দফতর। সম্প্রতি অনলাইন পরীক্ষার দাবিতে রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা বিক্ষোভে শামিল হন। ফলত অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার একটা চাপ সৃষ্টি হয় রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর। কোন মাধ্যমে পরীক্ষা হবে সেই নিয়ে সোমবার জরুরি বৈঠকে বসে রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। সিদ্ধান্ত হিসেবে উপাচার্য সব্যসাচী বসু রায় চৌধুরী জানান, “ছাত্র-ছাত্রীদের স্বার্থেই আমাদের সব পরীক্ষা অফলাইনে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।”

অন্যদিকে আবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে অফলাইনে ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের পরীক্ষা প্রায় শেষের দিকে। বিজ্ঞান বিভাগের পরীক্ষা দিতে সশরীরে উপস্থিত থাকতে হচ্ছে পড়ুয়াদের। আজ অর্থাৎ মঙ্গলবার থেকে কলা বিভাগের পরীক্ষা শুরু হচ্ছে অফলাইনেই। এই প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সুরঞ্জন দাস বলেন, আগে থেকেই অফলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল এক্সাম বোর্ড। এক্সিকিউটিভ কাউন্সিল এক্সাম বোর্ডের সিদ্ধান্তকেই স্বীকৃতি দিয়েছে। তাই সমস্ত বিভাগের পরীক্ষা অফলাইনেই হচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে দ্বিমতের অন্ত নেই। তৃণমূল ছাত্র পরিষদের রাজ্য সভাপতি তৃণাঙ্কুর ভট্টাচার্য কয়েকদিন আগেই শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুকে অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার জন্য আবেদন জানিয়েছিলেন। এরপর জোড়া চাপের মুখে পরে বিশ্ববিদ্যালয়গুলি। কল্যাণী ও বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয় অনলাইনের পথে হাঁটলেও রবীন্দ্রভারতী ও যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় অফলাইন পরীক্ষাতেই জোর দিয়েছে। এই প্রসঙ্গে তৃণাঙ্কুর ভট্টাচার্য বলেছেন, যাদবপুর ও রবীন্দ্রভারতীর পরীক্ষা বিশ্ববিদ্যালয়ের চেনা পরিবেশেই হয়। অন্যদিকে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারাও হোম সেন্টারে পরীক্ষা দেবে। খাতা দেখবেন কলেজের অধ্যাপক-অধ্যাপিকারাই। তৃণাঙ্কুর আশাবাদী, ছাত্র-ছাত্রীদের যাতে কোনও অসুবিধা না হয় সেই দিকে খেয়াল রাখবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।